মাদকাসক্ত ছোটো ভাইকে নিয়ে সমস্যায় পড়েছি

মাদকাসক্ত ছোটো ভাইকে নিয়ে সমস্যায় পড়েছি

দৃষ্টি আকর্ষণ : মনেরখবর.কম এর প্রশ্ন-উত্তর বিভাগে, মানসিক স্বাস্থ্য, যৌন স্বাস্থ্য, মাদকাসক্তি সহ মন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আপনার কোনো জানার থাকলে বা প্রশ্ন থাকলে বা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দরকার হলে question@www.monerkhabor.com এই ইমেলের মাধ্যমে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন অথবা monerkhabor@gmail.com ঠিকানাও পাঠাতে পারেন অথবা মনের খবরের ফেসবুক পেজে মেসেজ করুন। ছোটভাইয়ের সমস্যা নিয়ে আজকের প্রশ্ন পাঠিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বড়ো ভাই।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর পড়তে ভিজিট করুন প্রশ্নোত্তর মনের খবর

সমস্যা : আমার ছোটো ভাই তার বয়স ১৯ বছর, আমাদের ঢাকাতেই বেড়ে ওঠা। আমরা একটি সাধারণ, শিক্ষিত পরিবার, এবং আট দশটা বাঙালি মুসলিম পরিবারের মতোন। কিছু পারিবারিক সমস্যা আমরা দেখি ছোটোবেলা থেকে কিন্তু যা ছিল আত্মীয়দের ঘিরে। আমার বাবা-মা মাটির মানুষ এবং আমার আব্বু-আম্মুর মধ্যকার সম্পর্ক অনেক ভালো। ছোটোবেলা থেকে আমার ভাই অনেক বেশি ফড়সরহধঃরাব স্বভাবের এবং প্রচুর মারামারি করত সহপাঠীদের সাথে এবং আমার সাথেও। ও যখন ৯ম শ্রেণীতে পড়ে তখন থেকে শুনেছি ইয়াবা, সিগারেট এসব খাচ্ছে এবং বাজে ফ্রেন্ডসার্কেলে সাথে চলাফেরা তার। আমরা শাসন করি এবং নানান পদ্ধতি অবলম্বন করি। সব ঠিকঠাকই যাচ্ছিল। কিন্তু ২০২০ সাল থেকে আমার ভাই আমাদের পরিবারের সবাইকে ফিজিক্যালি আক্রমণ করা শুরু করে শুধুমাত্র তার কিছু কাল্পনিক চিন্তার ওপর ভিত্তি করে। তার চিন্তাগুলি এমন যে কেউ তার ক্ষতি করতে চাচ্ছে, কেউ তার পিছে পুলিশ লাগিয়েছে এবং নানান ধরনের আজব কথাবার্তা যা সম্পূর্ণ অর্থহীন এবং অযৌক্তিক। তার ধারণা আমরা এসবের সাথে জড়িত। এবং তাকে আমরা রিহ্যাবে দেই, সেখানে ৫ মাস রাখি। কিন্তু, তাতেও সে ঠিক হয়নি। পরিবারকে মারার সময় যদি বাইরের কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসে তাহলে তাকেও আক্রমণ করে। আমরা সাইকিয়াট্রিস্টস দেখাই কিন্তু সে ডাক্তার দেখাতে চায় না। আমরা খুব কৌশলে তাকে ট্রিটমেন্ট করাচ্ছি কিন্তু এভাবে প্রোপার ট্রিটমেন্টটা হচ্ছে না। সে খুব ভালো থাকে কিন্তু হঠাৎ করে তার কী জানি হয় এবং চরম রেগে যায় এবং আমাদের আক্রমণ করে। বর্তমানেও সে আমাদের আক্রমণ করে (মারধর) পুরোনো কথা তুলে এবং যেসব রিলেটিভস সাহায্য করেছে তাদের হেনস্তা করে। এক্ষেত্রে কী করা যায় এবং তাকে চিকিৎসা কিভাবে এবং কোথায় করানো যেতে পারে, বিশেষজ্ঞদের কাছে পরামর্শ চাচ্ছি।

-নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

পরামর্শ : আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার যে ভাই তার যে আচরণ সমস্যাগুলোর কথা বলেছেন। এগুলো কিন্তু কন্টাক ডিজঅর্ডার বা আচরণগত সমস্যা। কন্টাক ডিজঅর্ডার যাদের হয় পরবর্তিতে তারা মাদকাসক্ত বা অন্যান্য মানসিক রোগে আক্রান্ত হতে পারে। অর্থাৎ কন্টাক ডিজঅর্ডার থেকেই মাদকাসক্তি হতে পারে। তার যে ধারণা, সে মনে করে কেউ তার ক্ষতি করবে, পুলিশ আসবে ইত্যাদি; এগুলোকে আমরা ডিল্যুশন বলি। ভ্রান্ত বিশ্বাস বা ভ্রান্ত ধারণা। তার সাথে হয়ত অর্ডিটরি হ্যালোসিনেশন বা কানে আওয়াজ শোনার মতো, গায়েবি কথা শোনার মতো কিছুটা উপসর্গ থাকে। এজন্যই সে মনে করে তার পেছনে কেউ লেগেছে, পুলিশ আসছে। এগুলো হতে পারে মাদকের জন্য। গাঁজা এবং ইয়াবায় এমন কিছু উপাদান থাকে যার কারণে এসব সমস্যা হতে পারে। যাহোক, তার মাদকাসক্তি এবং তার ফলাফল হিসেবে এই রোগটা আাসছে। সুতরাং চিকিৎসা করতে হবে। চিকিৎসার জন্য আপনারা কী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন আমি ঠিক জানি না, তবে পাঁচমাস সময় যথেষ্ঠ ছিল। আমার মনে হয় তাকে এখন চিকিৎসকের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে চিকিৎসা দিতে হবে। এরজন্য কোনো একটা মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করতে হবে। সরাকারী পর্যায়ে তেজগাঁও মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করতে পারেন। এছড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় এবং জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউ হাসপাতালেও মাদকাসক্তির চিকিৎসা করানো হয়। আপনি যদি সেগুলোতে ভর্তি না করেন তাহলে কোনো একটা প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে দেখেশুনে ভর্তি করিয়ে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারেন। এক্ষেত্রে মনের রাখতে হবে অবশ্যই বিশেষজ্ঞের তত্ত¡বধানে রেখে চিকিৎসা করতে হবে। শুধু শুধু রিহ্যাবে রেখে দিলে কিন্তু কাজ হবে না। ড্রাগ থেকে বের হয়ে আসলেও কিন্তু তার সাইকোথেরাপি কাউন্সেলিং লাগবে। এরজন্য নিয়মিত ফলোআপ করা লাগবে। এবং এর পেছনে যদি শুধু মানসিক কোনো কারণ থাকে সেটাও কিন্তু বের করতে হবে। এটা কেবল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকই নির্ণয় করতে পারবেন। সুতরাং এই বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে। আর সে যে ব্যবহার করছে সেটা এসবের কারণেই করছে। এটা নিয়ে আলাদা করে বলার কিছু নেই। মনে রাখতে হবে মাদকাসক্ত রোগী কিছুদিন চিকিৎসায় ভালো হওয়ার পর পুনরায় আসক্তি হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। সেজন্য দীর্ঘদিন তাকে ফলোআপে রাখতে হবে। মনে রাখবেন, চিকিৎসার বিকল্প নেই। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ।

  • পরামর্শ দিয়েছেন,

বি. জে. (অব.) অধ্যাপক ডা. মো. আজিজুল ইসলাম
সভাপতি, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস
সিনিয়র কনসালটেন্ট, স্কয়ার হাসপাতাল ও
প্রিন্সিপালা, ইউএসবাংলা মেডিক্যাল কলেজ, ভূলতা, নারায়ণগঞ্জ।

সূত্র : ‘মনের খবর’ জানুয়ারি ২০২৩ সংখ্যা

  • মাসিক মনের খবর প্রিন্ট ম্যাগাজিন সংগ্রহ করতে চাইলে কল করুন : 01797296216 এই নাম্বারে। বার্ষিক গ্রাহক হতে চাইলে কল করুন 01865466594 এই নাম্বারে। অথবা মেসেজ করুন পেজের ইনবক্সে। লেখা পাঠাতে পারেন monerkhaboronline@gmail.com বা এই 01844618497 হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে।

/এসএস/মনেরখবর/

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here