‘মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে পারস্পরিক ভাবনা বিনিময়ে আমরা সমৃদ্ধ হবো’

‘মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে পারস্পরিক ভাবনা বিনিময়ে আমরা সমৃদ্ধ হবো’

আগামী ২৯-৩০ সেপ্টেম্বর ২২’ হোটেল রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ’তে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি) এর ১১তম ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন সাইকিয়াট্রি’ (আইসিপি) এবং ১৩ তম ‘সার্ক ইন্টারন্যাশনাল সাইকিয়াট্রি কনফারেন্স’ (এসআইপিসি) -২২’ অনুষ্ঠিত হবে।

কনফারেন্সে অংশ নিবেন দেশ বিদেশের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ এবং জাতীয় আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা-সংগঠন। বিএপি (আইসিপি) সম্মেলনের বিস্তারিত জানতে এবং জানাতে মনের খবর এর মুখোমুখি হন বিএপি’র সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট এর সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মাদ তারিকুল আলম (সুমন)। কথা বলেন মনের খবর সহ-সম্পাদক শাহনূর শাহীন। গত জুনে নেয়া এই সাক্ষাতকার আংশিক প্রকাশ হয়েছিলো মনের খবর জুলাই-২২’ সংখ্যায়। অনলাইনে মনের খবর এর পাঠকদের জন্য পূর্ণাঙ্গ সাক্ষাতকার প্রকাশ করা হলো।

মনের খবর : স্যার, প্রথমেই বিএপি সম্মেলনের সময়সূচি ও বিষয়বস্তু সম্পর্কে জানতে চাইবো।

তারিকুল আলম : আমরা আসলে এটাকে বিএপি সম্মেলন বলি না। আমরা বলি আইসিপি সম্মেলন। এটা মূলত একটা আন্তর্জাতিক কনফারেন্স। ‘International Conference on Psychiatry’ বা ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন সাইকিয়াট্রি’ (আইসিপি)। এটার সাথে এবার যুক্ত হয়েছে ‘সার্ক ইন্টারন্যাশনাল সাইকিয়াট্রি কনফারেন্স’-‘SAARC International Psychiatry Conference’ (এসআইপিসি)।

আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর হোটেল রেডিসন ব্লু বে ভিউতে মধ্যাহ্নভোজের পর থেকে সম্মেলন শুরু হবে এবং ৩০ সেপ্টেম্বর দিনব্যাপী নানা কর্মযজ্ঞের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

আমাদের এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘বর্তমান বিশ্বে মানসিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা: চ্যালেঞ্জ ও প্রতিরোধমূলক কৌশল’। এবারের সম্মেলনে সহযোগী সংস্থা হিসেবে আছে ‘ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন‘ (ডব্লিউপিএ), ‘সার্ক সাইকিয়াট্রিক ফেডারেশন‘ (এসপিএফ) এবং ‘এশিয়ান ফেডারেশন অব সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন‘ (AFPA)।

মনের খবর : কর্মসূচি বা বিষয়বস্তু যদি আরেকটু ক্লিয়ার করতেন

তারিকুল আলম : সম্মেলনে আগত দেশ বিদেশের বিশেষজ্ঞ অতিথিরা মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে তাদের অভিজ্ঞতা, গবেষণা ও দিকনির্দেশনা তুলে ধরবেন। পারস্পরিক মতবিনিময় করবেন। এছাড়া সম্মেলনে ‘প্রফেসর হিদায়েতুল ইসলাম গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড- ২২’, ‘প্রফেসর মো. ওয়াজিউল আলম চৌধুরী রিসার্চ গ্রান্ট-২২’, ‘মোহাম্মদ তারিকুল আলম বেস্ট পোস্টার প্রেসেন্টেশন অ্যাওয়ার্ড- ২২’, ‘সার্ক সাইকিয়াট্রি ফেডারেশন (এসপিএফ) ফেলোশিপ অ্যাওয়ার্ড- ২২’প্রদান করা হবে। সম্মানিত অতিথিরা মনোনীতদের হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে দিবেন। সর্বপোরি মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে পারস্পরিক সহযোগিতা জোরদারে পারস্পরিক ভাবনা বিনিময় করে আমরা সমৃদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করবো।

মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ও পলিসিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে : প্রফেসর আফজাল জাভেদ

দুইদিন ব্যাপী এই বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের ধারাবাহিক কর্মসূচির মধ্যে আরো রয়েছে, বৈজ্ঞানিক অধিবেশন, প্রেসিডেনশিয়াল সেশন, গাইডলাইন সেশন, র‌্যাফেল ড্র, পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক সন্ধা।

মনের খবর : কনফারেন্সে কতটি দেশ অংশ নিবে?

তারিকুল আলম : ‘ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন‘ (ডব্লিউপিএ) এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা, আফজাল জাভেদ (লন্ডন), ‘সার্ক সাইকিয়াট্রিক ফেডারেশন‘ (এসপিএফ) এর প্রেসিডেন্ট ডা. গৌতম সাহা (ভারত) সহ এশিয়ার প্রায় সব ক’টি দেশ থেকে অতিথিরা অংশ গ্রহণ করবেন। এছাড়াও ইউরোপ-আমেরিকাসহ অন্যান্য মহাদেশের বিভিন্ন দেশ থেকেও অতিথিরা আসবেন।

‘ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন‘ (ডব্লিউপিএ) এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা, আফজাল জাভেদ গত মঙ্গলবার বাংলাদেশে পৌঁছেছেন

মনের খবর : এতে সাধারণ কোনো দর্শনার্থী অংশ নিতে পারবে কিনা?

তারিকুল আলম : এটা আসলে একটি বৈজ্ঞানিক কনফারেন্স। এখানে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত জাতীয়-আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিশেষজ্ঞের গবেষণা, অভিজ্ঞতা ও প্রবন্ধ-নিবন্ধ উপস্থাপন করা হবে। আর সেটা আন্তর্জাতিক ভাষায় উপস্থাপন হবে। সাধারণ মানুষ আসলে বিষয়টা বুঝবেন না। এজন্য শুধুমাত্র মেন্টাল হেলথের শিক্ষার্থী, চিকিৎসক ও গবেষকগণ এতে অংশ নিবেন। এর জন্য সবাইকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। ৩০ জুন পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

মনের খবর : এই সম্মেলন থেকে মূলত কারা উপকৃত হবেন?

তারিকুল আলম : মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে যারাই কাজ করছেন তারা সবাই এর থেকে উপকৃত হবেন। কারণ সম্মেলনে যারাই অংশ নিচ্ছেন তারাই সবাই মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করেন বা করবেন। চিকিৎসক, গবেষক, শিক্ষার্থী সবাই মানসিক স্বাস্থ্য সেবায় কাজ করেন। দিন শেষে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রার্থীরা এর থেকে উপকৃত হবেন আশা করি।

আমরা বিশ্বাস করি এই সম্মেলন সারা বিশ্বের বিশিষ্ট মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের ধারণা ও জ্ঞান বিনিমযয়ের ফলে মানসিক স্বাস্থ্য জ্ঞান উন্নতর হবে। বিশেষ করে বিভিন্ন মানসিক স্বাস্থ্য পেশাদারদের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার করবে।

মনের খবর : এই কনফারেন্স মনোরোগবিদ্যাখাতে দেশের সুনাম বৃদ্ধি করবে কী?

তারিকুল আলম : তাতো অবশ্যই। এতো বড় একটা আয়োজন আমরা অর্গানাইজ করতেছি। তার সাথে একই সময়ে সার্ক সাইকিয়াট্রি কনফারেন্সও হচ্ছে। দেশে-বিদেশের বিশেষজ্ঞ ও অভিজ্ঞরা আসবেন। এতে আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে আমাদের সুনাম বৃদ্ধি পাবে। বাংলাদেশ সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা ও বাংলাদেশের সক্ষমতা সম্পর্কে সুধারণা তৈরী হবে।

সম্মেলনে অংশ নিবেন সার্ক সাইকিয়াট্রিক ফেডারেশনের সভাপতি ডা. গৌতম সাহা

মনের খবর : বাংলাদেশের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে বিএপি’র এই সম্মেলন কতটুকু ভুমিকা রাখবে?

তারিকুল আলম : বাংলাদেশের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে এই কনফারেন্স ভুমিকা রাখবে বলতে বিষয়টা পরোক্ষ। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি) দেশের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে নানাভাবে কাজ করছে। ইতোমধ্যে আমরা মানসিক চিকিৎসা সেবা নিয়মতান্ত্রিক কাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসার জন্য বেশ কিছু রোগের গাইডলাইন তৈরী করেছি। বাইপলার ডিজঅর্ডার, ওসিডি ডিজঅর্ডার এবং সিজোফ্রেনিয়া ডিজঅর্ডার প্রকাশ হয়েছে। বর্তমানে ডিপ্রেশন ডিজঅর্ডার এবং এংজাইটি ডিজঅর্ডার তৈরীর কাজ শেষ পর্যায়ে আছে। এই সম্মেলনের আগেই আশা করি প্রস্তুত হয়ে যাবে। এই যে গাইডলাইনগুলো আমরা করছি এগুলো কিন্তু পেইড রাখিনি। আমরা এগুলো উন্মুক্ত করে দিয়েছি। আমাদের ওয়েবসাইটে পিডিএফ আকারে আপলোড করা আছে। গন্যমাধমেও প্রকাশ করা হয়েছে। ওয়েবসাইটে বর্তমানে ইংরেজী ভাষায় আছে। আমরা এটাকে বাংলা ভাষাতেও করবো। এছাড়াও আমরা সারা বছর মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে নানান কর্মসূচি পালন করি। আমরা নিজেরা বিভিন্ন গণমাধ্যমে বক্তব্য, বিবৃতি ও লেখালেখি করি। গণ্যমাধ্যমও তাদের জায়গা থেকে আমাদেরকে সহযোগিতা করছে। এভাবে সারাদেশে মানসিক রোগ বা মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা ও কুসংস্কার দূর হচ্ছে। এই সম্মেলন থেকেও আমরা পরস্পর অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে সমৃদ্ধ হবো এবং সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে ভুমিকা রাখতে পারবো।

মনের খবর : সব মিলিয়ে আপনাদের সার্বিক প্রস্তুতি কেমন?

তারিকুল আলম : সবমিলিয়ে প্রস্তুতি এখন পর্যন্ত সন্তোষজনক পর্যায়ে আছে। এখনো হাতে বেশ কিছু সময় আছে সে পর্যন্ত আমরা পুরোপুরি প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে পারবো। বিদেশি অতিথিদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে আমরা এখনো কাজ করতেছি। অনেকেই ইতোমধ্যে কনফার্ম করেছেন, আরো অনেকে আসবেন। সে বিষয়ে আমরা কাজ করতেছি।

মনের খবর : ধন্যবাদ স্যার, মনের খবরকে আপনার মূল্যবান সময় দেয়ার জন্য।

তারিকুল আলম : আপনাকেও ধন্যবাদ।

উল্লেখ্য, ২৯-৩০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসন ব্লু বে ভিউতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দুইদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সাইকিয়াট্রি সম্মেলন। এতে দেশ বিদেশের কয়েক শতাধিক মনোরোগ বিশেষজ্ঞ অংশগ্রহণ করবেন। এই কনফারেন্সে বৈজ্ঞানিক সেমিনার, অ্যাওয়ার্ড প্রদান, আলোচনা, গবেষণা উপস্থাপনা ছাড়াও দুটি মানসিক রোগ এর চিকিৎসা নির্দেশিকা উন্মুক্ত করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন বিএপির সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. তারিকুল আলম।

একনজরে দেখে নিন…
আইসিপি কনফারেন্সের বিস্তারিত সূচি

/এসএস/মনেরখবর

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here