যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনায় মানসিক স্বাস্থ্য আদালত প্রতিষ্ঠা

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনায় মানসিক স্বাস্থ্য আদালত প্রতিষ্ঠা

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের পিনাল কাউন্টিতে একটি বিশেষ আদালত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে যেখানে যারা মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে তাদের একটি বিকল্প পথ প্রদান করার মাধ্যমে সাহায্য করে এবং তাদের ফৌজদারি ন্যায়বিচার ব্যবস্থা থেকে রক্ষা করে। প্রিসাইডিং বিচারক স্টিফেন ম্যাককারভিলে গত মাসে মানসিক স্বাস্থ্য চিকিৎসা কোর্ট প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়ে একটি প্রশাসনিক আদেশ স্বাক্ষর করেন। এটি একটি চিকিৎসা জনিত ও দণ্ডপ্রাপ্ত অভিযুক্তদের জন্য পোষ্ট-কোর্ট আদালত।
মানসিক রোগে যেসব ব্যক্তিরা আক্রান্ত তাদের পিনাল কাউন্টি অ্যাটর্নি অফ অফিস বা কাউন্টি এর প্রবেশন বিভাগ দ্বারা আদালতে উপস্থিত করানো হয়। তারপর আদালতের কর্মীরা ব্যক্তির অবস্থা প্রোগ্রামের জন্য উপযুক্ত কিনা তা নির্ধারণ করার জন্য আক্রান্ত ব্যক্তির কেস পর্যালোচনা করে।
আদালতে পরীক্ষাধীন থাকা অবস্থায় রোগী অর্থাৎ অপরাধী ব্যক্তি সাপ্তাহিক ভাবে বাহিরের ডাক্তারের চিকিৎসা পেয়ে থাকেন। এই প্রক্রিয়াটি আদালতের আওতায় সংগঠিত হয়ে থাকে। যদি রোগী অর্থাৎ অপরাধী ব্যক্তি চিকিৎসার শর্তাবলী না অনুসরণ করে তাহলে তাকে প্রবেশন বাতিল করার মত বিষয় হিসেবে ধরা হয়ে থাকে।
পিনাল কাউন্টি সুপেরিয়র কোর্ট এর প্রশাসক টড যুইগ বলেন যে তাদের লক্ষ্য হচ্ছে যারা মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে তাদের ফৌজদারি বিচার ব্যবস্থা থেকে রক্ষা করা। মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার সঙ্গে জড়িতদের সংখ্যা বেড়েই চলছে তা পরিসংখ্যানের মাধ্যমে উঠে এসেছে, তিনি আরও বলেন, এই ধরনের সেবা এজন্য আরও বেশি প্রয়োজন।
আদালত বিদ্যমান সম্পদ পুনঃনির্ধারণ করার পরিকল্পনা করছে যাতে মানসিক স্বাস্থ্য আদালত চালানোর জন্য অতিরিক্ত খরচ তৈরি না হয়। অ্যারিজোনা সুপ্রিম কোর্টের তথ্য অনুযায়ী মানসিক স্বাস্থ্য আদালত প্রতিষ্ঠা জনসাধারণের নিরাপত্তা বৃদ্ধি করে, মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা সম্পর্কিত প্রোগ্রামে মানুষের এক্সেস বাড়ায়।
তথ্যসূত্র-
(http://www.mohavedailynews.com/news/mental-health-court-established-in-pinal-county/article_6d33c462-7b4c-11e7-bf79-7f4847bb16dd.html)
কাজী কামরুন নাহার, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here