মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home সংবাদ আন্তর্জাতিক সাইকোথেরাপিতে ভাষা সমস্যায় পড়ছেন অভিবাসীরা

সাইকোথেরাপিতে ভাষা সমস্যায় পড়ছেন অভিবাসীরা

জার্মানিতে বছরে প্রতি তিন জনে একজন মানসিক সমস্যায় ভোগেন৷ এই তথ্য জানিয়েছে রবার্ট কখ ইন্সটিটিউট৷ তবে সমস্যাটা গুরুতর না হলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন না হলেও চলে৷ হালকা ব্যায়াম বা জায়গা পরিবর্তন করলে অনেক সময় ভালো বোধ করেন রোগীরা৷তবে মানসিক চাপটা বেশি হলে সাইকোথেরাপিস্টের কাছে যেতেই হয়৷
কিন্তু উপযোগী থেরাপিস্ট পাওয়া সহজ নয়৷ অনেক সময় অ্যাপয়েন্টমেন্ট পাওয়ার জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়৷ থেরাপিস্ট ও রোগীর মধ্যে একটা আস্থার সম্পর্কও গড়ে তুলতে হয়৷ আর ভাষার বাধা থাকলে ব্যাপারটি আরো জটিল হয়ে ওঠে৷ এ কারণে অভিবাসীদের সমস্যাটা বড় হয়ে দাঁড়ায়, বিশেষ করে জার্মান ভাষায় যাঁদের তেমন দখল নেই৷ সাধারণ ডাক্তার দেখানোর সময় আত্মীয়স্বজন বা বন্ধু-বান্ধবরা দোভাষী হিসাবে সাহায্য করতে পারেন৷ কিন্তু মানসিক রোগের বেলায় বিষয়টি সহজ নয়৷ কারণ ব্যক্তিগত ও পারিবারিক অনেক অস্বস্তিকর বিষয় আলোচনায় উঠে আসতে পারে৷
ভুপার্টাল শহরের প্রটেস্টান্ট গির্জা সংশ্লিষ্ট সাহায্য সংস্থা ডিয়াকনি এই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এসেছে৷ জার্মানির নয়টি রাজ্যে সংস্থারটির পক্ষ থেকে ভাষা ও ইন্টিগ্রেশন কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে৷ যাঁদের বলা হয় ‘স্প্রিন্ট’৷ সাধারণত তাঁরাও অভিবাসী বা বিদেশি বংশোদ্ভূত৷ ১৮ মাস প্রশিক্ষণের পর তাঁদের তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সার্টিফিকেট দেওয়া হয়৷ এরপর প্রয়োজন অনুযায়ী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দোভাষী বা মধ্যস্থতাকারী হিসাবে পাঠানো হয় এই সব কর্মীকে৷ সাইকোথেরাপিস্ট ও রোগীর মধ্যে প্রশ্নোত্তরে তাঁরা দোভাষীর কাজ করতে পারেন৷
ইতিমধ্যে থেরাপিস্টদের কাছ থেকে এক্ষেত্রে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাওয়া গিয়েছে৷ জানান ভুপার্টাল প্রকল্পের পরিচালক হাইকে টিমেন৷তাঁর ভাষায়, ‘‘অবশ্য কেউ কেউ তৃতীয় ব্যক্তির উপস্থিতি একটা বাধা বলে মনে করেন৷ তবে অনেক থেরাপিস্ট জানিয়েছেন যে, এর ফলে রোগীদের শারীরিক ভাষা, ভাবভঙ্গি বুঝতে সুবিধা হয়৷”
জার্মানির সাইকোথেরাপিস্টদের কেন্দ্রীয় সংগঠন ‘ফেডারাল চেম্বার অফ সাইকোথেরাপিস্ট’-এর প্রেসিডন্ট রাইনার রিখটার এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘চোখের দৃষ্টি, আকার ইঙ্গিত – এ সবের একটা বড় ভূমিকা রয়েছে৷” তবু দোভাষীর মাধ্যমে কথাবার্তা চালানো হলো দ্বিতীয় উত্তম প ন্থা৷ সবচেয়ে ভালো হয় যদি থেরাপিস্ট ও রোগী একই ভাষায় কথা বলেন৷ এ জন্য রোগীর মাতৃভাষায় কথা বলেন, এই রকম থেরাপিস্টের প্রয়োজন৷
রিখটারের মতে বিদেশি ভাষায় দখল আছে এরকম থেরাপিস্টের সংখ্যা কম নয়৷ তবে প্র্যাকটিস খোলার জন্য অনুমতি-পত্র পাওয়াটা সহজ নয়৷ জার্মানিতে এমনিতেই সাইকো থেরাপিস্টের সংখ্যা কম৷ অভিবাসীদের ক্ষেত্রে অবস্থাটা আরো সংকটজনক৷
জার্মানির একেক অঞ্চলে একেক দেশ থেকে আসা অভিবাসী সংখ্যা বেশি৷ আর তাই অঞ্চলভেদে সংখ্যাগরিষ্ঠ অভিবাসীর ভাষায় কথা বলে এমন থেরাপিস্টদের অনুমতি-পত্র দেওয়ার ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে হবে৷ এই ব্যাপারে ইন্টারনেটের মাধ্যমে খোঁজ খবর নেওয়া যেতে পারে৷
উল্লেখ্য, সরকারি স্বাস্থ্যবিমা সংস্থাগুলি দোভাষীর খরচ বহন করে না৷ এই সংক্রান্ত এক মামলার রায়ে বলা হয়েছে, থেরাপিস্ট ও রোগীর মধ্যে ভাষাগত ব্যবধান দূর করা স্বাস্থ্যবিমার পরিষেবার আওতায় পড়ে না৷
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

করোনাকালে প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষা ও মানসিক স্বাস্থ্যে প্রভাব নিয়ে মনের খবর নভেম্বর সংখ্যা প্রকাশিত

দেশের অন্যতম বহুল পঠিত মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মাসিক ম্যাগাজিন মনের খবর এর নভেম্বর সংখ্যা। অন্যান্য সংখ্যার মত এবারের সংখ্যাটিও একটি বিশেষ বিষয়ের উপর প্রাধান্য...

অবিবাহিতদের মানসিক স্বাস্থ্য বনাম বিবাহিতদের মানসিক স্বাস্থ্য

আমাদের সমাজে অবিবাহিত বা বৈবাহিক সম্পর্ক এড়িয়ে চলা মানুষদের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। অনেকেই মনে করেন বৈবাহিক সম্পর্ক এড়িয়ে চললেই সবাইকে নিয়ে সুখী...

পরিবেশ দূষণ মনের ওপর যেসব প্রভাব ফেলে

আমাদের চারপাশের ভৌত অবস্থা, জলবায়ু, জৈবিক এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক শক্তির সামষ্টিক রূপটিই হচ্ছে পরিবেশ। কোন ব্যবস্থা বা জীবের অস্তিত্ব বা বিকাশের জন্য তার উপর...

বায়ু দূষণ করোনাভাইরাসে মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ায়

বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে যত মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন তার ১৫ শতাংশের পেছনে ভূমিকা রেখেছে লম্বা সময় বায়ু দূষণের প্রভাব, এমন দাবি করছেন গবেষকরা। বায়ু দূষণ...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন