ডাক্তার-রোগী সম্পর্ক নিয়ে মনের খবরে’র জুলাই-আগস্ট সংখ্যা বাজারে

0
18

মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মাসিক ম্যাগাজিন ‘মনের খবর’ এর জুলাই-আগস্ট সংখ্যা বাজারে এসেছে। ডাক্তার-রোগীর সম্পর্কের বিষয়বস্তু নিয়ে সাজানো হয়েছে এ সংখ্যাটি। এটি মনের খবর-এর সপ্তম সংখ্যা। প্রতি সংখ্যার মতো এবারও লিখেছেন দেশের বিশিষ্ট চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞগণ।

  • ‘ডাক্তার-রোগী সম্পর্ক হতে পারে চরম হতাশার পরম শান্তির’ শিরোনামে প্রচ্ছদ প্রতিবেদন লিখেছেন স্কয়ার হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মো ওয়াজিউল চৌধুরী।
  • ‘চিকিৎসক-রোগী সম্পর্ক পদ্ধতিগত দুর্বলতাই সুচিকিৎসার অন্তরায়’ শিরোনামে আরেকটি প্রতিবেদন লিখেছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. পঞ্চানন আচার্য্য।
  • ডা. মুনতাসীর মারুফ লিখেছেন ‘চিকিৎসক-রোগী সম্পর্কে “এমপ্যাথি”’ শীর্ষক প্রচ্ছদ প্রতিবেদন।
  • ডাক্তার-রোগীর সম্পর্কের বিষয় নিয়ে ডা. সাকলায়েন রাসেল লিখেছেন ‘সম্পর্ক উন্নয়নে চিকিৎসকদেরকেই এগিয়ে আসতে হবে’

এছাড়াও আরো প্রচ্ছদ প্রতিবেদন লিখেছেন ডা. মৃণাল সাহা ও সংবাদকর্মী আবু তালহা। যৌনস্বাস্থ্য বিষয় নিয়ে ডা. এস এম আতিকুর রহমান লিখেছেন ‘যৌনস্বাস্থ্য সেবায় গোপনীয়তা’ শিরোনামে।
‘মানসিক রোগের চিকিৎসা ও মেডিক্যাল এথিকস’ বিষয়ে মানসিক রোগ চিকিৎসা পাতায় লিখেছেন ডা. ওয়ালিউল হাসনাত।
এছাড়াও এ সংখ্যায় বিশেষ সাক্ষৎকার দিয়েছেন চিকিৎসক এবং মুক্তিযোদ্ধা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি দীর্ঘদিন চিকিৎসা এবং চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছেন।
মানসিক স্বাস্থ্য অধিকার আইন-২০১৮ নিয়ে পর্যালোচনা পাতায় ‘শুভ উদ্যোগে কিছু অসংগতি মানসিক স্বাস্থ্যসেবায় নৈরাজ্য সৃষ্টির আশঙ্কা’ শিরোনামে পর্যালোচনা করেছেন ডা. মো. সালেহউদ্দীন ও ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ খান।
তারকার মন পাতায় বাংলাদেশী রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী পাপিয়া সারোয়ারের মুখোমুখি হয়েছেন আরমান কামাল।
এছাড়াও গবেষণা পাতায় ডা. এস এম ইয়াসির আরফাত, ব্যক্তিত্ব পাতায় ডা. সাদিয়া আফরিন, যুগে যুগে পাতায় ডা. তৈয়বুর রহমান রয়েল লিখেছেন।
চিকিৎসাসেবা পাওয়া বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার। কিন্তু বাস্তবক্ষেত্রে যথাযথ চিকিৎসা পাওয়ার সংযোগ বাংলাদেশে সর্বত্র সমান নয়। দেশে বিদ্যমান স্বাস্থ্যব্যবস্থা মূলত ঔপনিবেশিক আমলের। যদিও সময়ে সময়ে কিছু পরিবর্তন এবং পরিবর্ধন করা হয়েছে, তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় উল্লেখযোগ্য কিছু নয়। ফলে বিভিন্ন ক্ষেত্রেই বিভিন্ন ধাপে বৈষম্যের মাত্রা প্রকট। আশঙ্কার কথা হলো, এই বৈষম্য দিনদিন বাড়ছে। ফলে জণগন বঞ্চিত হচ্ছে প্রাপ্য সেবা অথবা ভোগ করতে হচ্ছে অহেতুক ভোগান্তি। আর তাই স্বাস্থ্যসেবায় বৈষম্যের কারণ ও প্রতিকার খুঁজে পাওয়ার বিষয় নিয়েই রয়েছে এবারের মনোসামাজিক বিশ্লেষণ ‘স্বাস্থ্যসেবায় বৈষম্য-সারাদেশে চাই চিকিৎসার সমান সুযোগ’। যেখানে লেখা গুলো সংকলন করেছেন ডা. পঞ্চানন আচার্য্য।  এছাড়াও এখানে লিখেছেন অধ্যাপক ডা. রশিদ-ই-মাহবুব, মুন্নি সাহা, দিনার সুলতানা, আহমেদ মুস্তফা, ডা. শাখাওয়াৎ নয়ন এবং ডা. সুমন চৌধুরী
এছাড়াও দেশের সংবাদ, মানসিক স্বাস্থ বিষয়ক সংবাদ এবং সমৃদ্ধ প্রশ্নোত্তর রয়েছে এই সংখ্যায়।
আর চিকিৎসায় সুফল পেতে করনীয় নিয়ে রয়েছে মাহজাবিন আরা শান্তার টিপস্।
আর বরাবরের মত এবারের সংখ্যাটি মাত্র পঞ্চশ টাকার বিনিময়ে আপনার নিকটস্থ পত্রিকার স্টল থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here