আমার ২ বছর আগে ব্রেকাপ হয়

0
103
আমার ২ বছর আগে ব্রেকাপ হয়
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

সমস্যা: আমার বয়স ২৩ বছর, উঁচ্চতা ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি, ওজন ৬৭ কেজি। আমি একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র। আমি ইদানীং একটা সমস্যায় পড়েছি। সেটা আপনাদের সাথে শেয়ার করে এখন আমার কী করা উচিত সেই বিষয়ে আপনারা আপনাদের কোনো বিশেষজ্ঞদের পক্ষ থেকে সাজেশন দিবেন বলে আশা পোষণ করছি।

আমি কলেজে থাকাকালীন সময়ে আমার একজন ক্লাসমেটের সাথে রিলেশন হয়। সেটা আমরা প্রায় ৫ বছর কন্টিনিউ করার পর গত ২ বছর আগে আমাদের ব্রেকাপ হয়। আমি তখন অনেক কষ্টে সময় কাটিয়ে মোটামুটি নিজেকে কন্ট্রোল করতে সক্ষম হই।

যা হোক আমি এবার করোনার সময় থেকে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা জুনিয়র মেয়ের সাথে অনলাইনে কথা বলা শুরু করি বোন হিসেবে। মেয়েটা অবশ্য হিন্দু ধর্মাবলম্বী আর আমি মুসলিম। ইদানীং তার সাথে দেখা সাক্ষাৎ শুরু হয়েছে এবং কথাবার্তাও হচ্ছে আগের চেয়ে বেশি।

মেয়েটাকে অবশ্য আমি বোন বলেই ট্রিট করছি এবং সেও আমাকে ভাই হিসেবেই ট্রিট করে (উল্লেখ্য যে আমার কোনো বোন নেই এবং তারও কোনো ভাই নেই)। তার খুশিতে আমার অনেক খুশি লাগে আবার সে কষ্ট পেলে আমারও অনেক খারাপ লাগে এবং কীভাবে তার কষ্টটা দূর করা যায় সে চেষ্টা করতে থাকি।

কিন্তু ইদানীং আমি তার সাথে দেখা সাক্ষাৎ করতে গেলে নিজের মধ্যে এক ধরনের উত্তেজনা অনুভব করি এবং আমার লিঙ্গ শক্ত হয়ে যার এবং কিছুটা কামরস বেরও হয় বলে আমার মনে হয়। এমনকি এখন তার সাথে মেসেজিং করলেও আমার কিছুটা কামরস বের হয় (পুরো বিষয়টার জন্য আমি অত্যন্ত অনুতপ্তও বোধ করি)।

আমি চাচ্ছি মেয়েটাকে আমার বোন হিসেবেই রাখতে কিš‘ মানসিক এবং শারীরিক এই বিষয়টা আমি কিছুতেই কন্ট্রোল করতে পারছি না। এক্ষেত্রে আমি আসলে কী করতে পারি? বিষয়টা নিয়ে আসলেই আমি খুবই বিব্রতকর পরিস্থিতিতে আছি। আশা করি বিষয়টার একটি দ্রুত ও যথোপযুক্ত সাজেশন দিবেন।- নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

সমাধান: তোমার সমস্যার বিবরণী পাঠ করলাম। তুমি উদ্বিগ্ন থাকছ, বিব্রত হয়েছ এজন্য দুঃখিত। যে বিষয়ে কথা বলেছ, তা বয়ঃসন্ধিকালের একটি স্বাভাবিক সমস্যা। সম্পর্ক নির্মাণ, বন্ধুত্ব এবং সম্পর্কের অবসান যদি বা নির্মোহভাবে বলি, একটি স্বাভাবিক ঘটনা।

যে কারণে পূর্বের সম্পর্ক ধ্বংস হয়, সেই কারণগুলো পরিপূর্ণ বিচার বিশ্লেষণ করে, তা থেকে যদি কোনো বিচক্ষণতার বোধ না জন্মায়, তবে নতুন সম্পর্ক নির্মাণের ক্ষেত্রে আবার পূর্বের সমস্যার অংশবিশেষ দেখা দিতে পারে কখনো।

পাশাপাশি, বর্তমানে উদ্ভূত সমস্যার ক্ষেত্রে ধর্ম, আমাদের সামাজিক প্রচলন রীতিনীতির নিরিখে একটি বাধা বটে। বলা যায় শরীরের যেকোনো অনুভূতির মতো যৌনবোধ জীব জগতের একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য।

কিন্তু এখন অবধি সামাজিক-নৈতিক বিবিধ মিথস্ক্রিয়ায় আমরা প্রকাশ্যে যৌনতাড়না-যৌন ইচ্ছে নিয়ে সহসা কথা বলতে পারি না। অথবা বলার অবকাশ কম কিš‘ মনের অবচেতনে তা সদা সক্রিয় থাকে। এরকম একটি বাস্তবতা, তুমি এই মূহুর্তে অতিক্রম করছ।

বোন এবং বোনের মতো এই কথাটি-ই বিপুল দ্বন্দ্বের অবতারণা  করেছে ইতিমধ্যে। তার সঙ্গে বাক্যবিনিময় বা তোমার ভাষায় মেসেজিংএ কোন প্রকার বক্তব্য প্রতিফলিত হচ্ছে তা জানার উপায় নেই। কাজেই তুমি এখানেও দ্বৈত ভূমিকায় অবতীর্ন হয়েছ কিনা তা নতুন ভাবে মূল্যায়ন করা দরকার।

মোটা দাগে সম্পর্কের টানাপোড়ন এড়াতে কখনও নির্দয় হস্তেই নিজেকে দমন করতে হয় শেষ পর্যন্ত। খুব ভালো হয় তুমি নিকটস্থ মেডিক্যাল কলেজের মনোরোগ বিভাগে শীঘ্র যোগাযোগ কর। প্রয়োজনীয় কাউন্সেলিং এবং সাইকোথেরাপি তোমার দৃষ্টিভঙ্গিতে নিশ্চয়ই একটি গুণগত পরিবর্তন আনবে। ফলে সিদ্ধান্ত নেয়া অনেক সহজ হবে। তোমার জন্য শুভ কামনা।

পরামর্শ দিয়েছেন: অধ্যাপক ডা. মামুন হুসাইন

more

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here