মানসিক স্বাস্থ্যে সচেতনতা বৃদ্ধিতে ভিডিও প্রতিযোগিতা

মানসিক স্বাস্থ্যে সচেতনতা বৃদ্ধিতে ভিডিও প্রতিযোগিতা

আয়ারল্যান্ডের বেলফেস্টে ‘দ্যা ইয়াং মেন্টাল হেলথ ল্যাব’ বর্তমানে তরুণ তরুণীদের মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা তৈরী করতে ক্যাম্পাস ব্যাপী ভিডিও প্রতিযোগিতার আয়োজন করছে। যেখানে তরুণ তরুণীদের যারা ঐ কলেজের ছাত্র ছাত্রী তাদের প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে তাদেরকে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে ভিডিও বানাতে হবে। এই প্রতিযোগিতা টির নাম “ওয়াইএমএইচ ম্যাটারস ইউসিডি”। এই প্রতিযোগিতার আকর্ষণ হচ্ছে এখানে তরুণদের সৃজনশীলতা ও উদ্দীপনাকে উন্নীত ও উৎসাহিত করার জন্য এবং তাদের ৭০০ ইউরো পুরষ্কার দেয়া হবে। এই পুরষ্কার দেয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে তারা একটি খুবই গুরত্বপুর্ণ বিষয় নিয়ে কাজ করবে। তাদের কাজের মাধ্যমে তরুণ তরুণীদের মধ্যে সচেতনতা তৈরী হবে। এই ভিডিও প্রতিযিগিতার নির্দিষ্ট সময়সীমা ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।
‘ওয়াইএইচএম ল্যাব’ ২০১৩ সালে ৩ জন ‘ইউসিডি (ইউনিভার্সিটি কলেজ ডাবলিন)’ তে অধ্যয়নরত ছাত্র ছাত্রী নিয়ে গঠন করা হয়। এই ল্যাব গঠনের মূল উদ্দ্যেশ্য হল তরুণ সমাজের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে গবেষণার কাজকে উৎসাহিত করা এবং গবেষণার ফলাফল গুলোকে এমনভাবে উপস্থাপন করা যেন এতে তরুণ সমাজের জীবনে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।
এই ল্যাবটি কিছু সংখ্যক গবেষক নিয়ে গঠিত যারা তরুন সমাজের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করে। তারা চেষ্টা করে সমাজের বিভিন্ন বিষয় পরিবর্তনের প্রভাব ব্যবহার করে তরুণ সমাজের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে গবেষণা করতে। বিশেষভাবে যেসব এলাকা তরুণ মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার জন্য ঝুকিপুর্ণ সেসব এলাকায় টেকনোলজির ব্যবহারের মাধ্যমে ইতিবাচক প্রভাব গুলোকে সামনে আনা এবং উৎসাহিত করা। মানুষকে স্কুল এবং ইউসিডি ল্যাব এর সাথে যুক্ত করে তরুণ সমাজের মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাপারে সচেতনতা বাড়ানো তাদের লক্ষ্য।
স্কুলগুলো ল্যাব গবেষণায় অংশ নেয় এবং ফলাফলগুলো বছরে ২ বার প্রকাশ করা হয়ে থাকে এবং জার্নালে ফলাফলগুলো প্রকাশ করা থাকে। সাম্প্রতিক কালে ল্যাব গবেষণার সদস্যগণ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন। সেখানে লেইনস্টার এর তরুণদের কিছু বয়ঃসন্ধিকালে সামাজিক উদ্বেগ সম্পর্কিত বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় যার নাম ‘অ্যাটেনশনাল  বায়াস মডিফিকেশন’। কিন্তু এই প্রশিক্ষণের ফলাফল সামাজিক উদ্বেগ সম্পর্কিত অনুভূতির উন্নতিতে অকার্যকর ছিল। এই গবেষণার ফলাফল ভবিষ্যতে সামাজিক উদ্বেগ বিষয়ক ব্যাপার গুলোতে তরুণদের চিকিৎসা সম্পর্কে অবহিত করার জন্য ব্যবহার করা হবে।
ল্যাবটি বর্তমানে উপস্থিতি, দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থতা এবং বিভিন্ন বিষয়ের কলঙ্ক এবং উদ্বিগ্নতার নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে গবেষণা করছে। এই সবকিছুর একটাই লক্ষ্য তরুন দের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।
ল্যাবের দুই প্রতিষ্ঠাতা ডঃ বারবারা ডলি এবং ডঃ এলিস হেনেসি ‘ইউসিডি ল্যাব’ এর বিভিন্ন চুক্তিপত্রের কমিটিতে বসেন, যেখানে যেসব ছাত্র ছাত্রীরা মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সমস্যায় ভুগছে তাদে সাহায্য করা হয়ে থাকে। এখানে অনলাইনে যোগাযোগ করা সম্ভব যাদের জরুরি ভিত্তিতে সাহায্য দরকার তারা অনলাইনে যোগাযোগ করতে পারে। অনলাইন ঠিকানা হল www.mentalhealth.ucd.ie
ল্যাবটি একটি ইমেইল ঠিকানা যোগ করেছে যার মাধ্যমে যেসব তরুণরা প্রতিযোগিতাটি সম্পর্কে সব ধরণের তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে এবং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। ইমেইল ঠিকনাটি হল ymhlabucd@ucd.ie এবং টুইটার ঠিকানা @YMHlabUCD
তথ্যসূত্র-
(http://www.universityobserver.ie/news/ucds-youth-mental-health-lab-launches-video-competition/)

রুবাইয়াত মুরসালিন, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here