মহামারীতে মানসিক শক্তি বাড়াবে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে পুনর্মিলন

0
45
মহামারীতে মানসিক শক্তি বাড়াবে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে পুনর্মিলন

মহামারীতে প্রত্যক্ষ ভাবে আমাদের আত্মীয় পরিজনদের সাথে দেখা না হলেও জুম কলের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে আমরা তাদের সাথে দেখা করতেই পারি।

আর এই পুনর্মিলন মহামারী কালীন সময়ে আমাদের মানসিক শক্তি বৃদ্ধিতে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে।

আমরা প্রায় দুই বছর ধরে করোনা মহামারীর সাথে লড়াই করছি। কিন্তু করোনা ভাইরাসের নতুন নতুন ভ্যারিয়ান্ট আমাদের সব প্রচেষ্টাকে বার বার ব্যর্থ প্রমাণ করছে। করোনা আমাদের জীবনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা ও লকডাউনের মত বিষয়গুলো আরও দীর্ঘায়িত করেছে।

আর এ কারণে ব্যক্তিগত, পারিবারিক, অর্থনৈতিক, সামাজিকসহ সব ক্ষেত্রে দুশ্চিন্তা ও উদ্বিগ্নতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনা মহামারীতে এত সব নেতিবাচক দিক থেকে কিভাবে নিজেদের মুক্ত রাখা যায় সে সম্পর্কে মনবিদগণ বেশ কিছু পরামর্শ প্রদান করেছেন।

এসব কিছুর মাঝে অন্যতম একটি উপায় হল সে সব বন্ধু, আত্মীয় স্বজন ও কাছের মানুষদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা, যাদের সাথে দীর্ঘদিন আমাদের দেখা হয়নি। তাদের সাথে ফোনে কথা বলা বা ভিডিও কলে দেখা করা আপনার মনকে নিঃসন্দেহে প্রফুল্ল করে দেবে এবং একই সাথে দুশ্চিন্তা ও উদ্বিগ্নতাও কমাবে।

মহামারীর সব থেকে নেতিবাচক প্রভাব বিস্তারকারী বিষয় গুলোর মধ্যে অন্যতম হল আমাদের দৈনন্দিন জীবনের পরিধি অনেকটাই সংক্ষিপ্ত হয়ে গেছে। অধিকাংশ মানুষই এটা বুঝতে পারেনা যে, দৈনন্দিন জীবনে পরিচিত বা অপরিচিত মানুষদের সাথে ভাব বিনিময়ই আমাদের মানসিক প্রশান্তির একটি বড় অংশ জুড়ে ছিল।

এই দেখা হওয়া, কথা হওয়ার মত বিষয়গুলোই আমাদের মানসিক চাপ মুক্ত থাকার একটি অন্যতম প্রধান হাতিয়ারও ছিল। কিন্তু করোনা আমাদেরকে খুব শক্তভাবে এই সামাজিক মেলামেশা থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। ফলে দিন দিন আমরা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ছি।

করোনা মোকাবেলা করতে গিয়ে নিজেদের সুরক্ষিত রাখার প্রয়াস করতে করতে যেমন হাঁপিয়ে উঠেছি, তেমনি নিজেদের মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখাও হয়ে উঠেছে অত্যন্ত দুষ্কর। একঘেয়ে জীবনে দুশ্চিন্তা, উদ্বিগ্নতা, একাকীত্ব, হতাশা, করোনা নিয়ে ভয় ভীতি বা ধৈর্য হীনতা, এই সব কিছুই এখন আমাদের নিত্য সঙ্গী। তাই যদি এই অচলাবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার পথ খুঁজতে হয় তাহলে বিকল্প পদ্ধতিতে হলেও আমাদের আবার সামাজিক জীবন যাপনে ফিরে যেতে হবে।

দীর্ঘদিন ধরে দূরে থাকা পরিবার, বন্ধু বান্ধব ও কাছের মানুষদের সাথে আবার স্বাভাবিক যোগাযোগ স্থাপন করতে হবে। দৈনন্দিন জীবনের সব কিছুতে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই এই মানসিক অবসন্নতা থেকে মুক্ত থাকার, লড়াই করার মনোবল লাভ করা সম্ভব হবে।

যেহেতু সামাজিক মেলামেশা এই করোনা কালীন সময়ে সম্ভব নয়, তাই পরিচিত সবার সাথে ভিডিও ও অডিও কলের মাধ্যমে যুক্ত হতে পারেন। তাছাড়া এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো অনেকভাবেই দূরে থেকেও একে অপরের সাথে যুক্ত থাকার বিভিন্ন উপায় সামনে নিয়ে এসেছে।

কথা বলা, দেখা করা ছাড়াও একে অপরের সাথে অনালাইনে গেম খেলা, খেলা দেখার সুযোগ ও সৃষ্টি করা হয়েছে। এসব উপায়ে সবার সাথে কানেক্টেড থাকুন। তাহলে করোনা মহামারী নিয়ে মানসিক উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা থেকে দূরে থাকা সম্ভব হবে এবং সবার সহযোগিতায় আবার নতুন করে বাঁচার অনুপ্রেরণা খুঁজে পাওয়া যাবে।

লিংক: https://www.psychologytoday.com/intl/blog/the-workplace-social-web/202107/the-power-reconnecting-old-friends-and-family

অনুবাদ করেছেন: প্রত্যাশা বিশ্বাস প্রজ্ঞা

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।
       
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here