এস.এস.সি উর্ত্তীনদের দুশ্চিন্তা

0
60
এস.এস.সি উর্ত্তীনদের দুশ্চিন্তা
এস.এস.সি উর্ত্তীনদের দুশ্চিন্তা

উজ্জ্বল ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখা, নিজেদের স্বপ্ন পূরনের দিকে এগিয়ে চলা এমন হাজারো তরুণ তরুণী আছে যাদের স্বপ্ন পূরনের অনেক বড় বাধা হয়ে দাড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। কিছুদিন আগেই এস.এস.সি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। অনেকেই অনেক ভালো ফলাফল করেছে।

এস.এস.সি’র পরই সবারই একটা সুন্দর স্বপ্ন থাকে কলেজে পড়াশোনা করার, নিজেদের স্বপ্ন পূরনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার। কিন্তু পৃথিবীতে বয়ে চলা করোনা ভাইরাস হঠাৎ করেই থামিয়ে দিয়েছে তাদের ভবিষ্যৎ স্বপ্ন দেখাকে।

সারা বিশ্বেই আজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের পাশাপাশি পড়াশোনা ও অনেকটা স্থবির হয়ে গেছে। এস.এস.সি পরীক্ষায় এরকম লাখো শিক্ষার্থী তাদের স্বপ্ন পূরন নিয়ে দুশ্চিন্তা করছে। দুশ্চিন্তা করছে তারা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের পড়াশোনা শুরু করতে পারবে কিনা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খুলবে কিনা, খুললেও সেখানে কোন ঝুঁকি থাকবে কিনা।
এবার এস.এস.সি পরীক্ষায় উর্ত্তীন এরকম একজন তরুন জিসান আহমেদ জানান, এস.এস.সি তে ভালো ফলাফল করবো সেই জন্য অনেক পরিশ্রম করেছিলাম। সেই অনুযায়ী ভালো ফলাফল ও করেছি, জি পি এ- ৫ পেয়েছি। কারন, আমার স্বপ্ন ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার। এস.এস.সির পর ভালো একটি কলেজে ভর্তি হবো এরকমটা আশা করছিলাম। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে তো কিছুই ভাবতে পারছি না। আদৌ কলেজে ভর্তি হতে পারবো কিনা, হলেও সেটা কবে সম্ভব বুঝতে পারছি না। যদি করোনার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘসময় ধরে বন্ধ থাকে, তাহলে আমরা যারা এস.এস.সি তে উর্ত্তীন হয়েছি তারা পিছিয়ে যাবো। আমরা অনেক আশা নিয়ে আছি কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্য। জীবনের আরকটি অধ্যায় শুরু করার জন্য। করোনা ভাইরাসের কারনে এরকম যদি চলতেই থাকে তাহলে আমাদের স্বপ্ন তো স্বপ্ন তো স্বপ্নই থেকে যাবে।
এরকম অনেক শিক্ষার্থী আছে যারা কলেজে ভর্তি হওয়ার স্বপ্ন দেখছিল,নিজেদের ভবিষ্যতে কিছু হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এগেচ্ছিল, কিন্তু আজ তা থমকে গেছে। এদুঃসময় কবে ঠিক হবে, কত সময় লাগবে ঠিক হতে, আমরা কেউই এখনও নির্দিষ্ট করে বলতে পারছি না। কলেজে ভর্তি হওয়ার সময়গুলো, কলেজ শেষ করার সময় গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ, আমরা সবাই জানি,কিন্তু এ সময়ে এক একটা দিন পিছিয়ে যাওয়া মানে অনেকটাই পিছিয়ে যাওয়া। নিজেদের ভবিষ্যৎ স্বপ্ন পূরনের থেকে একটা দিন পিছিয়ে যাওয়া। এস.এস.সি পরীক্ষায় উর্ত্তীন সকলেই জাতির ভবিষ্যৎ। চারদিকে প্রতিটি ক্ষেত্রে করোনা যেমন বাধা হয়ে আছে, তেমনি জাতির ভবিষ্যৎ এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক বড় বাধা হয়ে আছে। এ দুঃসময় কত সময় নিবে শেষ হতে আমরা কেউই জানি না। শুধু আশা তাড়াতাড়িই যাতে শেষ হয়ে যায়।
লিখেছেন: সৈয়দা মুমতাহিনাহ সোনিয়া
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে চিকিৎসকের সরাসরি পরামর্শ পেতে দেখুন: মনের খবর ব্লগ
করোনায় মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক টেলিসেবা পেতে দেখুন: সার্বক্ষণিক যোগাযোগ
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
করোনায় সচেতনতা বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও বার্তা দেখুন: সুস্থ থাকুন সর্তক থাকুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here