বাইরে গেলে মাথায় ও শরীরে প্রচন্ড অশান্তি লাগে

0
113
বাইরে গেলে মাথায় ও শরীরে প্রচন্ড অশান্তি লাগে
শেয়ার করুন, সাথে থাকুন। সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে।

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে ঘটে নানা ঘটনা, দুর্ঘটনা। যা প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। সেসবের সমাধান নিয়ে মনের খবর এর বিশেষ আয়োজন ‘প্রতিদিনের চিঠি’ বিভাগ। এই বিভাগে প্রতিদিনই আসছে নানা প্রশ্ন। আমাদের আজকের প্রশ্ন যিনি পাঠিয়েছেন তিনি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

প্রশ্ন: আমার বয়স ১৮ বছর। আমাকে মনোরোগ ডা: Desopan 0.5mg প্রতিদিন একটা খেতে বলেছে কিন্তু আমি 1/2 খাই। সাময়িক অসুবিধার জন্য এখন Desopan এর পরিবর্তে Xytril 0.5 নিয়েছি। এটা কি পরিমান খাওয়া যাবে? আরেকটা কথা অনিদ্রাজনিত কারণে প্যানিক ও ডিপ্রেশন থেকে বাচার কোনো রিলাক্সেশন থেরাপী থাকলে বলবেন?

আমার বাইরে বের হলে মাথায় ও শরীরে প্রচন্ড অশান্তি, দূর্বল ও অস্থিরতা করে। মনে হয় এক্ষুনি শ্বাস বন্ধ হয়ে যাবে। সারা শরীর অবশ হয়ে আসে। এই রোগের কারণে আমি বিগত দুই বছর ধরে বাইরে বের হতে পারি না, পড়ালেখায় ব্যঘাত হচ্ছে। পরামর্শ চাই।

উত্তর: প্রশ্ন করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার কিছু কিছু বিষয়ে কনফিউজড আছে, সেগুলোকে দূর করতে হবে। প্রথম কথা হলো অনিদ্রাজনিত কারণে প্যানিক বা ডিপ্রেশন হয় না। উল্লোটা হয় অর্থাৎ প্যানিক বা ডিপ্রেশনের কারণে অনিদ্রার কারণ দাড়ায়। সুতরাং আপনি যদি ক্লিয়ার কন্সেপ্ট না রাখেন তাহলে আপনার জন্যও এটা সমস্যা আবার চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়ার জন্যও সমস্য।

প্রথমে যেটা বলেছেন Desopan এর পরিবর্তে Xytril 0.5 কথা। এটা কোন সমস্যা না। দুটো ওষুধ একই কাজ করে থাকে। কিন্তু আপনার কন্সেপশন ক্লিয়ার না হলে আপনার রোগ থেকে বের হওয়া কঠিন হয়ে যাবে।

দ্বিতীয় কথা হলো রিলাক্সেশন বা থেরাপী। আলাদা করে রিলাক্সেশন বা থেরাপী করলে আপনি ভালো হয়ে যাবেন এই চিন্তাও আপনার মাথায় রাখা উচিৎ না। এবং কি রিলাক্সেশন দিতে হবে এটা আসলে এখান থেকে দেওয়া সম্ভব না।

এটার জন্য আপনাকে ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। অথবা অনেক রকম রিলাক্সেশন ইন্টারনেটে দেওয়া আছে সেখান থেকে আপনি যে কোন একটা করতে পারেন। কোন রিলাক্সেশন বা থেরাপী আপনার জন্য উপকার হবে সেটা এখান থেকে দেওয়া সম্ভব না।

আপনি যে রোগটাতে ভুগছেন সেটা হলো প্যানিক ডিজঅর্ডার বা প্যানিক অর্ডার হয় খুব সম্ভবত এগারোপোভিয়া অথবা প্যানিক ডিসঅর্ডার উইথ এগারোপোভিয়া। প্যানিক ডিজঅর্ডার আলাদা হওক বা এগারোপোভিয়া আলাদা হওক অথবা প্যানিক ডিজঅর্ডার উইথ এগারোপোভিয়া হওক সেক্ষেত্রে আপনাকে কিন্তু চিকিৎসা এক সাথে নিতে হবে।

টোটাল চিকিৎসাটা একসাথে কারলেই আপনার রোগ থেকে বেড়িয়ে আসার উপায় বের হবে। আলাদা করে আপনি মেডিটেশন করবেন আবার আলাদা করে চিকিৎসা করে ওষুধ খাবেন এটা হবে না।

আমার মনে হয় না যে আপনাকে শুধু এই ওষুধগুলো দেওয়া হয়েছে। আপনাকে আরো একটা ইনপর্টেন ওষুধ দেওয়ার কথা, যেটা আপনি এখানে উল্লেখ করেননি। যদি না করে থাকেন বা এমনটা না হয়ে থাকে তাহলে আপনি আবার আপনার মনোরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করুন এবং উনার কাছ থেকে সার্বিক চিকিৎসা নেওয়ার ব্যবস্থা করুন।

এরকম বিক্ষিপ্ত চিকিৎসা নিলে আপনার বর্তমান সমস্যা আরো বাড়বে এবং ভবিষ্যতেও আপনার বিভিন্ন রকম সমস্যা তৈরি হবে। সুতরাং আপনাকে অনুরোধ করছি একটা সার্বিক চিকিৎসা নেওয়ার জন্য। ধন্যবাদ।

ইতি,
প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব
চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক – মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
সেকশন মেম্বার – মাস মিডিয়া এন্ড মেন্টাল হেলথ সেকশন অব ‘ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন’।
কোঅর্ডিনেটর – সাইকিয়াট্রিক সেক্স ক্লিনিক (পিএসসি), মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
সাবেক মেন্টাল স্কিল কনসাল্টেন্ট – বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট টিম।
সম্পাদক – মনের খবর।

more

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here