মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু ENGLISH

Home জীবনাচরণ অন্যান্য করোনা বিশ্বমারীর প্রথম ছয়মাসে কেমন ছিলো সিলেট মনোরোগবিদ্যা বিভাগ

করোনা বিশ্বমারীর প্রথম ছয়মাসে কেমন ছিলো সিলেট মনোরোগবিদ্যা বিভাগ

কোভিড ১৯ বিশ্বব্যাপী তৈরি করেছে হতাশা,অস্থিরতা এবং উদ্বেগের। স্বজন হারানোর বেদনা এবং চাপা কান্নাকে সাথে নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে যেতে হয়েছে চিকিৎসকদের। সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের মনোরোগ বিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান,বিএপি এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা.আর কে এস রয়েল (সহযোগী অধ্যাপক) বিশ্বমারীর প্রথম থেকেই ওয়ার্ড ম্যানেজমেন্ট,একাডেমিক কার্যক্রম এবং বিভাগের চিকিৎসকদের সুরক্ষার ব্যাপারে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন এবং দায়িত্ব বন্টন করে দেন।স্যারের সাথে ছিলেন আরও চার জন সম্মানিত সহকারী অধ্যাপক।

বর্তমানে সহকারী রেজিস্ট্রার এর পদে কেউ পদায়িত নাই।সাইকিয়াট্রি বহির্বিভাগে একজন মেডিকেল অফিসার পদায়িত আছেন।এমডি রেসিডেন্সি কোর্সের আওতায় আছেন মোট ১৪ জন।বর্তমানে দুই জন বেসরকারি রেসিডেনট মাতৃত্বকালীন ছুটিতে আছেন।১৪ জনের মধ্যে প্রেষনে অর্থাৎ সরকারি চাকুরীতে কর্মরত আছেন ৯ জন।সিওমেকহাতে করোনা ইয়েলো জোন শুরু হবার পর থেকেই সরকারি চাকুরীতে রত ৯ জনই ডিউটি করেছেন ইয়েলো জোনে এবং যা এখনও চলমান।তাদের মধ্যে তিনজন করোনায় আক্রান্ত হোন।তারা হলেন ডা.মোহাম্মদ হাসান,ডা.শুভ্র তুষার সিংহ এবং ডা.আফরোজা আক্তার।এদের মধ্যে ডা.শুভ্র তুষার সিংহের পুরো পরিবার আক্রান্ত হয়।ডা.আফরোজা আক্তারের তিনবার পজিটিভ আসে এবং হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।ডা.জসিমউদদীন,ডা.রফিক এবং ডা.রেজোয়ানা হাবিবা বাসায় তাদের ছোট বাচ্চা রেখে ইয়েলো জোনে ডিউটি করেছেন।

মার্চের মাঝামাঝি থেকে সেপ্টেম্বর এর শেষ পর্যন্ত প্রায় ১০০০০ রোগী মনোরোগ বিদ্যা বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছেন।ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন ৩১০ জন।এর মধ্যেই চলেছে একাডেমিক ক্লাস এবং অনলাইন প্রেজেন্টেশন।এছাড়া অনলাইনে চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং কাউন্সিলিং কার্যক্রম চালু ছিলো প্রথম থেকেই।
করোনায় আক্রান্ত হয়ে আমাদের শিক্ষক,সাদা মনের মানুষ,সাবেক বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা.গোপাল শংকর দে স্যার মারা যান।ভার্চুয়াল শোক সভা আয়োজন করা হয় বাপসিল এবং সিওমেক মনোরোগ বিদ্যা বিভাগের পক্ষ থেকে।বর্তমানে করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন সহকারী অধ্যাপক ডা.মুবিনউদ্দিন স্যার।স্যারের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।

প্রথম দিকে সুরক্ষা সামগ্রীর সংকটের সময় আমাদের বিভাগীয় প্রধান এবং বাংলাদেশ এসোসিয়েশান অফ সাইকিয়াট্রিস্টস এর উদ্যোগে আমাদের সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করা হয়। এরকম একটা জাতীয় ক্রাইসিস মূহুর্তে এ জনপদের মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যের জন্যে কাজ করার পাশাপাশি আমরা করোনা রোগীদের চিকিৎসা প্রদান করে গর্বিত।

একদিন বিশ্বমারী কেটে গেলেও স্মৃতিগুলো থেকে যাবে মনে।চিকিৎসকরা জনগণের শ্রদ্ধা,ভালবাসা এবং আস্থায় থাকুক।মহামারী আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের চিত্রটি তুলে ধরেছে।অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হবে।ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি একজন বিভাগীয় প্রধান হিসেবে শ্রদ্ধেয় আর কে রয়েল স্যার কর্ম চাঞ্চল্যের এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন আমাদের সামনে।মানুষ আশায় বাঁচে।সামনে ভালো দিন আসবে এই আশায় পার করছি কঠিন সময়।

লিখেছেন: ডা.মোহাম্মদ হাসান, এমডি কোর্স, ফেইজ এ, মনোরোগবিদ্যা বিভাগ,সিওমেক।

করোনায় স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

মানসিক চাপে ত্বকের ক্ষতি

মানসিক চাপের বহু ক্ষতিকর দিক রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ত্বকের ক্ষতি। এ ছাড়াও উচ্চমাত্রার মানসিক চাপের ফলে চুল পড়া, তৈলাক্ত মাথার ত্বক, অতিরিক্ত ঘাম...

পর্নোগ্রাফির আসক্তি যেভাবে প্রভাবিত করে ব্যক্তির চিন্তা

পর্নোগ্রাফির আসক্তি মানুষের জীবনে নানারকম নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। বদলে দেয় মানুষের চিন্তা ধারা। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে শিশুদের নিয়ে কাজ করে এরকম একটি দাতব্য সংস্থা প্ল্যান ইউকে...

কাকে বিশ্বাস করবেন? বিশ্বাস-অবিশ্বাসের পেছনের মনস্তাত্ত্বিক যুক্তি

যখন মনের জোর ধীরে ধীরে কমতে থাকে, তখন উদ্বেগ এবং আশঙ্কা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। এতে করে মানুষ যেমন নিজের উপর বিশ্বাস ফারিয়ে ফেলে,...

মৃত্যুভয় কাজ করে এবং সারাক্ষণ কল্পনার ভেতর ডুবে থাকি

সমস্যা: আমি কুমিল্লা থেকে মোঃ বেলাল হোসেন বলছি। আমি যেকোনো কিছু কল্পনা করতে ভালোবাসি, কল্পনার ভেতরই ডুবে থাকি সারাক্ষণ। মাথায় নানা রকম চিন্তা আসে...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন