অপরিচিত মানুষের কাছে সব কথাই বানিয়ে বলে

0
72
আবদার করে না পাওয়া পর্যন্ত সে শান্ত হয় না

সমস্যাঃ আমার মেয়ের বয়স ২১ বছর। ছোটোবেলায় ও মাঝে মাঝে মিথ্যা কথা বলত। আমরা ওকে বোঝাতাম। পরবর্তীতে ওর মিথ্যা কথা বলার পরিমাণ বাড়তে থাকে। ভেবেছি বড়ো হয়ে গেলে ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু এখনও পরিচিত মানুষের কাছে সত্যি কথা বললেও, অপরিচিত মানুষের কাছে সব কথাই বানিয়ে বলে। বুঝিয়ে বললেও বা রাগারাগি করলেও কোনো লাভ হচ্ছে না। এমতাবস্থায় আমাদের কী করা উচিত কিছুই বুঝতে পারছি না। পরামর্শ দিলে খুবই উপকৃত হব।

-নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

প্রামর্শঃ

প্রশ্ন করার জন্যে আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার প্রশ্ন থেকে এটা বোঝা যাচ্ছে যে, আপনার মেয়ে ছোটোবেলা থেকেই মিথ্যা বলা শিখেছে এবং তা অভ্যাসে পরিণত করেছে। আপনি বলেছেন এখন পরিচিত মানুষের কাছে সত্যি কথা বললেও, অপরিচিত মানুষের কাছে মিথ্যা বলে। কাজেই সে হয়ত নিজে থেকেই এ অভ্যাস পরিবর্তনের চেষ্টা করছে। অনেক সময় বিশেষ কোনো উদ্দেশ্যে কিংবা বিশেষ সুবিধা পাওয়ার আশায় মানুষ মিথ্যা কথা বলে। আবার অনেক সময় কোনো কারণ ছাড়াই মিথ্যা বলে যা চেষ্টা থাকা সত্ত্বেও আটকানো যায় না। নিজেকে নিম্নমানসম্মন্ন মনে করা (Inferiority Complexity) থেকেও বানিয়ে বলার প্রবণতা দেখা যায়। কোন বিষয় ও পরিস্থিতিতে এবং কী চিন্তা থেকে সে মিথ্যা বলে তা জানা জরুরি। মিথ্যা বলে কিংবা বানিয়ে বলে সে কারো কাছ থেকে কোনো বিশেষ সুবিধা পায় কিনা তাও জানার চেষ্টা করতে হবে। কাজেই তার একটা বিস্তারিত সাক্ষাৎকারের প্রয়োজন আছে। আপনার মেয়েকে আপাতত একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখাতে পারেন। তিনিই সমস্যা নিরূপণ করে কী ব্যবস্থা নিতে হবে বলে দিবেন। এক্ষেত্রে সাইকোথেরাপি (কাউন্সেলিং) ও অভ্যাস পরিবর্তনের শিক্ষা (Behavioral Training)-এর প্রয়োজন হতে পারে। মনোরোগ বিশেষজ্ঞ কিংবা ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্টের কাছে কাউন্সেলিং করাতে পারেন।

 

পরামর্শ দিয়েছেন

অধ্যাপক ডা. সুস্মিতা রায়

বিভাগীয় প্রধান, মানসিক রোগ বিভাগ,

জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ, সিলেট।

সূত্রঃ মনের খবর মাসিক ম্যাগাজিন, ৪র্থ বর্ষ, ৫ম সংখ্যায় প্রকাশিত।  

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে 

   

“মনের খবর” ম্যাগাজিন পেতে কল করুন ০১৮ ৬৫ ৪৬ ৬৫ ৯৪
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।
       
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here