পেশা পরিবর্তন ,পেশাহীনতা, পারিবারিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব

পেশা পরিবর্তন ,পেশাহীনতা, পারিবারিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব

ডা মো আব্দুল্লাহ ছায়ীদ
মনোরোগ বিশেষজ্ঞ

কোন পেশাই ছোট নয়। ক্রিস জেমির মতে প্রতিটা পেশাই যদি মন থেকে করা হয় তবে তার মূল্য সমান। লেইঘ হান্ট বলেন সকল বিনোদনেরই মূল ভিত্তিটা হলো পেশা; যা না থাকলে কিছুই হবে না।

পেশা হল প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নিয়ে সেই শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে অর্থ উপার্জন করা। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছাড়া কোনো প্রশিক্ষণ নিয়ে অর্থ উপার্জন করাকে বৃত্তি বলে যার জন্য কোনো তাত্ত্বিক জ্ঞান বা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার প্রয়োজন হয় না।

পেশা মূলত ফারসি শব্দ। অন্যদিকে পেশার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো ‘Profession’। যার অভিধানিক অর্থ জীবিকা বা জীবন ধারণের বিশেষ উপায়। তবে জীবিকা নির্বাহের সকল উপায় বা পন্থা পেশা নয়। কোনো বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক জ্ঞান নির্ধারিত সময়ে অর্জন করে সে জ্ঞানকে বাস্তবে প্রয়োগ করে জীবিকা অর্জনের উপায় হচ্ছে পেশা।

যেমন রিক্সাচালক ও ডাক্তারের কাজ উভয়ই জীবিকা নির্বাহের উপায় হলেও রিক্সাচালকের কাজ বৃত্তি এবং ডাক্তারের কাজ পেশা হিসেবে বিবেচিত হবে। কেননা জ্ঞানের কোনো একটি শাখায় দক্ষতা অর্জন করে সে জ্ঞানকে অর্থনৈতিক উদ্দেশ্যে তথা জীবন ধারণের উপায় হিসেবে প্রয়োগ করলে তা পেশা হিসেবে বিবেচিত হবে।

সমাজকর্ম অভিধানের ব্যাখ্যানুযায়ী পেশা হলো এমন একদল জনগোষ্ঠী যারা নির্দিষ্ট সামাজিক প্রয়োজন বা চাহিদা পূরণে অভিন্ন সাধারণ মূল্যবোধ, দক্ষতা, কৌশল, জ্ঞান এবং বিশ্বাস অনুসরণ ও ব্যবহার করে। সুতরাং পেশা বলতে বিশেষ কোনো বিষয়ে নির্দিষ্ট জ্ঞান, দক্ষতা, নৈপূন্য, মূল্যবোধ, বিশেষ নীতি ও বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন বৃত্তিকে বোঝায় যা সাধারণত জনকল্যাণমুখী এবং পেশাগত সংগঠনের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত ও পরিচালিত হয়ে থাকে।

  • যেকোনো পেশাকে পরিপূর্ণ পেশার মর্যাদা অর্জন করতে হলে সমাজ ও রাষ্ট্রের স্বীকৃতি অর্জন করতে হয়। পেশার বৈচিত্রময় দিক হল কেউ সহজে পেশা পেয়ে যাচ্ছে, কেউ ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও পেশা পাচ্ছে না, আবার কেউ পেশা পেয়েও ছেড়ে দিচ্ছে, কেউ ব্যাক্তিত্ত্বের জটিলতার জন্য বার বার পেশা পরিবর্তন করছে, কেউ পেশা হারাচ্ছে।

Social Readjustment Rating Scale অনুযায়ী পেশা পরিবর্তন ও পেশাহীনতা দুটিই মনস্তাত্ত্বিক চাপের কারণ। নানাবিধ কারণ যেমন মহামারী, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, মানবসৃষ্ট দুর্যোগ,নদী দূষণ, জলবায়ু পরিবর্তন সহ নানাবিধ কারণে মানুষ পেশা পরিবর্তন করে বা পেশাহীন হয়ে যায়।

সাম্প্রতিক সময়ে করোনা মহামারীতে আমরা দেখেছি অনেকে পেশা হারিয়ে কর্মহীন হয়ে পড়ছে, শুধু সংসারের দু’মুঠো ভাতের জোগান দিতে অনেকে পেশা পরিবর্তন করেছে। অনেকে মূল পেশা বদল করে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিক্রি, সবজি বিক্রি,  ফুটপাতের দোকান দেয়া, রিকশা চালানো সহ ছোট ছোট বিভিন্ন পেশায় জড়িয়ে পড়তে বাধ্য হয়েছেন।

অনেক বেসরকারি চাকুরিজীবি চাকরি হারিয়ে ইউটিউব চ্যানেল পরিচালনা করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। পেশা পরিবর্তন অনেক সময় ইচিবাচক প্রভাব নিয়ে আসে। তবে পেশা পরিবর্তন বা পেশাহীনতা বেশিরভাগ সময় নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে আসে।

  • যেমন নতুন পেশা হয়ত পূর্বের চেয়ে বেশী ঝুকিপূর্ণ যেখানে হয়ত কাজে থাকা পর্যন্ত পরিবারের লোকজন উৎকণ্ঠতায় থাকে, কর্মঘণ্টা বেশী-পরিবারকে সময় দিতে পারছে না, বেতন কমে যাওয়া, পেশাগত সন্তুষ্টির অভাব যা পারিবারিক ও অর্থনৈতিক বিষয়ে প্রভাব ফেলে। যার ফলে মানুষ তাদের পারিবারিক ব্যয় কমিয়ে দেয়, খরচ কমাতে গিয়ে খাদ্যাভ্যাস কিছুটা পরিবর্তন করে। সবচেয়ে বড় সমস্যা এদের বেশিরভাগই পুরনো পেশায় ফিরতে পারে না।

বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির এক গবেষণায় বলা হয়েছে, করোনাকালে দেশের ৩ কোটি ৬০ লাখ মানুষ কাজ হারিয়েছেন। আর সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) এক জরিপে বলেছে, করোনা শুরু হওয়ার বিভিন্ন সময়ে ৬২ শতাংশ মানুষ চাকরি ও কাজ হারিয়েছেন। লাখ লাখ পরিবার করোনাকালে আয় রোজগার না থাকায় খাবার কমিয়ে দিয়েছেন। আবার লাখ লাখ পরিবার সঞ্চিত পুঁজি ভেঙে খেয়েছেন।

পেশা পরিবর্তন ও পেশাহীনতার নেতিবাচক প্রভাব লাঘবের জন্য প্রয়োজন পেশাদারিত্ব মনোভাব, চাকুরিবিধির যথাযত প্রয়োগ ও সরকারের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি।

লেখক : ডা. মো আব্দুল্লাহ ছায়ীদ
এমবিবিএস, এমডি (সাইকিয়াট্রি)
সহকারী অধ্যাপক, মনোরোগ বিদ্যা বিভাগ
নর্থ ইষ্ট মেডিকেল কলেজ, সিলেট।

মৃগী রোগীর জন্য যেসব পেশা ঝুকিপূর্ণ : ডা. মো. আব্দুল্লাহ ছায়ীদ

  • মাসিক মনের খবর প্রিন্ট ম্যাগাজিন সংগ্রহ করতে চাইলে কল করুন : 01797296216 এই নাম্বারে। অথবা মেসেজ করুন পেজের ইনবক্সে। মনের খবর অনলাইনে লেখা পাঠাতে পারেন monerkhaboronline@gmail.com এই ঠিকানায় অথবা হোয়াটসঅ্যাপ  01844618497 নাম্বারে।

/এসএস/মনেরখবর

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here