বিয়ের আগেই কাউন্সেলিং

বিয়ের আগেই কাউন্সেলিং
বিয়ের আগেই কাউন্সেলিং
বিয়ের মৌসুমে বর-কনের নানা ধরনের প্রস্তুতির কথা বলা হয়ে থাকে। যার প্রায় পুরোটা জুড়েই থাকে, বিয়ের দিনের সাজ-পোশাক। কিন্তু বিয়ের পরে সংসারজীবনের নানা বিষয়ের সঙ্গে মানিয়ে নিতে প্রয়োজন মানসিক প্রস্তুতিও।
আর তার জন্য বিশেষজ্ঞেরা পরামর্শ দেন কাউন্সেলিং করানোর। আজকাল বিভিন্ন দেশে প্রি-ম্যারিটাল কাউন্সেলিং বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।
জেনে নিন কেন বিয়ের আগে প্রি-ম্যারিটাল কাউন্সেলিং করিয়ে নেওয়া দরকার: 
বিয়ের মাধ্যমে জীবনে অনেক ধরনের পরিবর্তন আসে। যার অন্যতম হচ্ছে যা ইচ্ছা তাই করা যায় না। অনেক বিষয়ে চিন্তা করে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হয়। সব কিছুতেই আরেক জনের সঙ্গে শেয়ার করাও অনেকের জন্য কঠিন হয়ে যায়। এসময় ধৈর্য না থাকলে এই পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া কঠিন। প্রি-ম্যারিটাল কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে আপনারা একে অপরের অভ্যাস, স্বভাবগুলোর সঙ্গে আরও নিবিড়ভাবে পরিচিত হয়ে ওঠেন, ফলে মানিয়ে নেওয়া সহজ হয়।
এতদিন আপনি যা বলেছেন, পরিবারের সবাই মিলে সেটাকেই প্রাধান্য দিয়েছে। কিন্তু বিয়ের পর সঙ্গীর কথা শুনতে হবে, তার পরিবারের সবার কথাও মনোযোগ দিয়ে শোনার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। কাউন্সেলিং সেশন করলেই বুঝতে পারবেন কাজটি মোটেও কঠিন নয়।
সম্পর্কের মধ্যে নানা জটিলতা আসতে পারে। বিয়ের আগে কাউন্সেলিং করালে এই জটিলতাগুলো আগে থাকতে বোঝা যায়। সমস্যার সমাধান করাও সহজ হয়।
নিজেদের পছন্দের বিয়ে হলেও, বিয়ের পরে সব সময় এক ছাদের নিচে থাকতে শুরু না করা পর্যন্ত পরস্পরকে পুরোপুরি জেনেবুঝে ওঠা সম্ভব নয়।
এছাড়া সংসার কীভাবে চলবে, কে কোন দায়িত্ব পালন করবেন, এই বিষয়গুলো সম্পর্কের ধারণা পাওয়া যায় কাউন্সেলিং থেকে।
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here