কানাডায় তরুণদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র খোলা হচ্ছে

কানাডায় তরুণদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র খোলা হচ্ছে

যুবক-যুবতী এবং শিশু যারা ১১ বছর থেকে ২৫ বছরের মধ্যে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার সাথে যুদ্ধ করছে এবং নেশাগ্রস্ত তারা খুব সহজেই তিনজন মনরোগ বিশেষজ্ঞ এবং ২ জন চিকিৎসকের সাহায্য নিতে পারবে। এডমন্টন লোকেশন নামে একটি ক্লিনিক থেকে এই স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হবে। এই ক্লিনিক আলবার্তা শহরে মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য তৈরি হওয়া প্রথম ক্লিনিক।
আগামী সপ্তাহে অ্যাক্সেস ওপেন মাইন্ড বিল রিস ওয়াইএমসিএ-তে যুবক যুবতী এবং শিশুদের জন্য একটি নতুন মানসিক স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র খুলবে। এই ক্লিনিকটি ১১ বছর থেকে ২৫ বছর বয়সীদের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করবে। উদ্যোক্তারা মনে করেন শতকরা ৭৫ ভাগ মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার দেখা দেয় অথবা সমস্যা শুরু হয় এবং ধীরে ধীরে বাড়ে এই বয়সে।
এই ক্লিনিকটির একজন মনরোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যাডাম আব্বা আজি বলেন, “এটি মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য, হালকা দুশ্চিন্তা থেকে শুরু করে তীব্র মানসিক অসুস্থতার জন্য ওয়ান স্টপ  হতে যাচ্ছে”।
অ্যাক্সেস ওপেন মাইন্ড তিন বছর আগে খোলা হয়েছিল। আর এটি খোলার উদ্যোগ নিয়েছিল কানাডিয়ান ইন্সটিটিউট অব হেলথ রিসার্চ এবং গ্রাহাম বোয়েখ ফাউন্ডেশন। এটি ম্যাক গিল বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অংশ। এটি খোলার উদ্যেশ্য হল যুবক যুবতী এবং তাদের পরিবারে যারা মানসিক সমস্যায় ভুগছে তাদের যেন আরো ভাল মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা যায়। এখন কানাডাতে আরো ১১ টি অ্যাক্সেস ক্লিনিক রয়েছে। এডমন্টন লোকেশন অ্যালবার্তা শহরের জন্য প্রথম।
অ্যাক্সেস-এর একজন চিকিৎসক সেরেন ক্যায়সার বলেন, “কিশোর-কিশোরী এবং যুবক-যুবতীরা মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে কিছু আলাদা সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকে। এই সমস্যাগুলো শারীরিক স্বাস্থ্যেও ফাটল ধরায়। কেউ কেউ চাপ, উদ্বিগ্নতা, অন্যান্য মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় সাহায্য চাইতে গিয়ে হতাশ হয়ে পড়েন এবং যেকোনো সেবা নেওয়ার আশা হারিয়ে ফেলে অথবা সেবা নিতে চায় না। এই সমস্যার কারণে কেউ কেউ স্কুল থেকে বের হয়ে যেতে হয়, চাকুরী হারাতে হয় এমনকি মাঝে মাঝে ঘরছাড়া হতে হয়”।
ড. ক্যায়সার আরো বলেন, “যদি আমরা যারা মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে তাদের যেন ঘরছাড়া না হতে হয়, অথবা চাকুরীচ্যুত না হতে হয় অথবা স্কুল থেকে কীভাবে একটু ছুটি নেয়া যায় এই দিক গুলো দেখি তাহলে তাদের জন্য অনেক বড় সমর্থন হবে”।
ক্লিনিকটি মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করার উদ্দেশ্য হচ্ছে শিশু এবং যুবক যুবতীদের অ্যালবার্তা হেলথ সিস্টেমের সাথে আরো ভালভাবে যুক্ত করা যেন ১৮ বছর বয়সের মধ্যে যেকোনো মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় তাদের সাহায্য করা যায়। কেননা এরপর ধীরে ধীরে এই সমস্যা ভায়াবহ আকারে বাড়তে থাকে। এই ক্লিনিকটি শনিবারেও খোলা থাকবে। এই স্বাস্থ্যসেবা তাদের যুবক যুবতী থেকে বয়োঃপ্রাপ্ত হওয়ার সময় যে পেড্রিয়াট্রিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় সেসব সমস্যাগুলো থেকে বাঁচাতে সাহায্য করবে।
এরপরের পরিকল্পনা হচ্ছে অতি শীঘ্রই যেন আলবার্তা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের জন্য ঠিক এমনই একটি ক্লিনিক খোলা যায়। এই ক্লিনিকটি প্রত্যেক মাসে কমপক্ষে ৩০ জনকে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে থাকে।
ড. আব্বা আজি আশা করেন এই ক্লিনিকটি উদ্বিগ্নতা মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় রূপান্তরিত হওয়ার আগেই ধরতে পারবে। তিনি বলেন, “এটি হচ্ছে দ্রুত হস্তক্ষেপের মত। তারা যত দ্রুত আসবেন আমরা তাদের সাহায্য করতে পারব”।
তথ্যসূত্র-
(http://www.edmontonsun.com/2017/04/06/youth-mental-health-centre-opens-next-week)
রুবাইয়াত মুরসালিন, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম

No posts to display

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here