'মানসিক স্বাস্থ্য সেবা অত্যান্ত মানবিক কাজ'

0
33

মানসিক স্বাস্থ্য সেবা অত্যান্ত মানবিক কাজ বলে উল্লেখ করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের কনফারেন্স কক্ষে রবিবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভাটির আয়োজন করে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস্।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস একটি গুরুত্বপূর্ণ দিবস। আমরা গত কয়েক বছর যাবৎ এর উপর কাজ করছি। আপনাদের দীর্ঘ দিনের দাবী ছিলো মানসিক স্বাস্থ্যের আইন। এই আইনটি আমি গত অধিবেশনে উপস্থাপন করেছি। আপনাদের জন্য এই আধুনিক আইনটি আশা করছি ইনশাল্লাহ এটি পাশ হবে।’
ডাক্তারদের উদ্দেশ্য করে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আপনারা যে মানসিক স্বাস্থ্য সেবার কাজে আছেন এটি অত্যান্ত মানবিক কাজ। অনেক পরিবার ধ্বংস হয়ে যায় পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তিটি মানসিক রোগী হলে। পরিবর্তনশীল পৃথিবীতে সত্যিই তরুণদের মানসিক অবস্থা পরিবর্তন হচ্ছে ঠিকই। কিন্তু তারা অনেক কালচার ভুলে যাচ্ছে। আগের তরুণরা ছিলো সৃজনশীল, আন্তরিক ও পারিবারিক বন্ধনে আবদ্ধ। কিন্তু আধুনিকতার নামে তারা সব ভুলে যাচ্ছে। আমি বলতে বাধ্য হচ্ছি, বর্তমান তরুণরা একটি অপসংস্কৃতি দ্বারা আবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। তাদেরকে ফেরাতে হবে’।
আলোচনা সভার শুরুতে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মেখলা সরকার। তিনি মূল প্রবন্ধে জানান, বাংলাদেশে ১৮ বছরের উর্দ্ধে ১৬.০৫ শতাংশ ও ১৮ বছরের নিচে ১৮.৪ শতাংশ মানুষ মানসিক রোগে ভুগছে। এছাড়াও তিনি মানসিক স্বাস্থ্যের বিভিন্ন বিষয় তার প্রবন্ধে তুলে আনেন।
সভার সভাপতি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টের সভাপতি ডা. মো. ওয়াজিউল আলম আলম চৌধুরী। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন মানুষসহ প্রতিটি প্রাণিই প্রতিনিয়ত দেহ ও মনে পরিবর্তীত হচ্ছে। কিন্তু গত দুই দশকে এই পরিবর্তন খুব দ্রুত হয়েছে। ইন্টারনেট টেকনোলজির মাধ্যমে দেশের সার্বিক উন্নতি সাধিত হয়েছে। কিন্তু কেন জানি তরুণরা এর মাধ্যমে পথভ্রষ্ট হচ্ছে। আর এ জন্যই বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য খুব গুরত্বপূর্ণ’।
আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন স্বাধীনতা চিকিৎসা পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান ও মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম.  আজিজ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ডা. মো. গোলাম রব্বানী, ডা. নূর মোহাম্মদ, অধ্যাপক ডা. ফারক আলম, অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল, ডা. মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান খান, ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ, বিএসএমএমইউ এর মনোরোগ বিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব, অধ্যাপক ডা. ঝুনু শামসুন্নাহার ও অধ্যাপক ডা. নাহিদ মাহজাবীন মুরশেদ সহ আরো অনেকে।
আলোচনা সভা আয়োজনে সার্বিক সহযোগীতা করেছে ইন্সেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here