মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home মানসিক স্বাস্থ্য শিশু কিশোর শিশুরাও হতে পারে মানসিক অবসাদের শিকার

শিশুরাও হতে পারে মানসিক অবসাদের শিকার

যদি আপনি মনে করে থাকেন শুধুমাত্র মানসিক অবসাদের শিকার হয় বড়রা তাহলে আপনি ভুল করছেন। মানসিক অবসাদে আক্রান্ত হতে পারে শিশুরাও।

সবথেকে চাঞ্চল্যকর তথ্য হল মাত্র কয়েক মাস বয়সের শিশুদেরকেও বিষণ্ণ হতে দেখা যায়। অনেক সময় দেখা যায় যে অভিভাবকরা বুঝতেই পারেন না শিশুদের সাধারণ দুঃখ বা বদমেজাজ এবং শৈশবকালীন অবসাদের কারণগুলো। এসব লক্ষণ কিন্তু মানসিক অবসাদের কথাই ব্যাক্ত করে। কিন্তু বাবা-মা এর বুঝতে পারার সামান্য অক্ষমতার জন্য কিছু শিশুদের মধ্যে শৈশবকালীন অবসাদ বিনা চিকিৎসায় থেকে যায়। যা পরবর্তী জীবনে বিভিন্নরকম মানসিক স্বাস্থ্যের জটিলতা সৃষ্টি করে

গবেষণায় দেখা গেছে, যখন একটি শিশু মানসিক অবসাদের মধ্যে দিয়ে যায়, তখন সে বুঝে উঠতে পারে না তার সঙ্গে কি যা হচ্ছে তার কারণ হল মানসিক আঘাত। যেখানে প্রাপ্তবয়স্কদের একটা ধারণা থাকে এ অবসাদ সম্পর্কে। প্রাপ্তবয়স্ক এবং শৈশবকালীন অবসাদের ভেতরকার পার্থক্য মূলট এখানেই। আর প্রতিটি অভিভাবকদের অবশ্যই এ ব্যপারে জানা উচিত।

আপনি যদি লক্ষ করে থাকেন যে আপনার শিশুটি প্রায়শই বিষণ্ণ ও অন্তর্মুখী ব্যবহার করছে তাহলে আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে সে হয়তো নির্দিষ্ট কিছু শৈশবকালীন মানসিক অবসাদের লক্ষণ প্রকাশ করছে, যা একেবারেই উপেক্ষা করা ঠিক হবে না আপনার জন্য। তাই সঠিক প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হলে সর্বপ্রথম আপনাকে জানতে হবে শিশুদের বিষণ্ণ ও অন্তর্মুখী অবসাদের লক্ষণ গুলো সম্পর্কে।  আসুন জেনে নেই শিশুদের বিষণ্ন বা অবসাদের লক্ষণগুলো কি-

১।আগ্রহের ঘাটতিঃ শিশুকে নিয়ে কোথাও বেড়াতে যেতে চাইছেন বা মজাদার কোনও কাজ করতে চাইছেন এসময় আপনার সন্তান তা মানা করে দেয় এবং সারাদিন নিজের ঘরেই কাটাতে চায়, তাহলে বুঝবেন সেটা বিষণ্নতার লক্ষণ।

২।আক্রমণাত্মকঃ যদি আপনার শিশু তার স্বভাবের বাইরে গিয়ে আক্রমণাত্মক ব্যবহার ও অতরিক্ত রাগের বহিপ্রকাশ করে তবে তা শৈশবকালীন অবসাদের লক্ষণ হতে পারে।

৩।উদাসীনতাঃ বিষাদগ্রস্ত শিশুরা সাধারণত, আনন্দদায়ক ঘটনাগুলি থেকে বা তার মা-বাবার স্নেহ-ভালবাসার অভিব্যক্তির থেকেও উদাসীন থাকে।

৪।মূল্যহীনতা বোধঃ যদি আপনার শিশু প্রায়শই বলতে থাকে, ‘আমাকে কেউ ভালবাসে না’ বা এমনি কিছু কথা। তবে এটি একটি লক্ষণ হতে পারে।

৫।খারাপ ফলঃ আপনার শিশু হঠাৎ করেই স্কুলে খারাপ ফল করছে, এটি শৈশবকালীন অবসাদের একটি লক্ষণ। কারণ, অবসাদ শিশুকে অন্যমনস্ক করে দেয়, একগ্রতা ও স্মৃতিশক্তির দক্ষতা বিঘ্নিত করে।

৬।একটানা অবসাদঃ যদি হঠাৎ করেই পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেয়ার পরেও আপনার সদা প্রাণচঞ্চল শিশুটির মধ্যে অত্যন্ত ক্লান্তি দেখা দেয়, তাহলে এটি বিষণ্নতার লক্ষণ হতে পারে।

৭।ক্ষুধামন্দাঃ ক্ষুধামন্দা, এটি হঠাৎ করেও হতে পারে। এটিও অবসাদের লক্ষণ হতে পারে। এবং এটি বলা খুবই মুশকিল কারণ বেশিরভাগ শিশুরাই ঠিকঠাকভাবে খাওয়ার ব্যাপারে খুবই খামখেয়ালী হয়ে থাকে।

৮।নিজেকে গুটিয়ে নেয়াঃ যদি হঠাৎ আপানার শিশু, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে বাইরে গিয়ে খেলাধুলা করা বন্ধ করে দেয় বা যদি লোকদের সঙ্গে মেলামেশা করতে না চায় তবে এটিও একটি শৈশবকালীন অবসাদের লক্ষণ।

মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে চিকিৎসকের সরাসরি পরামর্শ পেতে দেখুন: মনের খবর ব্লগ
করোনায় মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক টেলিসেবা পেতে দেখুন: সার্বক্ষণিক যোগাযোগ
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
করোনায় সচেতনতা বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও বার্তা দেখুন: সুস্থ থাকুন সর্তক থাকুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

দ্বন্দ্বপূর্ণ আচরণ এবং আমাদের চিন্তার জগত

“বিশ্ববিদ্যালয় শেষ করে চাকুরীতে ঢোকার পরপরই সিমির (ছদ্মনাম) বিয়ে হয়ে যায়। ২বছরের একটি সন্তান আছে তাঁর। অন্তঃস্বত্বা হবার পরই চাকুরীটা ছেড়ে দেয়। ইদানিং সে...

মহামারীতে সম্পর্কে টানাপড়েন এড়াতে করণীয়

কোভিড-১৯এর এই দুঃসময়ে গুলোকে বেশ জটিল মনে হতে পারে। তবে কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে পারলে মনের অমিল এবং সম্পর্কের এই জটিলতা গুলোকে বেশ সহজে...

সেক্সুয়াল মিথ ও যৌন স্বাস্থ্য: ২য় পর্ব

পর্নোগ্রাফীতে যে সহজতা থাকে, যে উত্তেজনার মাত্রা থাকে বাস্তব জীবনে তা থাকে না। কারণ অভিনয়ে বাড়াবাড়ি রকমের কিছু না থাকলে মানুষের মনে তা ধরে...

মহামারী কালে মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে পারিবারিক বন্ধনের ভূমিকা

আমাদের কাছের মানুষ গুলোর সাথে আমাদের সম্পর্ক যত গভীর, বিপদ মোকাবেলায় আমাদের মানসিক শক্তি থাকবে ততোটাই বেশী। যে কোন বিপদ মোকাবেলায় পরিবার ও কাছের মানুষদের...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন