মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ও পলিসিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে : প্রফেসর আফজাল জাভেদ

মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ও পলিসিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে : প্রফেসর আফজাল জাভেদ
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন, ডব্লিউপিএ প্রেসিডেন্ট প্রফেসর আফজাল জাভেদ

মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা ও স্বাস্থ্যসেবায় বাংলাদেশ অনেকদূর এগিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউপিএ) এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. আফজাল জাভেদ।

মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) রাত সাড়ে আটটায় রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এক প্রেস কনফারেন্সে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিশ্ববিখ্যাত এ মনোরোগ বিজ্ঞানী বলেন, পৃথিবীতে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার যত রোগী আছে- দেখা যায় ৭৫ ভাগ মানসিক রোগ ২৫ বছর বয়সের আগে শুরু হয়। পৃথিবী জুড়ে মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা ও সচেতনতা এখন অনেকটা এগিয়েছে। বাংলাদেশেও মানসিক স্বাস্থ্যসেবা এগিয়েছে। পলিসির দিক থেকে এবং সচেতনতার দিক বাংলাদেশ অনেকদূর এগিয়েছে বলে আমি মনে করি।

  • প্রফেসর জাভেদ বলেন, ধর্মীয় রীতিনীতি ও পারিবারিক সদাচারণ এ মানসিক স্বাস্থ্য ঝুঁকি অনেকটাই কমিয়ে আনতে পারে। একই সঙ্গে পরিবার ও সিভিল সোসাইটিকে এগিয়ে আসতে হবে। তাছাড়া শিক্ষানীতিতে মানসিক স্বাস্থ্য যুক্ত করতে হবে।

বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য ১১তম আন্তর্জাতিক সাইকিয়াট্রি সম্মেলন এবং ১৩তম সার্ক সাইকিয়াট্রি সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজক সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি) হেটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের মধুমতি হলে এ কনফারেন্সের আয়োজন করে।

সংশ্লিষ্ট খবর…
চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য কনফারেন্সের বিস্তারিত সূচি

ব্রিফ করছেন, বিএপি প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ওয়াজিউল আলম চৌধুরী

প্রেস কনফারেন্সে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক সাইকিয়াট্রি সম্মেলন সম্পর্কে বিস্তারিত জানান আয়োজকরা। এছাড়াও মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা তথ্য উপস্থাপন করেন এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন বিশেষজ্ঞগণ।

প্রফেসর আফজাল জাভেদ ছাড়াও প্রেস কনফারেন্সে বিএপি’র প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ওয়াজিউল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট (এনআইএমএইচ) এর সাবেক পরিচালক প্রফেসর ডা. গোলাম রব্বানী, প্রফেসর ডা. মোহিত কামাল, বি.জেনারেল (অব) প্রফেসর ডা. আজিজুল ইসলাম, বিএপি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব, এনআইএমএইচ এর সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ, বিএসএমএমইউ এর মনোরোগবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. নাহিদ মাহজাবিন মোর্শেদ, সহযোগী অধ্যাপক ডা. জিল্লুর রহমান খান রতন ও ডা. ফাতেমা মারিয়া খান প্রমুখ।

এসময় প্রফেসর ডা. গোলাম রব্বানী সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আশা করি আপনারা আমাদের পথযাত্রার সাথী হয়ে সাধারণ জনগণকে জানিয়ে দিবেন যে, আমরা তাদের জন্য কাজ করছি। মানসিক স্বাস্থ্যসেবা যেন মানুষের দ্বোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে পারি সেই চেষ্টায় আপনারা আমাদের সহযাত্রী হবেন।

বি.জে. (অব) অধ্যাপক ডা. আজিজুল ইসলাম বলেন, আমরা মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে জানি না। আমাদের দেশে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সচেতনতামূলক কার্যক্রম অনেক কম, অধিকাংশ মানুষ জানেই না। যেই দেশের অধিকাংশ মানুষ মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে খুব একটা জানে না সেই দেশের জন্য আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে ৬৮০ জন সাইকিয়াট্রিস্টস, গবেষকগণ যে কথাগুলো বলবেন, আমরা যদি সেগুলো সারাদেশে ছড়াতে পারি, আশা করি মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ও মানসিক স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে।

এসময় সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে কথাসাহিত্যিক ও মনোবিজ্ঞানী অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল বলেন, পাগল বলে বিজ্ঞানে কোনো শব্দ নেই। ব্রেনে কিছু জৈব রসায়নিক পদার্থ আছে। সেগুলো বেড়ে গেলে কিংবা কমে গেলে মানসিক সমস্যা তৈরী হয়। শারীরিক সমস্যা হলে যেমন চিকিৎসা করা হয় তেমনি মানসিক সমস্যাগুলো থেকেও চিকিৎসার মাধ্যমে সুরক্ষা পাওয়া যায়।

ব্রিফ করছেন অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আল্লাহ তাআলা আমাদের রাত দিয়েছেন ঘুমের জন্য। কিন্তু কিশোর কিশোরীরা ঘুমায় না। মোবাইল/ইন্টারনেট ব্রাউজিং করে। দিনের বেলায় ঝিমায়। পরীক্ষায় ভালো করতে পারে না। অন্যদিকে বাবা-মার চাওয়া কেবল পরীক্ষায় ভালো করতে হবে। বাবা মা’কে সন্তানের মানসিক অবস্থার দিকেও মনোযোগ দিতে হবে। রাতে ঘুমায় কিনা সেটাও দেখতে হবে। এধরণের রোগী এখন আমরা বেশি দেখছি। কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে প্রচুর মানসিক সমস্যা তৈরী হচ্ছে। তাদেরকে সময় দিতে হবে। তাদের কথা শুনতে হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা যখন শিক্ষার্থী ছিলাম তখন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে দিনে সর্বোচ্চ ৭০-৮০ জন মানুষ সেবা নিয়েছে। বর্তমানে ৪০০ লোককে আমরা সেবা দিচ্ছি। এনআইএমএইচে ৭জন অধ্যাপকের পদ রয়েছে কিন্তু বর্তমানে মাত্র একজন অধ্যাপক কাজ করছেন। অর্থাৎ আমাদের জনবল বাড়েনি কিন্তু সেবা বেড়েছে বহুগুণ।

উপস্থিত সাংবাদিক ও অতিথিবৃন্দ

উপস্থিত সাংবাদিকদের শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বিএপি’ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও মনের খবর সম্পাদক অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব বলেন, মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে আপনারা যেকোনো সময় যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন আমরা আপনাদেরকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করবো।

উল্লেখ্য, আগামী ২৯-৩০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসন ব্লু বে ভিউতে অনুষ্ঠিত হবে দুইদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সাইকিয়াট্রি সম্মেলন। এতে দেশ বিদেশের কয়েক শতাধিক মনোরোগ বিশেষজ্ঞ অংশগ্রহণ করবেন। এই কনফারেন্সে বৈজ্ঞানিক সেমিনার, অ্যাওয়ার্ড প্রদান, আলোচনা, গবেষণা উপস্থাপনা ছাড়াও দুটি মানসিক রোগ এর চিকিৎসা নির্দেশিকা উন্মুক্ত করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন বিএপির সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. তারিকুল আলম।

/এসএস/মনেরখবর/

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here