ক্ষমাশীল মানসিকতা জীবনকে সহজ ও আনন্দময় করে

0
42
ক্ষমাশীল মানসিকতা জীবনকে সহজ ও আনন্দময় করে। ছবিঃ ইন্টারনেট
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

মানসিক সব ধরণের কষ্ট থেকে মুক্তি পাবার সব থেকে ভালো উপায় হল ক্ষমাশীল মানসিকতা এবং নেতিবাচক সব কিছু ভুলে সামনে এগিয়ে চলা।

মনস্তাত্ত্বিকগণ বলেন,  যদি জীবনকে আরও আনন্দময় এবং সুন্দর করে তুলতে হয় তাহলে মনের মাঝে থাকা কষ্টগুলির নিবারণ করতে হবে এবং কষ্টের অভিজ্ঞতাগুলিকে ভুলে যেতে হবে। মন থেকে ভালো কিছু হবার আশা যেমন কখনোই ত্যাগ করা যাবেনা এবং একই সাথে পুরনো স্মৃতি বা কষ্টের অনুভূতি আঁকড়ে ধরে জীবনকে আরও কঠিন করে ফেলাও সমীচীন নয়। যদি এমনটি না হয় তাহলে ধীরে ধীরে এই অনুভূতি আরও তীব্র ও অসহনীয় হয়ে ওঠে। আশাবাদী মনোভাব হারিয়ে যায় এবং জীবন থেকে আনন্দের অনুভূতিগুলিও ক্রমশ হ্রাস পায়। এ ধরণের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মূল কারণ মানসিক কষ্ট যা বিভিন্ন অসন্তোষজনক চিন্তা ভাবনার জন্যই সৃষ্টি হয়। এই চিন্তা ভাবনাগুলি মূলত কোন ঘটনা বা ব্যক্তির সাথে জড়িয়ে থাকে যেখানে ব্যক্তি নিজেকে ভুক্তভোগী হিসেবে দেখে। আর এগুলি নিয়ে সে যত বেশি ভাবে, এগুলি তার মানসিক অসন্তোষ ততোটাই বাড়িয়ে দেয়। তাই নিজেকে ভালো রাখতে এবং এই মানসিক পীড়া থেকে মুক্তি পেতে উক্ত অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা বা ব্যক্তিদের প্রতি ক্ষমাশীল হয়ে সেগুলি ভুলে যেতে হবে যেন জীবনে সামনে এগিয়ে যাওয়া যায়।

মনস্তাত্ত্বিকদের মতে, বিভিন্নভাবে নিজের মধ্যে ক্ষমাশীল মনোভাব সৃষ্টি করা যায়। এই কৌশল গুলির মধ্যে অন্যতম হল পুরনো কথা কম ভাবার চেষ্টা করা। আমরা যদি পুরনো সেসব ঘটনা বা ব্যক্তিদের কথা ভুলে যাবার প্রয়াস করি তাহলে তাদের সাথে জড়িত অনাকাঙ্ক্ষিত স্মৃতি গুলিও আমাদের মন থেকে ধীরে ধীরে দূরীভূত হবে। ফলে তাদের প্রতি মনের মাঝে যে কষ্ট বা তাদের প্রতি যে ক্ষোভ রয়েছে সেটি কমবে। তাদেরকে ক্ষমা করে দেওয়া এবং সামনে এগিয়ে যাওয়া সহজ হবে। নিজের প্রতি অন্যায় হয়েছে বা নিজে ভুক্তভোগী এমন চিন্তা ভাবনা যখন মন থেকে দূরীভূত হয় তখন অন্যদের প্রতি ক্ষোভও কমে যায় এবং সব ধরণের অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয়গুলির প্রতি ক্ষমাশীল দৃষ্টিভঙ্গি লালন করা সম্ভব হয়।

তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় মনের মধ্যে চেপে রাখা কষ্ট যদি শুধু নিজের মাঝেই পুষে রাখা হয় তাহলে ধীরে ধীরে সেটি পাহাড় সমান হয়ে যায়। তাই মনের মাঝে চেপে রাখা ক্ষোভ এবং কষ্ট নিজের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে যদি কাছের মানুষদের সাথে শেয়ার করে নেওয়া যায় তাহলে চেপে রাখা ক্ষোভ অনেকটাই প্রশমিত হয়। এতে পুরনো অনাকাঙ্ক্ষিত অভিজ্ঞতা মেনে নেওয়া এবং জীবনে সামনে এগিয়ে যাওয়া সহজ হয়।

আমরা অধিকাংশ সময় যেসব কাজ করি সেটি সাধারণত আমাদের চিন্তা ভাবনা দ্বারাই সব থেকে বেশি প্রভাবিত হয়। আর এই চিন্তাভাবনা যদি আমাদের অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে করা হয় তাহলে মানসিক অসন্তোষ কখনোই আমাদের পিছু ছাড়বে না।

আমাদেরকে পুরনো তিক্ত অভিজ্ঞতা ভুলতে অন্য কারও উপর থাকা রাগ, ক্ষোভ ইত্যাদি নেতিবাচক অনুভূতিগুলি ত্যাগ করে সবকিছুর প্রতি ক্ষমাশীল দৃষ্টিভঙ্গি ধারণ করতে হবে। এটিই মানসিক প্রশান্তিতে থাকার এবং সহজ ও সুন্দর জীবন যাপনের মূল কেন্দ্রবিন্দু।

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে   

 

“মনের খবর” ম্যাগাজিন পেতে কল করুন ০১৮ ৬৫ ৪৬ ৬৫ ৯৪
more

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here