মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home মানসিক স্বাস্থ্য শিশু কিশোর অতিরিক্ত মেদে কৈশোরেই বাড়ছে হার্ট সার্জারি

অতিরিক্ত মেদে কৈশোরেই বাড়ছে হার্ট সার্জারি

টিনএজ অর্থাৎ কৈশোর কাল বলতে সাধারণত আমরা যা বুঝে থাকি তা হলো ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সী ছেলেমেয়ে। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, এ বয়সী ছেলেমেয়ের অধিকাংশেরই অতিরিক্ত খাবার গ্রহণের ফলে বেড়ে যাচ্ছে মেদ ও ওজন। যার কারণে দেখা দেয় হার্টে ব্লকের মতো নানান রকমের হৃদরোগ।
সম্প্রতি আরেকটি গবেষণায় দেখা গেছে, বেশি ওজনের ফলে হৃদযন্ত্রে উপক্ষয় দেখা দেয়। যার ফলে বেড়ে যায় হার্ট সার্জারি। এদিকে পরিসংখ্যান বলে, ২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে ১৫ হতে ১৯ বছর বয়সী ছেলেমেয়েদের মধ্যে ছেলেদের হার্ট সার্জারির সংখ্যাই বেশি। অর্থাৎ ছেলেদের মধ্যেই দেখা গেছে অতিরিক্ত ওজন ও মেদবৃদ্ধি।
ব্রিটেনে এক তৃতীয়াংশ ছেলেমেয়ে তাদের প্রাথমিক বিদ্যালয় পড়ালেখা চলমান অবস্থাতেই অতিরিক্ত মেদ অথবা ওজনের অধিকারী হয়ে থাকে। জাতীয় মেদ বিষয়ক চেয়ারম্যান ট্যাম ফ্রাই বলেন, ‘এটি খুবই ভয়াবহ একটি বিষয়। অতিরিক্ত অস্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ এবং পরিমিত ব্যায়ামের অভাবেই মূলত ছেলেমেয়েদের মেদ ও ওজন বাড়ছে। ছেলেমেয়েদের মেদ বা ওজন না বেড়ে যেনো সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে থাকে, সে বিষয় নিশ্চিত করা এখন আমাদের দায়িত্ব।’
এছাড়া হৃদরোগের পাশাপাশি, স্ট্রোক ও ডায়াবেটিসের মতো রোগের পরিমাণও অগণিত ভাবে বাড়ছে কৈশোরের ছেলেমেয়েদের। ২০১৭ সালের বছর ইউরোপের এক গবেষণায় দেখা গেছে, এক বছরেরও কম বয়সী ৪০০ শিশু অতিরিক্ত খাদ্য গ্রহণের ফলে মেদ বেড়ে, হৃদরোগের শিকার হয়েছে। গবেষণায় স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় তাদের হৃদযন্ত্র ৩০ শতাংশ বেশি দুর্বল বলে দেখা গেছে। অস্বাভাবিক বড় হৃদয় হলো হৃদরোগের প্রাথমিক লক্ষ্মণ যা অতিরিক্ত ওজনের ফলে দেখা গেছে। ইউরোপে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে এক বছরের কম বয়সী শিশু থেকে ২৫ বছর বয়সী ছেলেমেয়েদের হার্ট সার্জারির সংখ্যা ছিলো ৫০৭, যা গত বছর বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৭১৫।
আর এজন্যই হৃদযন্ত্র সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখতে মেদ জাতীয় জাঙ্কফুড পরিহার করে, শাকসবজি সমৃদ্ধ স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ করা উচিত। পাশাপাশি সময় করে ব্যায়াম করে নেয়াও দরকার। যার ফলে মেদ কিংবা অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি কোনোটারই ঝুঁকি থাকবেনা বরং সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে একটি স্বাস্থ্যকর জীবন পরিচালনা করা যাবে জীবনভর।
তথ্যসূত্র: সানডে এক্সপ্রেস।
অনুবাদটি করেছেন ইফ্ফাত আরা মুনিয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি প্রভাব ফেলছে মানসিক স্বাস্থ্যে

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে বিশ্বব্যাংক জানিয়েছিল, জলবায়ু পরিবর্তন ও তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশের সাড়ে ১৩ কোটি মানুষ জীবনযাত্রার ঝুঁকিতে রয়েছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬০...

নিদ্রা অনিদ্রা কিংবা অতিনিদ্রা কী করবেন

ঘটনা ১ ২০ বছরের লিজা, একটা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন। পরীক্ষার জন্য রাত জেগে পড়ালেখা করতে হয়েছিল এক মাস। পরীক্ষা শেষ হয়েছে, কিন্তু তারপর আগের...

আপনার সন্তানকে ভাল কাজে উৎসাহিত করুন

যদি আপনি চান আপনার সন্তান একটি সুস্থ, সুন্দর এবং সৎ ব্যক্তিত্বের অধিকারী হোক, তবে তার প্রতি আপনার দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করুন এবং তাকে সঠিক দিন...

নারীর মানসিক স্বাস্থ্য ও সচেতনতা

স্বাস্থ্যের কথা বললে আমরা অনেকেই শুধু শারীরিক সুস্থতাকেই বুঝি, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে হলে শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য দুটোরই...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন