আমি সব কিছু অপেক্ষাকৃত দ্রুত ভুলে যাচ্ছি

আমি সব কিছু অপেক্ষাকৃত দ্রুত ভুলে যাচ্ছি

সমস্যা:
আসসালামু আলাইকুম। 
আমি সহেল, আমার বয়স ২১ বছর, ডিগ্রি ১ম বর্ষে পড়াশোনা করি, পাশাপাশি একটা দোকানে কম্পিউটারের কাজে সময় দিই। আমি সব কিছু অপেক্ষাকৃত দ্রুত ভুলে যাচ্ছি। খুব পরিচিতদের নামও কয়েকদিন দেখা না হলেই ভুলে যাচ্ছি, পরিচিত কাউকে দেখলে হঠাৎ করে মনে পড়ে না, জানাশোনা কারো নাম নিয়েও কনফিউশনে ভুগি (যেমন হৃদয় নাকি রিয়াদ)। ভাল করে পরিচিত হওয়ার ১ সপ্তাহ পর যদি অন্য কোথাও দেখি কনফিউশনে পড়ে যাই (চেহারা কিছুটা মনে পড়ে কিন্তু কোথায় দেখেছি, জুনিয়র নাকি সিনিয়র মনে করতে পারিনা)। একসাথে চার পাঁচজনের সাথে পরিচিত হলে কারো নামই মনে থাকে না। বারবার পরিচিত হয়েও ১৫-২০ দিন পরে আবার ভুলে যাই। একটু দুর থেকে কাউকে দেখলে সে যত দ্রুত আমাকে চিনতে পারে আমি তত দ্রুত চিনতে পারিনা। আমার মনোযোগে সমস্যা হচ্ছে, এক বিষয়ে বেশিক্ষণ মনোযোগ থাকে না। সমস্যাটি কয়েকমাস আগে থেকে শুরু হলেও আগে একটু একটু ছিলো। সমস্যাটি এক দেড় বছর ধরে হচ্ছে। আগে স্বাভাবিক মনে হত কিন্তু ইদানিং খুব প্রকট আকারে বেড়েছে। পড়ালেখার ব্যাপারেও একই সমস্যা। মাথায় কোনো আঘাত লাগেনি, কোনো স্ট্রেসও অনুভুত হয় না, কিন্তু মাথাব্যথা আমার ছোটবেলা থেকে হতো। মাথাব্যথার অনেক ঔষুধ খেলাম, পরে চোখের ডাক্তার দেখালাম, মাথাব্যাথা আস্তে আস্তে বাড়তে শুরু করে, সমস্যাটিও আরও বাড়ে এ নিয়ে আমি খুবই চিন্তিত। পরে আমি একে একে কয়েকবার অসুস্থ্য হয়ে পড়ি। বড় ডাক্তারের সাথে পরামর্শ নেই। তিনি আমার কিডনি, রক্ত, প্রশ্রাস ইত্যাদি পরীক্ষা করে দেখেন কোন সমস্যা নাই। কিন্তু আমার সমস্যা দূর হয়নি।  খুব সমস্যায় ভুগছি সমাধান জানাবেন আর ডাক্তার দেখাতে হলে কোন ধরনের চিকিৎসা নেব? সাইকোথেরাপি, সাইকিয়াট্রি নাকি নিউরোলোজি? জানাবেন প্লিজ।
পরামর্শ:
সহেল তোমার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। তোমার সমস্যা হল সবকিছু অপেক্ষাকৃত  দ্রুত ভুলে যাচ্ছ পরিচিত মানুষজনের নাম, জায়গার নাম, বন্ধুবান্ধবের নাম। তোমার বয়স মাত্র ২১ বছর এত অল্প বয়স আসলে ভুলে যাওয়ার বয়স না। মানুষ সাধারণত যে ভুলে যায় সেটা বয়সের কারনে হয় এবং সেটা ৬০/৬৫ বছরের পর হয়ে থাকে। তখন মানুষের ব্রেনের নিউরনগুলো আস্তে আস্তে নিস্তেজ হয়ে পড়ে এবং মানুষ অনেক কিছু ভুলে যেতে থাকে।কিন্তু তুমি যে এ বয়সে ভুলে যাচ্ছ  এর পিছনে কোন মানসিক চাপ, টেনশন বা ডিপ্রেশন থাকতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় মানুষ যদি কোন কারনে অতিরিক্ত মানসিক চাপ, টেনশন বা দুশ্চিন্তা অথবা ডিপ্রেশনে ভুগে তখন কোন কিছুতে ঠিকমত মনোযোগ দিতে পারে না অর্থাৎ মনোযোগে ঘাটতি দেখা দেয়। তোমার মধ্যে কোন ধরনের মানসিক চাপ আছে কিনা বা তুমি কোন মানসিক সমস্যায় ভুগছ কিনা সেটা উল্লেখ করনি। আর তাছাড়া তোমার ব্যক্তিত্ব কেমন, পারিবারিক ইতিহাস, পারিপার্শ্বিক অবস্থা, পরিবারে কারো কোন মানসিক রোগ আছে কিনা ইত্যাদি বিষয়েও তথ্য জানার প্রয়োজন ছিল।কারন, তুমি যে তথ্যগুলো  দিয়েছ শুধুমাত্র সেগুলোর উপর ভিত্তি করে কোন রোগ বা সমস্যা সম্পর্কে ধারণা করাটা মুশকিল।

অতএব, তোমার প্রতি পরামর্শ রইল তুমি অধৈর্য না হয়ে নিকটস্থ কোন সাইকিয়াট্রিস্ট  বা নিউরোলজিস্ট এর সাথে যোগাযোগ কর। উনারা তোমার প্রয়োজনীয় সব তথ্য জেনে সিদ্ধান্ত দিতে পারবেন।আশা করি, এতে তুমি উপকৃত হবে।
পরামর্শ দিচ্ছেন,
প্রফেসর ডা. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান
দ্রষ্টব্য- একই ধরণের সমস্যা নিয়ে পাঠকের আরেকটি প্রশ্নোত্তর কিছুদিন আগে মনেরখবরে প্রকাশিত হয়েছিলো
(https://www.monerkhabor.com/question-answers/2016/08/14/7098)


দৃষ্টি আকর্ষণ- মনেরখবর.কম এর প্রশ্ন-উত্তর বিভাগে, মানসিক স্বাস্থ্য, যৌন স্বাস্থ্য, মাদকাসক্তি সহ মন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আপনার কোনো জানার থাকলে বা প্রশ্ন থাকলে বা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দরকার হলে question@www.monerkhabor.com এই ইমেলের মাধ্যমে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here