কভিড -১৯: বয়স্কদের উদ্বেগ ও একাকীত্ব দূরীকরণে করণীয়

কভিড -১৯: বয়স্কদের উদ্বেগ ও একাকীত্ব দূরীকরণে করণীয়
কভিড -১৯: বয়স্কদের উদ্বেগ ও একাকীত্ব দূরীকরণে করণীয়

পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়া রোগ কোভিড-১৯ কে নিয়ে রাষ্ট্রীয় ও আঞ্চলিক পর্যায় থেকে নির্দেশনা ও আশ্রয়ের পাশাপাশি  সমস্ত রোগীর, বিশেষ করে, বয়স্কদের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি গভীর মনোযোগ দেওয়া চিকিৎসকদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
বর্তমানে, ৬৫ বছর বা তারও বেশি বয়সী ৫০ মিলিয়নেরও বেশি আমেরিকান রয়েছেন। জনস্বাস্থ্যের এই সঙ্কটময় অবস্থায়, ভাইরাসটির বিস্তার রোধে শারীরিক দূরত্ব প্রয়োজনীয়, তবে এটি বয়স্কদের মানসিক স্বাস্থ্য এবং সুস্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। যার ফলে একাকীত্ব, উদ্বেগ, হতাশা এবং জ্ঞানীয় সমস্যা দেখা দিতে পারে।
যুক্তরাষ্ট্রে এখন করোনাভাইরাসে ৪০,০০০ এরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে; এবং সিডিসি জানিয়েছে যে এই রোগের সাথে জড়িত৮০ % মৃত্যুর ঘটনা ৬৫বছর বা তার বেশি বয়সের মধ্যে হয়েছিল। এই তথ্যগুলি সিনিয়রদের আবাসস্থল, নার্সিং হোমস এবং অন্যান্য দীর্ঘমেয়াদী সুবিধাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানকে লকডাউনে যেতে এবং দর্শনার্থীদের প্রবেশের উপর নিষেধাঙ্গা জারী করেছে।
“স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার প্রত্যেকে এখন অবরোধের মধ্যে রয়েছে। আমরা এই ভাইরাসের সাথে যুদ্ধ করছি এবং এর পাশাপাশি আমাদের প্রবীণ রোগীদের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।”-কো প্রেসিডেন্ট, আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর জেরিয়াট্রিক সাইকিয়াট্রি (এএজিপি), ব্রেন্ট ফরেস্টার, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সংস্থা এমডি মেডিস্কেপ মেডিকেল নিউজকে জানিয়েছেন।
“গবেষণা প্রমাণ করেছে যে, বয়স্কদের ভালো থাকতে উৎসাহিত করার জন্য অন্যান্য ব্যক্তির সাথে সামাজিক যোগাযোগ এবং জড়িত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ; তবে শারীরিক দূরত্বের নীতিমালা দ্বারা সামাজিক যোগাযোগকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ করা হচ্ছে,” তিনি বলেছিলেন।
এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও বিশেষজ্ঞরা লক্ষ করেছেন যে, বয়স্কদের সামাজিকভাবে সংযুক্ত ও মানসিকভাবে সুস্থ রাখতে সহায়তা করার জন্য বিভিন্ন ধরণের উচ্চ এবং নিম্ন প্রযুক্তির কৌশল রয়েছে। আমেরিকান সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন ফর জেরিয়াট্রিক সাইকিয়াট্রির কাউন্সিলের সহ-সভাপতি এবং ম্যাকলিন হাসপাতালের জেরিয়াট্রিক সাইকিয়াট্রি বিভাগের প্রধান, ফরেস্টার নোট করেছেন যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাম্প্রতিক ঘোষণার পরে মেডিকেয়ার এখন সমস্ত টেলিহেলথ পরিষেবাদি প্রদান করবে, তার ক্লিনিক সম্পূর্ণ ভার্চুয়াল হয়ে উঠছে।
ফরেস্টার বলেছেন, টেলিফোন বা ভিডিও টেলিহেলথ প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে তাদের স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহকারীদের সাথে বয়স্কদের সংযোগ বজায় রাখা জরুরি এবং এটি মানসিক স্বাস্থ্য পেশাদার হিসাবে আমাদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হতে পারে।
জ্যাকেরিয়াট্রিক সাইকিয়াট্রি আউটপ্যাশেন্ট প্রোগ্রামের মেডিকেল ডিরেক্টর এবং ম্যাকলিন হাসপাতালের ইনস্টিটিউট ফর টেকনোলজি অ্যান্ড সাইকিয়াট্রি-এর মেডিক্যাল ডিরেক্টর এমডি ইপসিত ওয়াহিয়া একমত পোষণ করেছেন এবং বলেছেন যে কোভিড -১৯-এর কারণে টেলিমেডিসিনের দ্রূত পরিবর্তন স্থায়ী হবে।
মেডস্কেপের সাথে আলাপচারিতার তিনি আরো বলেন- আশা করছি, এই সংকটকালের শেষে আমরা চিকিৎসা সেবাখাতকে টেলিমেডিসিনের দিকে বৃহৎপরিসরে এবং স্থায়ীভাবে ঝুঁকতে দেখবো।
সূত্র: https://www.medscape.com/viewarticle/927519

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here