একাকীত্ব দূর করতে আয়ত্ত করুন সহজ কিছু কৌশল

0
121
মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা নিয়ে সমাজে যত ভুল ভ্রান্তি
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

শুধুমাত্র অনেক মানুষের মাঝে থাকলেই একজন মানুষ একাকী অনুভব করবে না এমনটি নয়। একাকীত্ব এমন একটি অনুভূতি যেটি অনেক বেশী মানুষের মাঝে থাকলেও অনুভূত হতে পারে।

একাকীত্ব বর্তমান প্রজন্মের মানুষের মধ্যাকার অন্যতম বড় একটি মানসিক সমস্যা।  একা বসবাস করে, একা কাজ করে বা একার মতো করে দৈনন্দিন জীবন যাপন করে অন্যদের থেকে আলাদা থাকা খুবই সহজ। অনেকেই দিনের পর দিন কারও সাথে সামনাসামনি কথা না বলেও থাকতে পারেন।

এ ধরণের একা থাকা এবং একাকীত্বের অনুভূতি সম্পূর্ণ ভিন্ন দুটি বিষয়। অনেকে এভাবে একা থেকেও সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারেন। আবার, অনেকেই সবার মাঝে থেকে, সবার সাথে বসবাস করে এবং দৈনন্দিন জীবনে বহু মানুষের সান্নিধ্যে থেকেও নিজেকে একা অনুভব করতে পারেন।

এভাবে মানসিকভাবে একাকী অনুভব করার অনুভূতিকেই একাকীত্ব নামক মানসিক সমস্যা বলা হয়। ছোট, বড় বা বৃদ্ধ যে কোন বয়সের মানুষই একাকীত্ব জনিত মানসিক সমস্যায় ভুগতে পারেন। যারা জীবনে অনেক সফল এবং একাই লড়াই করে জীবনে বড় হয়েছেন তারাও একাকীত্বে ভুগতে পারেন।

এই একাকীত্বে ভোগার বা মন থেকে কারও সাথে যুক্ত থাকার অনুভূতি থেকে বিচ্ছিন্ন থাকার সমস্যাকে দূর করতে মনস্তত্ত্ববিদগণ বেশ কিছু নির্দেশনা প্রদান করেছেন। যেগুলো এই সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম।

অনেকেই মানুষের সামনে নিজের অনুভূতি সঠিক ভাবে ব্যক্ত করতে পারে না। এতে করে আশপাশের মানুষদের সাথে তার ভাবের আদান প্রদান সঠিকভাবে হয় না। যার ফলে সৃষ্টি হয় মনস্তাত্ত্বিক দূরত্ব। ফলে ব্যক্তি ধীরে ধীরে একাকীত্বে নিমজ্জিত হয়।

আবার অনেকে লজ্জা, ভয় বা হীনমন্যতায় ভোগার ফলে একাকীত্বে ভোগে। এ ধরণের অনুভূতিগুলো মানসিক চাপও বাড়ায়। ফলে অনেকের কাছেই মনে হয় যে, সে হয়তো অন্যদের সামনে নিজেকে প্রকাশ করতে ব্যর্থ এবং অন্যরা এ কারণে তাকে নিয়ে হাসাহাসি করবে।

এই অনুভূতি এবং অভিজ্ঞতাগুলো ধীরে ধীরে তাকে আরও একা করে দেয়। তাই একাকীত্ব দূর করতে প্রথমে নিজের মাঝে থাকা এই অনুভূতিগুলোকে আগে চিহ্নিত করতে হবে। কেন আপনার এ ধরণের অনুভূতি হচ্ছে সেই কারণ খুঁজে বের করতে হবে। হতে পারে এর পেছনে অনেক যুক্তিসঙ্গত বা অযৌক্তিক অনেক কারণই রয়েছে যার ফলে আপনি এ ধরণের অনুভূতির শিকার হচ্ছেন।

এ ধরণের কারণ গুলোকে চিহ্নিত করে আগে সেগুলোকে দূর করা প্রয়োজন যাতে আপনি আরও বেশী সামাজিক হয়ে উঠতে পারেন। এ ধরণের কারণগুলো একা একাই দূর হয়ে যাবে না বরং এগুলোকে চিহ্নিত করে দূর করার প্রয়াস আপনাকেই করতে হবে।

তাছাড়া একাকীত্ব দূর করতে বা এক কথায় আরও বেশী সামাজিক হয়ে উঠতে মানসিক চাপ দূর করা প্রয়োজন। সামাজিক মেলামেশায় নিজেকে আরও উৎসাহী এবং সহজ করে তুলতে এই মানসিক চাপই মূল বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়। এক্ষেত্রে নিজেকে সরাসরি মানুষের মাঝে নিয়ে না গিয়ে কল্পনা করেও এই সমস্যা দূর করার প্রয়াস করা যেতে পারে।

মানুষ প্রচেষ্টা করলে সব কিছুই পারে। তাই মনোবল অটুট রেখে প্রচেষ্টার মাধ্যমে একাকীত্ব নামক মানসিক সমস্যাটিকে দূর করার প্রয়াস করতে হবে। এটি কোন জাদুর মাধ্যমে বা রাতারাতি হয়ে যাবে না বরং ধীরে ধীরে প্রচেষ্টার মাধ্যমে সম্ভব হবে। তাছাড়া মানসিক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়েও অনেক সময় একাকীত্ব থেকে মুক্তি লাভ করার প্রয়াস করা যেতে পারে।

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here