শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর ৫১ শতাংশ হতাশায় ভুগছে

শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর ৫১ শতাংশ হতাশায় ভুগছে

সহিংসতা একটি আপেক্ষিক আচরণ যা কখনও আবেগ আবার কখনও পরিকল্পনা দ্বারা প্রভাবিত হয়ে সংগঠিত হয়ে থাকে। বিভিন্ন তত্ত্ব মতে সহিংস আচরণের পেছনে আবেগ ও চিন্তা মোকাবেলা করতে না পারার একটা বড় ভূমিকা রয়েছে। কাজেই যারা বিভিন্ন ধরনের আবেগজনিত সমস্যায় ভুগে তারা সহিংস আচরণের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগে সম্প্রতি শেষ হওয়া এক গবেষণায় দেখা যায় বাংলাদেশে শিক্ষিত ও সাধারণ জনগোষ্ঠীর মধ্যেও ৫১ শতাংশ মানুষ স্বল্প থেকে তীব্র মাত্রায় হতাশায় ভুগছে।
আজ ২৮ অক্টোবর (শুক্রবার) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী সিনেট ভবনে বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটি; ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট এবং বাংলাদেশ মনোবিজ্ঞান সমিতির যৌথ উদ্যোগে “আগ্রাসন ও সহিংসতার মনস্তত্ত্ব” শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপাচার্য অধ্যাপক ডঃ আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সভাপতিত্বে উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরাকারের মাননীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী জনাম মোহাম্মদ নাসিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব নাসিমা বেগম, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস এর সভাপতি ও নিউরো-ডেভেলপমেন্ট ডিজএবিলিটি প্রটেকশন ট্রাস্টের চেয়ারপারসন প্রফেসর ডাঃ মোঃ গোলাম রাব্বানী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাম মোঃ নাসিম বলেন, “আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসন এদেশের মানুষের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।” তিনি আরো বলেন, “সন্তানের সুষ্ঠভাবে বেড়ে উঠার প্রধান দায়িত্ত্ব বাবা-মায়ের। সন্তানের সাথে মা-বাবার সম্পর্কের উন্নয়ন সন্তানকে একজন সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সহায়ক হবে।” এছাড়া তিনি মাদক ও ধুমপানকে আগ্রাসন ও সহিংস আচরণের অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন।
এছাড়াও সেমিনারটিতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ডঃ মুহাম্মদ কামরুজ্জামান মজুমদার এবং মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ডঃ মুহাম্মদ মাহমুদুর রহমান।
মধ্যাহ্ন বিরতির পর “বাংলাদেশে প্রাথমিক মানসিক স্বাস্থ্য সেবা- প্রয়োজনীয়তা ও প্রতিবন্ধকতা” শীর্ষক আরেকটি বিশেষ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডঃ মোঃ আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব জনাম মোঃ সিরাজুল ইসলাম। এছাড়া সেমিনারটিতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মনোবিজ্ঞান বিভাগের সম্মানিত চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডঃ নাসরীন ওয়াদুদ এবং মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট রুমা খন্দকার।
প্রতিবেদক, মনেরখবর.কম


লক্ষ্য করুন- মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক খবর বা প্রেস রিলিজও আমাদের পাঠাতে পারেন। বৈজ্ঞানিক সেমিনার, বিশেষ ওয়ার্কশপ, সাংগঠনিক কার্যক্রমসহ মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোনো খবর পাঠাতে news@www.monerkhabor.com এই ইমেইলটি ব্যবহার করতে পারেন আপনারা।

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here