মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home মানসিক স্বাস্থ্য শিশু কিশোর শিশুর স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগ বাড়াবে সীমিত স্ক্রিন টাইম

শিশুর স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগ বাড়াবে সীমিত স্ক্রিন টাইম

শিশুদের স্ক্রিন টাইম সীমিত করার মাধ্যমে তাদের ব্রেইনের কার্যক্রম আরো উন্নত করা যায় বলে নতুন এক গবেষণায় দেখা গেছে। এখানে স্ক্রিন টাইম বলতে মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, টেলিভিশন, ভিডিও গেম ইত্যাদির ব্যবহারকে বোঝানো হয়েছে।
আট থেকে এগারো বছর বয়সী সাড়ে চার হাজার শিশুদের নিয়ে দ্যা ল্যানসেট চাইল্ড অ্যান্ড অ্যাডোলোসেন্ট হেলথ নামে একটি আমেরিকান সংস্থা এই গবেষণাটি করে। গবেষণায় শিশুস্বাস্থ্যের জাতীয় নির্দেশিকা অনুযায়ী শিশুদের ঘুমের সময়সূচি, ব্যায়াম এবং স্ক্রিন টাইমের তুলনা করেন গবেষকরা। নির্দেশিকা অনুযায়ী এই বয়সী শিশুদের স্ক্রিনের সামনে দিনে দু’ঘণ্টার বেশি সময় ব্যয় করা উচিত নয়। এ ছাড়া প্রতিদিন কমপক্ষে ৯ থেকে ১১ ঘণ্টা ঘুমানো এবং অন্তত ১ ঘণ্টা শারীরিক কার্যকলাপ (খেলা, ব্যায়াম ইত্যাদি) করা উচিত।
গবেষকরা জানান, সাড়ে চার হাজার শিশুর মধ্যে মাত্র ৫ শতাংশ শিশু এই নির্দেশিকা অনুসরণ করতে সক্ষম হয়েছে। কেবল ৫১ শতাংশ শিশু সুপারিশকৃত সময় ঘুমিয়েছে, ৩৭ শতাংশ শিশু সুপারিশকৃত স্ক্রিন টাইম অনুসরণ করেছে এবং মাত্র ১৮ শতাংশ শিশু দৈনিক ১ ঘণ্টার শারীরিক ক্রিয়াকলাপে অংশ নিয়েছে।
যেসব শিশুরা প্রস্তাবিত লক্ষ্যমাত্র পূরণ করেছে তাদের বৈশ্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি স্মৃতিশক্তি, মনোযোগ এবং ভাষাগত উৎকর্ষতা সাধিত হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন গবেষকরা।
প্রধান গবেষক জেরেমি ওয়ালশ জানান, এই গবেষণায় শিশুদের ঘুম, স্ক্রিণ টাইম এবং ব্যায়ামের সামগ্রিক প্রভাব সম্পর্কে আমাদের অবগত করেছে।
আন্তর্জাতিক বার্তাসংস্থা সিএনএনকে তিনি বলেন, গবেষণার মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি শারীরিক কর্মকাণ্ড, ঘুম এবং স্ক্রিন টাইম শিশুদের বুদ্ধিমত্তা বিকাশে স্বাধীনভাবে হস্তক্ষেপ করতে পারে। যদিও এই আচরণের সমন্বয় কখনই বিবেচনা করা হতো না। আমেরিকান শিশুদের বুদ্ধিমত্তা বিকাশে এই নির্দেশিকাসমূহ কতোটা গুরুত্ব বহন করে তা আমরা এই গবেষণার মাধ্যমে জানতে পেরেছি।
তথ্যসূত্র: টাইম ডট কম।
অনুবাদটি করেছেন তৌহিদ সোহান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

মানসিক চাপ: এড়াবেন কীভাবে

জীবনে চাপ থাকবেই। কাজের চাপ, সময়ের চাপ, দেনার চাপ। আছে ব্যর্থতার যন্ত্রণা। হারানোর কষ্ট। এগুলো মানসিক চাপের কারণ হয়ে ওঠে। এই চাপ এড়াবেন কীভাবে?...

করোনা মহামারীর এই দুঃসময়ে আধ্যাত্মিকতা আনতে পারে মানসিক শান্তি

করোনা নিয়ে আমাদের দুশ্চিন্তার অন্ত নেই। তাছাড়া ঘরে থেকে থেকেও আমরা হাপিয়ে উঠেছি।  এ অবস্থায় শরীর ও মন ভাল রাখতে পারে আধ্যাত্মিক কাজকর্ম এবং...

বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি প্রভাব ফেলছে মানসিক স্বাস্থ্যে

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে বিশ্বব্যাংক জানিয়েছিল, জলবায়ু পরিবর্তন ও তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশের সাড়ে ১৩ কোটি মানুষ জীবনযাত্রার ঝুঁকিতে রয়েছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬০...

নিদ্রা অনিদ্রা কিংবা অতিনিদ্রা কী করবেন

ঘটনা ১ ২০ বছরের লিজা, একটা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন। পরীক্ষার জন্য রাত জেগে পড়ালেখা করতে হয়েছিল এক মাস। পরীক্ষা শেষ হয়েছে, কিন্তু তারপর আগের...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন