কিংবদন্তী নিউরোসার্জন অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরীর ইন্তেকাল

0
92
অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরী মৃত্যুবরণ

আর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নিউরোসার্জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এর নিউরোসার্জারী বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ও চিকিৎসা অঙ্গনের কিংবদন্তী অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরী মৃত্যুবরণ করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)

অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরী এর মৃত্যুতে মনের খবর মাসিক ম্যাগাজিন, অনলাইন ও টিভি এর সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় এর মনোরোগবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মনের খবর পরিবারের পক্ষ থেকে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও তার পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহমর্মিতা প্রকাশ করা হয়েছে।

অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরী ১৯৪১ সালের ১লা অক্টোবর চট্টগ্রাম মহানগরীর নবাব সিরাজদৌল্লা রোডস্থ পৈত্রিক বাড়ীতে জন্ম গ্রহণ করেন। চট্টগ্রাম শহরেই তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয়। ১৯৫৭ সালে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ম্যাট্রিকুলেশন, ১৯৫৯ সালে আই এস সি পাশ করার পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস এ ভর্তি হন। ১৯৬৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় সারাদেশের মধ্যে স্বর্ণপদকসহ প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করেন।

এরপর ১৯৬৫ সাল থেকে ১৯৬৮ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হাউস সার্জন, সিনিয়র হাউস সার্জন ও ইমারজেন্সী মেডিকেল অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৬৮ সালে চিকিৎসা বিজ্ঞানের উচ্চতর শিক্ষার জন্য ডা. কাদেরী বিলেত যান। সেখানে তিনি ১৯৬৮ সালে Diploma in Venereolog, ১৯৭১ সালে Neurosurgery তে সারা পৃথিবীর ছাত্রদের মধ্যে কৃতিত্বের সাথে FRCS এবং ১৯৭৭ সালে Microsurgery উপর ডিগ্রী নেন।

১৯৭৮ সালে অধ্যাপক ডাঃ এল.এ. কাদেরী তৎকালীন বাংলাদেশ সরকারের লিখিত অনুরোধে স্বদেশে ফিরে আসেন। ডা. এল.এ. কাদেরী তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নিউরোসার্জারী বিভাগ খোলার অনুরোধ জানান। সেই সময়েই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নিউরোসার্জারী বিভাগ খোলা হয়। অধ্যাপক কাদেরী শুরু থেকে অবসর গ্রহণের আগ পর্যন্ত এই বিভাগের প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন।

International Biographical Centre অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরীকে ২০০১ সালে আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বে সম্মানিত করেন এবং ঐ বছরই Dictionary of International Biography তে বিশ্বের খ্যাতনামা ব্যক্তিদের সাথে তাঁর জীবনি প্রকাশিত হয়।

চিকিৎসা অবদানের জন্য মাদার তেরেসা স্বর্ণপদক ও মানবাধিকার শান্তিপদক পেয়ে সম্মানিত হন। তিনি দেশে-বিদেশে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও জাতীয় সম্মেলনে যোগ দেন এবং গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ পেশ করেন।

অধ্যাপক ডা. এল.এ. কাদেরী বিভিন্ন সময়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ প্রাক্তন ছাত্র সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখার দুবার নির্বাচিত সভাপতি, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ শিক্ষক সমিতির সভাপতি, বাংলাদেশ সোসাইটি অব সার্জনস্ এর সভাপতি, বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি, বহুবার চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন।

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।
       
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here