রোগীদের জন্য অতিরিক্ত বেডের ব্যবস্থা করেছে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ট্রাস্ট

নাটিংহামশায়ারের মানসিক স্বাস্থ্য ট্রাস্ট চিকিৎসার জন্য এলাকার বাহিরে পাঠানো রোগীদের সংখ্যা কমাতে একটি প্রাইভেট প্রোভাইডারের কাছ থেকে ১৬ টি অতিরিক্ত বেড (শয্যা) গ্রহণ করছে। নাটিংহামাশায়ার স্বাস্থ্যসেবা এনএইচএস ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট আগস্ট মাসের ১ তারিখ থেকে প্রায়োরি গ্রুপ এর কালভার্টন হিলের সুবিধাপ্রাপ্ত একটি ওয়ার্ডের দায়িত্ব নেবে।
অতিরিক্ত বেডের ব্যাপারটি তখন নিশ্চিত করা হয় যখন একটি খবর প্রকাশ পায়। খবরটি হল, মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত একজন রোগীকে ১৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছিল এক হাসপাতাল থেকে আরেক হাসপাতালে বদলির জন্য। যে হাসপাতাল থেকে বদলি করা হয়েছিল তা হল শেরওড ফরেস্ট হাসপাতাল নাটিংহামাশায়ার স্বাস্থ্যসেবা এনএইচএস ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট। কেননা নাটিংহামাশায়ার স্বাস্থ্যসেবা হাসপাতালের এতটা সক্ষমতা ছিল না।
ট্রাস্টের সাথে একটি ২ বছরের চুক্তির মাধ্যমে বেডগুলো আনা হয়েছিল। বেডগুলো এজন্য আনা হয়েছিল যেন আর কোনো প্রাপ্তবয়স্ককে মানসিক স্বাস্থ্য সেবার জন্য শহরের বাহিরে যাওয়ার ঝামেলা না পোহাতে হয়।
আর্নোল্ড এর কালভার্টন হিল প্রাপ্তবয়স্কদের মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের জন্য অর্থাৎ যাদের মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা অথবা ব্যক্তিত্বহীনতায় ভোগা এই ধরনের সমস্যার জন্য একটি মধ্য মানের নিরাপদ কেন্দ্র। এই প্রতিষ্ঠান যাদের মানসিক স্বাস্থ্য সেবা আইন সমর্থন করে এবং যেসব অপরাধীদের মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা রয়েছে তাদের সাহায্য করে থাকে।
নাটিংহামাশায়ার স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের স্থানীয় অংশীদারদের নির্বাহী পরিচালক পল স্মীটন বলেন, ট্রাস্টের সাথে যে উপ চুক্তিটি করা হয়েছে এবং সেই চুক্তিতে যে ওয়ার্ডের কথা উল্লেখ আছে তা বর্তমানে সাধারণভাবে যারা তীব্র অবস্থায় থাকে তাদের ওয়ার্ডে পরিবর্তন করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, “আমরা মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত রোগীদের ভর্তির জন্য বিভিন্ন আবেদন পাচ্ছি আর তাদের বেশিরভাগই নাটিংহামশায়ারের। আমরা চাই যারা আমাদের কাছাকাছি থাকে তাদের যেন আমরা আরও বেশি সেবা প্রদান করতে পারি”।
এছাড়া তিনি বলেন, “ প্রত্যেক বছর এই রোগীদের সংখ্যা ধীরে ধীরে ৫ থেকে ৬ শতাংশ হারে বাড়ছে। আমরা যেভাবে আগে এদের সাথে মোকাবিলা করেছি এতে আমাদেরকে নাটিংহামশায়ারের মানুষকে অন্য কোথাও পাঠাতে হয়েছে। এতে তাদের সামাজিক যোগাযোগ থেকে বিচ্ছিন্ন হতে হয়েছে”।
মার্চ মাসে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে যেখানে দেখা গেছে যে ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসের ১ তারিখ থেকে ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত নাটিংহামশায়ার স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান এলাকা পরিবর্তনের জন্য ৮১৮০০৪ ডলার খরচ করেছে।
হেলথওয়াচ নাটিংহামশায়ারের চেয়ারম্যান মিশেল লিভিংস্টোন হাসপাতালে অতিরিক্ত বেডের খবরটিকে তিনি ‘ইতিবাচক পদক্ষেপ’ হিসেবে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, “মানসিক স্বাস্থ্যসেবার আবেদন স্থানীয় এবং জাতীয় উভয় ক্ষেত্রেই উচ্চমানের। হেলথওয়াচ এর সাথে যে তথ্য ভাগাভাগি করা হয়েছে তা থেকে জানা যায় যে যাদের এলাকার বাহিরে গিয়ে সেবা গ্রহণ করতে হয় তা তাদের জন্য দুর্দশার তৈরি করে। তাদেরকে তাদের ঘরবাড়ি, আপনজন থেকে দূরে থাকতে হয়। স্থানীয়ভাবে রোগীদের সেবা প্রদান করা এবং তাদের সেবা প্রদানে যে কোনো উন্নয়ন আমরা ইতিবাচক ভাবে স্বাগত জানাই”।
তথ্যসূত্র-
(http://www.nottinghampost.com/mental-health-trust-secures-new-beds-from-private-provider/story-30419134-detail/story.html)
কাজী কামরুন নাহার, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here