মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ঘটনা পর্যবেক্ষণের জন্য ডেপুটিদের প্রশিক্ষণ প্রদান

মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ঘটনা পর্যবেক্ষণের জন্য ডেপুটিদের প্রশিক্ষণ প্রদান

দক্ষিণ ক্যারোলিনার পিডি ডিতে ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জের জন্য ডেপুটিদের বিস্তারিত প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। মারিয়ন কাউন্টি ডেপুটিরা মানসিকভাবে অসুস্থ ব্যক্তিদেরকে কীভাবে ভালভাবে চিহ্নিত করা যায় সে সম্পর্কে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে।
সাইত্রিশ জন ডেপুটি অফিসার ট্রিনিটি বিহেভিয়ারাল হেলথ সেন্টার এই প্রতিষ্ঠানের আওতায় প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। শেরিফ ওয়ালেস বলেন তার ডেপুটিদের সঠিকভাবে জানতে হবে কিভাবে তারা একজন সত্য সন্দেহভাজন এর সাথে কথা বলছেন কিংবা যোগাযোগ করছেন নাকি এমন কেউ যার শুধু সাহায্য প্রয়োজন তার সাথে যোগাযোগ করছেন তা নির্ধারণ করতে হবে।
ওয়ালেস বলেন, “ডেপুটিদের প্রথম লক্ষ্যটি হল যে ব্যক্তির সাথে কথা বলা হচ্ছে তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং যাদের চিকিৎসা সেবা প্রয়োজন তাদের সে সেবা প্রদান করা, প্রয়োজন হলে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। যাই হওক না কেন তাদের আরো ভাল জীবন পাওয়া উচিৎ”।
যদি কর্মকর্তারা কোনও ব্যক্তিকে দেখে মনে করেন যে ব্যক্তিটি বেঁচে যাওয়ার জন্য মানসিক রোগী হওয়ার অভিনয় করছে তাহলে তাকে মূল্যায়নের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়ে থাকে। পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা হয় ব্যাক্তিটি আসলেই মানসিক ভাবে অসুস্থ কি না।
ওয়ালেস আরো বলেন যে গত ছয় মাসে ডেপুটিরা কিছু ব্যাপার লক্ষ্য করেছেন। কিছু কিছু ব্যক্তির পরিস্থিতির স্বীকার হয়ে মানসিক ভাবে অসুস্থ হওয়ার অভিনয় করছেন। তারা কোন না কোন সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য মানসিক ভাবে অসুস্থ হওয়ার অভিনয় করে থাকেন।
তিনি বলেন যে একজন ডেপুটি এমন একজন ব্যক্তিকে দেখেছিলেন যে দৌড়ে তার প্রতিবেশীর মুরগীর ঘরের উপর উঠে যায়। এবং সে ঐ ঘরের ছাদে বসে রোস্ট খাওয়া শুরু করল।
শেরিফ বলেন এই নতুন প্রচেষ্টা যাদের সাহায্য এবং পূনর্বাসন দরকার তাদের প্রয়োজনমত সাহায্য এবং সহযোগিতা প্রদান করা। ওয়ালেস বলেন “আমরা ট্রিনিটি বিহেভিয়ারাল হেলথ সেন্টারের সাথে একত্রিত হয়ে কাজ করছি, তারা আমাদের সাথে খুব কাছ থেকে কাজ করে আসছে এবং আমরা শেরিফের অফিস থেকে কর্মকর্তা এবং আটক আছে  এমন ৩৫ জনকে প্রশিক্ষন প্রদান করতে সক্ষম হয়েছি। অনেক সময় এই লোকগুলো আমাদের আটক কেন্দ্রেই শেষ হয়ে যায়”।
তথ্যসূত্র-
(http://www.wmbfnews.com/story/35679852/deputies-train-to-take-on-mental-health-cases)
কাজী কামরুন নাহার, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here