মানসিক রোগ ‘ওসিডি’র গাইডলাইন প্রকাশ করলো বিএপি

মানসিক রোগ ‘ওসিডি’র গাইডলাইন প্রকাশ করলো বিএপি

প্রধান প্রধান মানসিক রোগসমূহের চিকিৎসা নির্দেশিকা প্রকাশের ধারাবাহিকতায় এবার অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার- ‘ওসিডি’ রোগের গাইডলাইন প্রকাশ করলো বাংলাদেশ অ্যাসেসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি)। এর আগে বাইপোলার ডিজঅর্ডার ও সিজোফ্রেনিয়া রোগের চিকিৎসা নির্দেশিকা প্রণয়ন করেছিলো বিএপি।

সোমবার রাজধানীর ‍কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে এ উপলক্ষে জমকালো প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গাইডলাইন প্রকাশে সৌজন্য সহায়তা করেছে জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

বিএপি প্রেসিডেন্ট ও এনআইএমএইচ এর সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. ওয়াজিউল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এনআইএমএইচ এর সাবেক পরিচালক ও বিএপির সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. আনোয়ারা বেগম।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ডা. আনোয়ারা বেগম বলেন, বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্যসেবায় বিএপি ভূমিকা অনন্য। ইতোমধ্যে প্রধান প্রধান দু’টি মানসিক রোগের চিকিৎসা নির্দেশিকা প্রকাশ করে এর আগেই বিএপি নিজেদের সক্ষমতা প্রমাণ করেছে। এবার ওসিডি গাইডলাইন প্রকাশের মাধ্যমে মানসিক স্বাস্থ্য সেবাকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। এই গাইডলাইন ওসিডি আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় নব দিগন্তের উন্মোচণ করবে।

এসময় তিনি আরো বলেন, গাইডলাইনটি হবে সাইকিয়াট্রি বা মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ও মানসিকরোগ প্রাক্টিসের জন্য একধরণের নিরাপত্তাবিধানকারী একটা দলীল। কারণ অনেক সময় মানসিক রোগ চিকিৎসা যারা করেন তারা বিভিন্ন রকম চাপের মধ্যে থাকেন।

চাকরী জীবনের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে একটি ঘটনা উল্লেখ্য করে বলেন, ইংল্যান্ডে দেখা গেছে রিস্কের কারণে অনেক চিকিৎসক মানসিক রোগের চিকিৎসা করতে আসেন না বা সাইক্রিয়াট্রিস্টস হতে চান না। সেই দিক থেকে বাংলাদেশে এই গাইডলাইনগুলো সাইকিয়াট্রিস্টসদের জন্য নিরাপত্তা হিসেবে ভুমিকা রাখবে। এই গাইডলাইন অনুসরণ করে সঠিক চিকিৎসা তারা দিতে পারবেন।

সভাপতির বক্তব্যে বিএপি প্রেসিডেন্ট ডা. মো. ওয়াজিউল আলম চৌধুরী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বিএপির সদস্যারা মানসিক স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে যেভাবে কাজ করছে তাতে তিনি খুশি এবং তারা অন্যদেরকেও খুশি করতে পারছেন। দেশের সাইকিয়াট্রিস্টসদের এক প্লাটফর্মে আনতে পারার তৃপ্তির কথাও তিনি উল্লেখ্য করেন।

বিএপি সাধারণ সম্পাদক ডা. মোহাম্মদ তরিকুল আলমের সঞ্চালনায় এমসয় অন্যান্যদের মধে আরো বক্তব্য রাখেন পাবনা মানসিক হাসপাতালের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মাহফুজুল হক, এনডিডিপি ট্রাস্টের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ডা. মো. গোলাম রব্বানী, বিএপি সিলেট শাখা সম্পাদক ডা. আর কে এস রয়েল, রংপুর শাখা সম্পাদক অধ্যাপক ডা. জোতির্ময় রায়, প্রফেসর ডা. মো. আবু তাহের প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন ওসিডি নির্দেশিকা ওয়ার্কিং কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. সুলতানা আলগীন এবং স্বাগত বক্তব্য রাখবেন, ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য সচিব ডা. মেখলা সরকার।

উল্লেখ্য, মানসিক স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে প্রধান পাঁচটি মানসিক রোগের চিকিৎসা নির্দেশিকা তৈরী করেছে বাংলাদেশ অ্যাসেসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি)। এর আগে বাইপোলার ডিজঅর্ডার ও সিজোফ্রেনিয়ার চিকিৎসা নির্দেশিকা প্রকাশ করা হয়। সর্বশেষ আজ ওসিডি ডিজঅর্ডার রোগের গাইডলাইন প্রকাশ করা হলো।

এছাড়া আগামী ৪ সেপ্টেম্বর ডিপ্রেশন ডিজঅর্ডার রোগের গাইডলাইন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএপি‘র সহ-সভাপতি ও মনের খবর সম্পাদক অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব।

/এসএস/মনেরখবর/

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here