শিশুদের পটি ট্রেইনিং: আদ্যোপান্ত

0
829
শিশুদের পটি ট্রেইনিং: আদ্যোপান্ত

ব্যস্ততার এ যুগে মানুষ তার প্রতিবেশী কে সেটাও জানেনা….এমন কথা প্রায়ই শোনা যায়। কথাটা কিন্তু একেবারে ফেলে দেয়ার মত না।কিন্তু আমার ক্ষেত্রে এই প্রতিবেশীর সাথে সম্পর্ক রাখা অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে ‘লিফট’। বহুতল ভবনে বাস করার সুবিধা হিসাবে লিফটে ওঠানামা করতে করতেই প্রতিবেশী আন্টি, আপা আর ভাবিদের সাথে আলাপ-গল্প অনেকটাই হয়ে যায়, সাথে ফ্রি চিকিৎসা পরামর্শও চলে মাঝে সাঝে।

এই সেদিন আলাপ হচ্ছিলো-এক ভাবি জানতে চাইলেন যে ওনার বাচ্চার ১০ মাস বয়সগত এক মাস থেকে পটিতে পি-পটি( প্রস্রাব-পায়খানা) করানোর চেস্টা করছেন, কিন্তু বাচ্চা কিছুতেই বসছে না পটিতে, চিৎকার করে কান্নাকাটি শুরু করে দেয়….পাশ থেকে আরেক আপার মন্তব্য- “উনার বাচ্চা সাড়ে তিন বছর বয়স, টয়লেটে যায়, আবার প্রায়ই বিছানা ভিজিয়ে ফেলে। তাই রাগ করে তিনি মাঝে মাঝে দুই একটা পিট্টি ও লাগিয়ে দেন!“

আসলে এই বাচ্চাদের এই টয়লেট ট্রেইনিং বিষয়ক সমস্যা নিয়ে এক থেকে চার বছর বয়সী বাচ্চার মায়েরা বেশ বিচলিত থাকেন এবং এটাই স্বাভাবিক। আজ আমি Frequently Asked Questions বা সচরাচর/বারংবার জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন হিসাবে মায়েদের কমন প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেয়ার চেস্টা করবো। সাথে এর সাথে মনের কি সম্পর্ক এটাও ব্যাখ্যা করার চেস্টা করবো।

প্রথমেই টয়লেট ট্রেইনিং কি?
টয়লেট প্রশিক্ষণ আপনার শিশুকে প্রস্রাব করার জন্য, অন্ত্রের গতিবিধি করার জন্য (পটি/পায়খানা/Bowel) এবং সঠিকভাবে এবং উপযুক্ত সময়ে একটি পটি চেয়ার বা টয়লেট ব্যবহার করার জন্য তার শরীরের সংকেত বুঝতে শেখায়।

টয়লেট প্রশিক্ষণ কখন শুরু করা উচিত?
শিশু যখন সে প্রস্তুত এই লক্ষণ দেখায় তখন টয়লেট প্রশিক্ষণ শুরু করা উচিত। যদি আপনি আপনার শিশু প্রস্তুত হওয়ার আগে টয়লেট ট্রেইনিং এর চেষ্টা করেন তবে এটি আপনার এবং আপনার সন্তানের উভয়ের জন্যই কষ্টকর এবং দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে। অন্ত্র ( Bowel) এবং মূত্রাশয় ( Bladder) এর পেশী নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা সঠিক বৃদ্ধি এবং বিকাশের সাথে আসে।

শিশুরা বিভিন্ন স্টেজে বিকাশ লাভ করে। যেমনঃ
➤১২ মাসের চেয়ে কম বয়সী বাচ্চার মূত্রাশয় ( Bladder) বা অন্ত্রের ( Bowel) গতিপথের নিয়ন্ত্রণ নেই।
➤১২ থেকে ১৮ মাসের মধ্যে খুব কম নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।
➤বেশিরভাগ শিশু ২৪ থেকে ৩৬ মাস পর্যন্ত অন্ত্র এবং মূত্রাশয় নিয়ন্ত্রণ পেতে সক্ষম।

টয়লেট প্রশিক্ষণের গড় বয়স আড়াই বছর ( ২.৫ বছর)।

মনের সাথে সম্পর্ক?
একটা শিশুর শারীরিক বৃদ্ধির পাশাপাশি মানসিক বৃদ্ধিও সমানভাবে হয়ে থাকে।মানসিক বৃদ্ধি স্পষ্ট দেখা যায় না বলেই হয়তো মানুষ এ ব্যাপারটা প্রায়ই অগ্রাহ্য করে। আমেরিকান মনোবিজ্ঞানী এরিক এরিকসন, যিনি মানুষের উন্নয়নের (Development) মনস্তাত্ত্বিক পর্যায়কে আটটি স্তরে ভাগ করেছেন। এর দ্বিতীয় পর্যায় (2nd stage)-“স্বায়ত্তশাসন বনাম লজ্জা এবং সন্দেহ (Autonomy vs shame/doubt)” শিশুর দ্বিতীয় এবং তৃতীয় বছরগুলিতে ঘটে।

এরিকসনের মতে আত্ম-নিয়ন্ত্রণ এবং আত্মবিশ্বাস এই পর্যায়ে বিকশিত হতে শুরু করে। শিশুরা নিজেরাই অনেক কিছু করতে পারে। এই পর্যায়ে বাচ্চারা খাওয়া, টয়লেটিং এবং ড্রেসিংয়ের মতো কাজ নিজে নিজে শুরু করে।টয়লেট ট্রেইনিং এই পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।

এই স্টেজে শিশুকে তার নিজের খাওয়া, টয়লেটিং এবং ড্রেসিংয়ের জন্য আরও বেশি দায়িত্ব দিতে হবে। পিতামাতাদের অবশ্যই অতিরিক্ত অভিভাবকত্ব (overprotected) থেকে বের হয়ে বাচ্চাকে আশ্বাস দেওয়া উচিত।

যদি পিতামাতারা একটি আশ্বাস, আত্মবিশ্বাসী মনোভাব বজায় না রাখেন এবং মৌলিক মোটর এবং জ্ঞানীয় দক্ষতা অর্জনে সন্তানের চেষ্টাকে সজাগ না করেন তবে বাচ্চারা লজ্জা বোধ করতে শুরু করতে পারে; তারা তাদের নিজস্ব দক্ষতা সম্পর্কে সন্দেহ করতে শিখতে পারে। যে শিশুরা এই পর্যায়ে অত্যধিক সন্দেহ অনুভব করে তাদের জীবনকালে তাদের নিজস্ব ক্ষমতার প্রতি আস্থার অভাব থাকবে।

পটি প্রশিক্ষণে কি মা-বাবার প্রস্তুতি প্রয়োজন ?
১) বাচ্চাদের টয়লেটিং দক্ষতা শেখানোর সময় পিতা-মাতার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি হলো তাদের ইতিবাচক মনোভাব। প্রশিক্ষণের সমস্ত পর্যায়ে পিতামাতার যতটা সম্ভব শান্ত, ধৈর্যশীল এবং সাহায্যকারী হওয়া দরকার। বাচ্চারা তাদের পিতামাতার দ্বারা সত্যিকারের এবং উষ্ণভাবে প্রশংসিত ও উত্সাহিত হওয়ার পরে তারা তাদের সামর্থ্যগুলি ব্যবহার করতে এবং তাদের সাফল্যগুলি সম্পর্কে অত্যন্ত গর্বিত বোধ করতে পারে।

২) বাচ্চারা প্রশিক্ষণ চলাকালে যেখানে সেখানে পি- পটি করে দিলে ঘৃণা, হতাশা বা ক্ষোভ না দেখানোর জন্য পিতামাতাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করা উচিত। বড়দের নেতিবাচক এবং মানসিক প্রতিক্রিয়াগুলি অল্প বয়সী বাচ্চাদের তাদের শরীরের প্রক্রিয়া এবং ক্ষমতা নিয়ে লজ্জা বোধ করার কারণে টয়লেটিং দক্ষতা বিকাশে কাজ চালিয়ে যাওয়া থেকে নিরুৎসাহিত করতে পারে।

কিভাবে বুঝবেন আপনার সন্তান টয়লেট ট্রেইনিং এর জন্য প্রস্তুত?

  • ডায়াপার ভেজা বা ময়লা হলে অস্বস্তি দেখায়
  • পিতা-মাতা বা বড় বাচ্চারা যা করে তা অনুলিপি করে
  • টয়লেট কীভাবে ব্যবহৃত হয় তা দেখতে আপনাকে বাথরুমে অনুসরণ করে
  • পিতামাতাদের খুশী করতে বা প্রশংসা পেতে জিনিসগুলি (পটিটির কাছে যাওয়ার মতো) করতে চায়।
  •  দিনের বেলায় কমপক্ষে ২ ঘন্টা শুকনো ডায়াপার থাকে বা ন্যাপ পরে বা রাতারাতি শুকনো থাকে

নিম্নলিখিত টিপস পিতামাতাকে টয়লেট প্রশিক্ষণ শুরু করতে সহায়তা করতে পারে:
➤ যদি শিশুটির ভাইবোন থাকে তবে তাদের জিজ্ঞাসা করুন ছোট বাচ্চাকে টয়লেট ব্যবহারের জন্য তাদের প্রশংসা করতে।
➤প্রশিক্ষণের জন্য শিশুকে সরাসরি টয়লেট সিটে রাখার চেয়ে মেঝেতে পটি চেয়ার ব্যবহার করা ভাল। পটি চেয়ার বেশিরভাগ বাচ্চাদের পক্ষে আরও সুরক্ষিত কারণ তাদের পা মেঝেতে পৌঁছায় এবং পড়ে যাওয়ার কোনও ভয় নেই। যদি আপনি টয়লেটের ওপরে কোনও আসন ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেন তবে আপনার সন্তানের পায়ের জন্য একটি ফুটরেস্ট ব্যবহার করুন।
➤আপনার সন্তানের ৫ মিনিটেরও বেশি সময় পটির উপর বসে থাকা উচিত নয়।
➤যদি আপনার সন্তানের অন্ত্রের গতিবিধির জন্য স্বাভাবিক সময় থাকে (যেমন খাওয়ার পরে) আপনি দিনের সেই সময়টিতে আপনার সন্তানকে পটির কাছে নিয়ে যেতে পারেন। যদি আপনার শিশুটি অন্ত্রের গতিবিধি চলার সময় কোনও নির্দিষ্ট উপায়ে কাজ করে (যেমন হাঁটু গেঁথে যাওয়া, শান্ত হওয়া, কোণায় যাওয়া), আপনি যখন বাচ্চা যখন দেখান যে সময় এসেছে তখন আপনি পটিতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন।
➤ আপনার শিশু যদি পটিতে বসে থাকতে চায় তবে আপনি আপনার সন্তানের পাশে থাকতে পারেন এবং কথা বলতে বা বই পড়তে পারেন।
➤ আপনার শিশু কী করছে (“পটি,” “প্রস্রাব,” বা “পোপ”) তার জন্য সুবিধাজনক শব্দ ব্যবহার করা ভাল। তারপরে আপনার শিশু আপনাকে বলার জন্য শব্দগুলি শিখবে। মনে রাখবেন যে অন্যান্য লোকেরা এই শব্দগুলি শুনবে। এমন শব্দ ব্যবহার না করা ভাল যা অন্যকে বা আপনার সন্তানের ক্ষতি, বিভ্রান্ত করবে বা বিব্রত করবে।
➤ অন্ত্রের গতিবিধি এবং প্রস্রাবের বর্ণনা দিতে “নোংরা,” “দুষ্টু,” বা “দুর্গন্ধযুক্ত” শব্দ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।
➤ আপনার শিশু যদি প্রস্রাব – পটি করার আগে বা অন্ত্রের গতিপথ অতিক্রম করার আগে পটিটি থেকে নেমে যায় তবে শান্ত হন। বকাঝকা করবেন না। পরে আবার চেষ্টা করুন। আপনার শিশু যদি সফলভাবে পটি ব্যবহার করে তবে প্রচুর প্রশংসা করুন (যেমন একটি হাসি, তালি বা আলিঙ্গন)।
➤কিছু বাচ্চা পুতুলকে যেতে পুতুল শেখানোর ভান করে শেখে।আপনার সন্তানের জন্য এই শিক্ষাকে মজাদার করুন।

তাছাড়া প্রশিক্ষণ শুরুর পরে নিম্নলিখিত পরামর্শগুলি পিতামাতাকে হেল্প করতে পারে:
➤ বাচ্চারা একবার পটি ব্যবহার শুরু করে এবং তাদের যেতে হবে তা আপনাকে বলতে পারে, তাদের নিয়মিত সময়ে পটির কাছে নিয়ে যাওয়া বা পটিটিতে যাওয়ার জন্য অনেক বার তাদের মনে করিয়ে দেওয়ার প্রয়োজন হয় না।
➤আপনি বাচ্চাকে প্রশিক্ষণ প্যান্ট ব্যবহার শুরু করতে পারেন। আন্ডারপ্যান্ট পরা বড় হওয়ার লক্ষণ, এবং বেশিরভাগ বাচ্চা “বড়” হতে পছন্দ করে।
➤প্রশিক্ষণ প্যান্টের সময় আপনার সন্তানের যদি দুর্ঘটনা ঘটে থাকে তবে শাস্তি দেবেন না। এ সম্পর্কে কোনও গোলমাল না করে শান্ত থাকুন এবং পরিষ্কার করুন।
➤প্রতিটি ধাপে আপনার সন্তানের প্রশংসা বা পুরষ্কার দিন: প্যান্টগুলি নামানোর জন্য, পটিটির উপর বসে থাকার জন্য এবং পটি ব্যবহারের জন্য।
➤ বাচ্চাদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে তারা বাথরুমে যাওয়ার পরে নিজের মুছতে এবং হাত ধোওয়া শিখতে পারে।
➤ মনে রাখবেন যে প্রতিটি শিশু তার নিজস্ব গতিতে শৌচাগার প্রশিক্ষণ শেখে। টয়লেট প্রশিক্ষণের সাথে যদি জিনিসগুলি খারাপভাবে চলতে থাকে তবে কয়েক সপ্তাহের জন্য ডায়াপারগুলি আবার রাখাই ভাল এবং পরে আবার চেষ্টা করা ভাল। সাধারণভাবে, টয়লেট প্রশিক্ষণের জন্য একটি শান্ত দৃষ্টিভঙ্গি রাখুন।

অবশেষেঃ কত বছর বয়সের মধ্যে টয়লেটের সম্পুর্ন নিয়ন্ত্রণ আসে?
➤বেশিরভাগ শিশুদের ৪ বছর বয়সের মধ্যে অন্ত্র নিয়ন্ত্রণ এবং দিনের বেলা প্রস্রাব নিয়ন্ত্রণ থাকে।সেই বয়সের পরে মাটি বা দিনের বেলা ভিজে যাওয়া আপনার সন্তানের স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহকারীর সাথে আলোচনা করা উচিত।
➤নাইটটাইম নিয়ন্ত্রণ সাধারণত দিনের সময় নিয়ন্ত্রণের চেয়ে অনেক পরে আসে। আপনার বাচ্চা ৪ বা ৫ বা তার বেশি বা তার বেশি বয়স না হওয়া পর্যন্ত সম্পূর্ণ রাত্রে নিয়ন্ত্রণ আসে না।
➤আপনার শিশু যদি ৫ বা তার বেশি বয়সী হয় এবং রাতে শুকনো না থাকে তবে ডাক্তারের সাথে এটি নিয়ে আলোচনা করা উচিত।

এমনকি শিশুরা যখন টয়লেট প্রশিক্ষিত হয় তখনও তাদের কিছু সাধারণ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে (যখন উত্তেজিত হয় বা প্রচুর খেলে), বা অসুস্থতা বা সংবেদনশীল পরিস্থিতির কারণে বাধা পেয়ে থাকে। দুর্ঘটনা বা বিঘ্ন ঘটলে ধৈর্য ধরুন। সংবেদনশীল পরিস্থিতির উদাহরণগুলির মধ্যে রয়েছে একটি নতুন বাড়িতে চলে যাওয়া, পরিবারে অসুস্থতা বা মৃত্যু, বা বাড়ির একটি নতুন শিশু। আসলে, আপনি যদি জানেন যে কোনও সংবেদনশীল পরিস্থিতি শীঘ্রই ঘটতে চলেছে, তবে টয়লেট প্রশিক্ষণ শুরু করবেন না। একটি শান্ত সময়ের জন্য অপেক্ষা করুন।

যথাসম্ভব চেস্টা করেছি টয়লেট ট্রেইনিং বিষয়ক সাধারণ প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেয়ার, আশা করছি অনেকেই তাদের উত্তর পেয়ে যাবেন।

যদিও অনেকেই হয়তো এটা বলতে পারেন,আমাদের বাবা- মা,নানী- দাদীরা কত বাচ্চা মানুষ করলেন, এই পটি ফটি ট্রেইনিং এসব কথা কেউ শুনিনি বাপু। অথবা বাচ্চা ঘর- দোরে প্রস্রাব- পটি করতে করতেই শিখবে ইত্যাদি, —তাদেরকে আমার কিছু বলার নেই।শুধুমাত্র যারা এই বিষয়ে কনসার্ন,যারা বাচ্চাকে সঠিকভাবে পটি ট্রেইনিং দিতে ঝামেলায় পড়ছেন,বা বুঝতে পারছেন না কখন শুরু করবেন-তাদের জন্যই এ লেখা। সঠিক শারীরিক ও মানসিক বৃদ্ধি নিয়ে বেড়ে উঠুক সকল শিশু।

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here