করোনার কারণে সৃষ্ট আলসেমি এবং মানসিক চাপ

0
31

করোনায় বদলে গেছে মানুষের জীবন আচরণ। করোনা থেকে বাঁচতে মানুষ নিজেকে সাবধানে রাখতে চান। আর সেজন্য অনেকে ঘর থেকেই কাজ করতে চান, বাইরে বেরুতে চান না মোটেই। সারাদিনই হয়তো পার করেন ঘরে।

এমনকি বিনোদনের ধরণও বদলে গেছে মানুষের। এখন আর বাইরে বেরিয়ে সঙ্গীদের সঙ্গে হাঁটাহাঁটি, কিংবা কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাজি হোন না অনেকে। আর এই পরিবর্তন মানুষের জীবনাচরণে বাজে প্রভাব ফেলছে, যার প্রভাব পড়ছে শরীরে, মানসিক স্বাস্থ্যেও।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিদ্যা বিভাগ সম্প্রতি একটি গবেষণা চালিয়েছেন। যেখানে দেখা যায়, করোনার ফলে মানুষের ঘরে থাকতে চাওয়া বা কাজের ধরণ তাদের মনের উপর বিরাট প্রভাব ফেলেছে।

করোনার শুরু থেকেই আইওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিদ্যা বিভাগ এই সমীক্ষা শুরু করেছিল। তখন থেকেই করোনার কারণে মানুষের ঘরে বেশি সময় কাটানো শুরু হয়। অনেক অফিস, কর্মক্ষেত্রই অনলাইন নির্ভর হয়ে পড়ে। তেমনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোও পড়াশোনার পুরোটাই নিয়ে আসে অনলাইনে। ফলে বহু মানুষের বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় কমে যায়। বাড়তে থাকে বসে বসে সময় কাটানো। আর গবেষণায় দেখা যায়, এর ফলে মানুষের মন খারাপের মাত্রাও বাড়তে থাকে।

গবেষক দলের প্রধান জেকব মেয়ার বলেন, ‘সাধারণত বসে থাকার বিষয়টা নিয়ে আমরা অধিকাংশ সময়েই মাথা ঘামাই না। বসে আছি তো আছি। ভাবি, তাতে কীইবা আর আসে যায়। স্বাভাবিক দৃষ্টিতে দেখলে মনে হয়, এটা তো কোনো নেশা নয় যে, আমরা এটা নিয়ে সচেতন হবো। এভাবে বসে থাকাটা স্বাভাবিকই মনে হয়। কিন্তু এটাই মারাত্মক ক্ষতিকর।’

তাদের গবেষণায় দেখে গেছে, যাদেরই বসে থাকার সময় বেড়ে গেছে, তাদের প্রত্যেকের মধ্যে অবসাদের প্রবণতা বেড়েছে। শুধু তাই নয়, তাদের মধ্যে অনেকেই উদ্বেগ বা অ্যাংজাইটির সমস্যাতেও ভুগছেন।

আইওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে মনোরোগবিদ্যার বিভাগ সমীক্ষাটি চালানোর জন্য শুধু আমেরিকার ৩ হাজার মানুষকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া ইউরোপ, আফ্রিকা এবং এশিয়ার বেশ কয়েকজন মানুষের ওপরেও সমীক্ষা চালানো হয়।

গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, বাড়ি থেকে কাজের ফলে অনেকেরই অফিসে যাতায়াতের সময় বেঁচে যাচ্ছে। আগে এই সময়টা হাঁটাহাঁটি করে। রাস্তায় বেরিয়ে কেটে যেতে। এখন এই সময়টাই তারা কাটাচ্ছেন বসে। এর ফলে মানসিক স্বাস্থ্যের তীব্র অবনতি হচ্ছে।

ব্যায়াম বা যোগাসন মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়। যারা সেগুলো করেন না, তাদের সবার যে মানসিক স্বাস্থ্যের হাল খারাপ হয়, তাও নয়। কিন্তু শুধু বসে থাকার ফলেই যে মানসিক স্বাস্থ্যের অবস্থা খারাপ হচ্ছে, তা প্রমাণিত নতুন গবেষণায়।

কেবল সমস্যা খোঁজা নয়, এর সমাধানও দিয়েছেন গবেষকরা। দলের প্রধান জেকব মেয়ার সমাধানের পন্থা বাতলে দিয়ে বলেন, ‘বসে থাকায় যেহেতু মন খারাপের উদ্ভুত ঘটে। তাই অবশ্যই আমাদের বসে থাকা এড়িয়ে চলতে হবে। আমাদের দিনের নির্দিষ্ট সময়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে কিছুটা হাঁটাহাঁটি, অন্যদের সঙ্গে কথা বলার অভ্যাস তৈরি করতে হবে। শুধু তাই নয়, ব্যায়াম করতে হবে এবং নিজেকে কাজে ব্যস্ত রাখতে হবে।’

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

“মনের খবর” ম্যাগাজিন পেতে কল করুন ০১৮ ৬৫ ৪৬ ৬৫ ৯৪

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।
       
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here