মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home সংবাদ জাতীয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মানসিক রোগবিভাগের সেবাতথ্য

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মানসিক রোগবিভাগের সেবাতথ্য

মনের খবর.কমের পাঠকদের জন্য থাকছে দেশের মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজের মনোরোগ বিভাগের বিস্তারিত তথ্য। প্রত্যেক প্রতিবেদনে থাকবে একটি করে টেবিল। টেবিলে বিভাগের লোকবল, সেবা ইত্যাদি সংবলিত প্রয়োজনীয় বিভিন্ন তথ্য থাকবে। ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজকের পর্বে থাকছে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় মানসিক রোগ বিভাগ।

আত্মহত্যার প্রবণতা গ্রাস করেছিল চট্টগ্রামের শেখ মাসুমকে। বাস্তবতা থেকে দূরে চলে গিয়েছিলেন তিনি। মাসুমের এমন মানসিক সমস্যা তার পরিবারে ভয় ও দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মানসিক রোগ বিভাগে চিকিৎসা নিয়ে এখন সুস্থ হওয়ার পথে মাসুম। বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. শফিউল হাসান তত্ত্বাবধান করছেন তার।

বহির্বিভাগে রোগী দেখার সময় এ ধরনের মানসিক রোগীর সাক্ষাৎ পান ডা. মো নিজামউদ্দীনসহ সেখানকার মানসিক রোগ বিভাগের চিকিৎসকেরা। সরকারি এ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগে চিকিৎসা নিতে (প্রতি কর্মদিবসে) প্রায় ৫০-৭০ জন মানসিক রোগী আসেন।

cmc_22_03_2015_1

কীভাবে মানসিক রোগীরা চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগে সেবা পেতে পারেন তাসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য নিচে তুলে ধরা হলো:

পরিচিতি

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চট্টগ্রাম শহরের পাঁচলাইশ এলাকায় কে বি ফজলুল কাদের রোডে অবস্থিত। ১৯৫৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় সরকারি এ প্রতিষ্ঠানটি। বর্তমানে এটি একটি ৫শ ১০ শয্যাবিশিষ্ট তৃতীয় পর্যায়ের হাসপাতাল

লোকবল
হাসপাতালটির মানসিক রোগ বিভাগে চাকুরিরত আছেন ৪ জন। এদের মধ্যে ২জন বিভাগের শিক্ষক। একজন সহযোগী অধ্যাপক আর আরেকজন সহকারী। ১জন সহকারী মেডিকেল অফিসার এবং একজন বহির্বিভাগ মেডিকেল অফিসার আছেন। এখানে কোনো পোস্ট খালি নেই।

অন্তর্বিভাগ
অন্তর্বিভাগে রোগীদের চিকিৎসা সেবার জন্য ১৫টি বেডের ব্যবস্থা রয়েছে। পুরুষদের জন্য ১০টি বেড ও নারীদের জন্য রয়েছে ৫টি। তবে বেডের সংখ্যার চেয়েও কখনো রোগীর সংখ্যা বেশি হয়।

বহির্বিভাগ
অন্তর্বিভাগের পাশাপাশি এই বিভাগে বহির্বিভাগ সেবাও চালু রয়েছে। বহির্বিভাগে ১০ টাকা টিকেট ফিতে রোগী দেখা হয়। সাপ্তাহিক ছুটি শুক্রবার বাদে অন্য ছয়দিন সকাল সাড়ে আটটা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত রোগী দেখা হয়।
সাইকোথেরাপি (কাউন্সেলিং)
মানসিক রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা হিসেবে এখানে কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করা হয়। বিভাগের শিক্ষকরাই এ সেবা দিয়ে থাকেন। বিভিন্ন বিভাগ থেকে রেফার্ড রোগীদেরও শিক্ষকরা কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করে থাকেন। প্রশিক্ষণরত শিক্ষার্থীরা সাধারণত রেফার্ড রোগীদের দেখে থাকেন।

জরুরি সেবা

বিভাগের দুপুর আড়াইটার পরে মানসিক রোগীদের জন্য বিশেষ জরুরি সেবা চালু আছে। বিভাগে সহকারি রেজিস্টার্ড থাকেন। ফোন যোগাযোগের মাধ্যমে এ সেবা পেতে পারেন।

শিক্ষা কার্যক্রম

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঁচ বৎসর মেয়াদী শিক্ষা কার্যক্রম সাফল্যজনকভাবে শেষ করে শিক্ষার্থীরা চিকিৎসাশাস্ত্রে এমবিবিএস স্নাতক ডিগ্রি প্রাপ্ত হয়। এ কলেজে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে বিভিন্ন কোর্স রয়েছে। তবে মানসিক রোগ বিভাগে কোনো পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিগ্রি চালু নাই।

এছাড়াও বিভাগটি মাঝে মাঝে বিভিন্ন সেমিনার, কনফারেন্স ও কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় বা মেডিকেল থেকে আগত শিক্ষার্থীদেরও ট্রেনিং করানো হয়ে থাকে। এখানে গবেষণার কাজ সাধারণত ব্যক্তিগত উদ্যোগে হয়ে থাকে।

cmc_2203.2015

মো. জাহিদ হাসান
প্রতিবেদক. মনেরখবর.কম

এ সম্পর্কিত অন্য লেখার লিংক-

ঢামেকের মানসিক রোগ বিভাগ

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের মানসিক রোগ বিভাগের সেবাতথ্য

শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলে কীভাবে পাবেন মানসিক রোগের সেবা

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগ

সিলেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মানসিক রোগ বিভাগের সেবাতথ্য

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগ

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মানসিক রোগ বিভাগ

জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ, বগুড়া-মনোরোগ বিভাগ

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মানসিক রোগ বিভাগ

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ মানসিক রোগ বিভাগ

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মানসিক রোগ বিভাগ

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

ধর্ম এবং মানসিক স্বাস্থ্যের যোগসূত্র

অনেকেই মনে করেন ধর্মীয় বিধি বিধান এবং মানসিক স্বাস্থ্যের মাঝে একটি গভীর সম্পর্ক রয়েছে এবং বিশেষ করে যারা ধর্মীয় জীবন যাপন করেন তারা উন্নত...

আমাকে তোমার মনের কথা বলতে পারো

পরিস্থিতি বুঝে সঠিক কাজটি করা এবং যথাযথ কথা বলা একজন ভাল বন্ধু বা সঙ্গীর লক্ষণ। কাছের মানুষের বিপদে আমরা কোনভাবেই স্থির থাকতে পারিনা। একজন সহানুভূতিশীল...

হাইপোগোনাডিজম: পুরুষের ক্লান্তি-অবসন্নতা-বিষণ্ণতার কারণ

আপনি কি ক্লান্ত? অবসন্ন? বিষণ্ন? যৌন জীবনের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন? এর মূলে থাকতে পারে রক্তে টেসটোসটেরন হরমোনের স্বল্পমাত্রা বা হাইপোগোনাডিজম। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে,...

উদ্বেগ কিংবা আতঙ্কে হৃদস্পন্দন কমাতে সহায়ক পরামর্শ

মানসিক চাপ, অস্বস্তিতে কমবেশি সবাই ভোগেন। তবে তা অসুস্থতার পর্যায়ে পৌঁছালে প্রভাবিত হয় দৈনন্দিন জীবন। প্রচণ্ড ভয়, দুশ্চিন্তা থেকে শুরু করে বুক দপদপানি, হৃদস্পন্দনের গতি...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন