অতীত সম্পর্ক নিয়ে অনুতাপে ভুগছেন?

0
73
অতীত সম্পর্ক নিয়ে অনুতাপে ভুগছেন?

সম্পর্কে ইতি টেনেছেন সত্যি তাও মাঝেমধ্যেই মনে হয়, “ইস! যদি কোনভাবে সম্পর্কটা টেকানো যেত!” এরকম মনে হওয়া কিন্তু মোটেও অস্বাভাবিক নয়। তবে এটাও সত্যি, পুরনো সম্পর্ককে নিয়ে খেদ বা অপরাধবোধে ভোগার কোনও অর্থ নেই! যা গিয়েছে তা গিয়েছেই। অতীতের জন্য বর্তমানকে কেন নষ্ট করবেন? আগের সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে মাথায় রাখুন কয়েকটি বিষয়।

১. সম্পর্ক শেষ হয়েছে। যতদিন একসঙ্গে ছিলেন, পৃথিবীর সবকিছুই রঙিন লাগত! তাই ব্রেক আপের পরে জীবনটা অনেকখানি ধূসর মনে হচ্ছে। এই অবস্থা থেকে ফিরে আসা সম্ভব হলেও অতীতের স্মৃতি হাতড়ালে অনুতপ্ত হয় না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল।

আর এই ব্যাপারটিই হতে দেওয়া যাবে না! মনে রাখবেন, নিশ্চিয়ই এমন কোনও বিষয় ছিলো যার কারণে শেষপর্যন্ত আর সম্পর্কটি টেকানোই গেলো না।

২. অনেকেই ভাবেন, এতদিন ধরে এমন একটা সম্পর্কের পেছনে সময় নষ্ট করলেন, যেটা শেষমেশ ভেঙ্গেই গেল! শুধু এটাই নয়। আরও নানারকম অনুশোচনা, অনুতাপ হওয়া একেবারেই অস্বাভাবিক নয়। সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরে অনেকেই ভাবেন যে ভুল মানুষের পেছনে জীবনের মহামূল্যবান সময় অপচয় করেছেন।

আসলে, যা গিয়েছে সেটা নিয়ে এভাবে ভেবে অযথাই সময় নষ্ট ছাড়া আর কিছুই করছেন না আপনি। তারচেয়ে বরং ভালো একটা সিনেমা দেখুন, গান শুনুন বা কাছের কোনও বন্ধুর সঙ্গে দেখা করে জমিয়ে আড্ডা দিয়ে আসুন কিছুক্ষণ। অর্থাৎ, অতীতকে সামনে আসতে দেওয়ার কোনও সুযোগই দেওয়া যাবে না!

৩. অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায়, সম্পর্কে থাকার সময় অনেকখানি কম্প্রোমাইজ বা সমঝোতা করে চলতে। হয়তো উল্টোদিকের মানুষটাকে সুযোগও দিতে চান ভুল শুধরে নেওয়ার। দিনের পর দিন মনোমালিন্য হতে থাকলেও ধরে নেন, একদিন নিশ্চয়ই সুখী হবেন। আবার অনেকে সম্পর্কে “টেকেন ফর গ্রান্টেড” হয়ে যান।

অনুতাপ হলে, মনে করুন সেসব অভিজ্ঞতার কথা। কীভাবে সেসময় নিজেকে ছোট করেছিলেন, অপমানিত হতে হয়েছিলো “বিশেষ মানুষটির” কাছেই। ভাবুন না, এখন আর যাই হোক নিজেকে প্রমাণ করার বাড়তি সেই চাপে তো আর দিন-রাত পিষ্ট হতে হচ্ছে না, এই কি কম সুখের?

৪. অনেকেই সঠিক সময়ে বোঝে না, সম্পর্কের ভিতটা আসলে কতটা দুর্বল! বিশ্বাস, পারস্পরিক শ্রদ্ধা থাকলে কেউ সম্পর্কে সুযোগ নিতে পারে না, এই বোধটা আসে অনেক দেরিতে। তখন অনেকেরই হয়ত সম্পর্ক ভেঙে দিয়েও অনুশোচনা থেকে যায়।

বিষয়টা কেন এভাবে দেখছেন না যে দেরিতে হলেও এইযে আপনার বোধদয় হলো, এটাই জীবনে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাবে আপনাকে। একটা ভুল বা রুগ্ন সম্পর্ককে জোর করে টিকিয়ে না রেখে এতখানি সাহস নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্তটি নিতে পারার জন্য নিজেকেই জম্পেশ একটা ধন্যবাদ জানিয়ে দিন না!

৫. আর একটা কথা অবশ্যই মনে রাখা প্রয়োজন। কোনও সম্পর্ক কাজ না করলে সেকথা ভেবে চোখের জল ফেলা আদৌ কাজের কথা নয়। অতীতের সম্পর্কে সফল না হলেও আপনি নিশ্চয়ই সেখান থেকে অনেককিছুই শিখেছেন। আর এই শিক্ষাই পরবর্তী সম্পর্কের ক্ষেত্রেও কোনও সিদ্ধান্ত নিতে আপনাকে অনেকবেশি পরিণত করে তুলবে।

মনের খবর মাসিক ম্যাগাজিন ক্রয়ের বিশেষ অফার

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here