মেসির ব্যালন ডি অর বিতর্ক এবার তুঙ্গে

0
8
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

ফুটবল ইতিহাসের ব্যক্তিগত অর্জনের সবচেয়ে সম্মানীয় পুরুষ্কার ব্যালন ডি অর। এই বছরে অধরাকে জয় করে নিয়েছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। মেসিভক্তরা খুশি হলেও, নেটিজেন ও ফুটবল বিশ্লেষকরা খুব স্বাভাবিকভাবে নিচ্ছে না ব্যাপারটাকে।

লিওনেল মেসির সপ্তম ব্যালন ডি’অর পুরস্কার জেতা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ২০২০ ও ২১ সাল বিবেচনা করলে মেসি নয় বরং লেভানডোভস্কির জেতা উচিত ছিল এই পুরস্কার, এমনটাই বলছেন য়্যুর্গেন ক্লপ, লোথার ম্যাথাউসসহ কয়েকজন ফুটবল বিশ্লেষকরা।

মেসির চিরপ্রতিদ্বন্ধী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোও মেসির ব্যালন ডি অর নিয়ে বৈধতা নিয়ে এক ভক্তের পোষ্ট শেয়ার করেছেন। যেখানে লিখেছে, যা সত্য, তাই হয়েছে। ইটজ ফ্যাক্ট।

স্পেন ও রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক অধিনায়ক ইকার ক্যাসিয়াস বলেছেন, এই পুরস্কারের প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলেছি।

৩৩ ভোটে রবার্ট লেভানডভস্কিকে হারিয়ে ক্যারিয়ারের সপ্তম ব্যালড ডি’অর জিতে রেকর্ড সংখ্যক ব্যালন ডি অরের মালিক লিওনেল মেসি। কিন্তু আগের ছয়টি পুরস্কার জেতার পর যে অভিজ্ঞতা হয়নি এবার তা সঙ্গী হয়েছে আর্জেন্টাইন অধিনায়কের। আর তা হলো বিতর্ক। যোগ্য খেলোয়াড়ের হাতে এই পুরস্কার ওঠেনি বলে দাবি করছেন অনেক বিশেষজ্ঞ।

লিভারপুলের কোচ য়্যুর্গেন ক্লপ বলেন, আমি সত্যি নিশ্চিত নই এটি সঠিক ব্যক্তির হাতে উঠেছে কি না। অনবদ্য প্রতিভার জন্য আপনি আজন্ম এই পুরস্কার মেসিকে দিয়ে দিতে পারেন। কিন্তু এবার এটা রবার্ট লেভানডভস্কির প্রাপ্য ছিল।

জার্মানির সাবেক অধিনায়ক লোথার ম্যাথাউস বলেন, মেসি ও অন্য খেলোয়াড়ের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, লেভানডভস্কির চেয়ে বড় দাবিদার আর কেউই নয়। ২০২০ সালে লেভানডভস্কি ব্যালন ডি’অর জয়ে ছিল অপ্রতিদ্বন্দ্বী। শুধু ২০২১ সালকেও যদি বিবেচনায় নেয়া হয়, তাহলেও বাকিদের চেয়ে এগিয়ে সে। সে গার্ড মুলারের রেকর্ড ভেঙেছে। সব ধরনের প্রতিযোগিতারই সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় আছে সে। জাতীয় আর আন্তর্জাতিকভাবে বাকি সবাইকে সে পেছনে ফেলেছে।

এই দুই জার্মানের কথার পেছনে আছে লেভারডভস্কির অনবদ্য দুই মৌসুম। ২০২০ সালটা রেকর্ড বই নতুন করে লিখেছেন লেভানডভস্কি। বায়ার্নের চ্যাম্পিয়নস লিগ, জার্মান কাপ ও জার্মান সুপার কাপ জেতানোর মূল কারিগর ছিলেন তিনি। বুন্দেসলিগা জয়ের পথে গড়েছেন অনন্য গোলের রেকর্ড। ৪১ গোল করে গার্ড মুলারকে পেছনে ফেলে ভেঙেছেন বুন্দেসলিগায় এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড। এ মৌসুমেও পোলিশ এই স্ট্রাইকার আছেন দারুণ ছন্দে। এখন পর্যন্ত বায়ার্নের হয়ে ২০ ম্যাচ খেলে করেছেন ২৫ গোল।

তবে মেসি প্রেমীরা বলছেন, ক্লাবের হয়ে ব্যর্থ হলেও কোপা আমেরিকার ট্রফি জয় আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে করেছে সেরাদের সেরা; কিন্তু তাতেও আপত্তি আছে। সেই বিবেচনায় জর্জিনিয়োকে এগিয়ে রাখছেন লিভারপুলের সাবেক স্কটিশ খেলোয়াড় স্টিভ নিকোল।

স্টিভ নিকোল বলেন, এটা সত্যি বোকামির পরিচয় দিয়েছে। কোনোভাবেই মেসি এবার এই পুরস্কারের যোগ্য নয়। আপনি যদি ট্রফি হিসেবে করেন, তাহলে মেসির এক কোপা আমেরিকা ট্রফির বিপরীতে ইউরো ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে জর্জিনিয়ো। সেই বিবেচনায় পুরস্কার তার পাওয়া উচিত, মেসির নয়।

সমালোচকদের কাতারে নাম তুলেছেন স্পেন ও রিয়াল মাদ্রিদেরে লেজেন্ডারি গোলরক্ষক ইকার ক্যাসিয়াস। এবারের পুরস্কার দেখে ব্যালন ডি’অরের প্রতি নাকি আস্থা হারিয়ে ফেলছেন তিনি।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

“মনের খবর” ম্যাগাজিন পেতে কল করুন ০১৮ ৬৫ ৪৬ ৬৫ ৯৪

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here