ইতিবাচক চিন্তাভাবনা নিয়ে প্রতিটি দিন নতুন করে বাঁচুন

0
72
ইতিবাচক চিন্তাভাবনা নিয়ে প্রতিটি দিন নতুন করে বাঁচুন
কিছু সহজ ও ইতিবাচক চিন্তাভাবনা এবং কাজের মাধ্যমে প্রতিটা দিনের শুভ সূচনা করলে সারাটা দিন যেমন ভাল কাটে তেমনি একটি সুন্দর জীবনের জন্যও এগুলো অতীব প্রয়োজন।

একটি কথা প্রচলিত আছে, সকাল দেখেই বলে দেওয়া যায় সারা দিন কেমন কাটবে। বিশেষজ্ঞদের মতে নিচের ৮টি কাজ করলে প্রতি দিনের সকালের সাথে সাথে সারা দিনই মনের মাঝে শান্তির অনুভূতি কাজ করে।

১) “একটি ব্যস্ততাময় দিনের পূর্বের রাতে প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি সেরে ফেলুন। প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন কাগজপত্র, হাতের ঘড়ি, জুতো, জামা কাপড়, গাড়ীর চাবি ইত্যাদি রাতেই নির্দিষ্ট স্থানে গুছিয়ে রাখুন। এতে করে ঝামেলামুক্ত থাকা যাবে”- র‍্যাচেল অ্যান ডাইন

২) “সকালে হাসি মুখে ওঠার জন্য রাতে হাসি মুখে ঘুমান অত্যন্ত প্রয়োজন। ঘুমানর পূর্বে কোন খারাপ চিন্তাভাবনা বা খারাপ সংবাদ থেকে বিরত থাকুন। নিজের কাছে নিজে কিছু ভাল প্রতিশ্রুতি করুন।  ঘুমের সময় সকল প্রজুক্তিগত ডিভাইজ থেকে দূরে থাকুন। আপনার ঘুম যতটা শান্তিপূর্ণ হবে, আপনার পরবর্তী দিনও ততোটাই শান্তিপূর্ণ ভাবে কাটবে”। – কার্লা মেরি ম্যানলি

৩) “ অনেকেই সকালের জন্য অ্যালার্ম সেট করে রাখেন। একটি সুন্দর সকালের জন্য আপনার মুঠোফোনে অ্যালার্ম সেট করার পরিবর্তে একটি অ্যালার্ম ক্লক ব্যবহার করুন। যখন আপনি আপনার মুঠোফোনে অ্যালার্ম সেট করেন, তখন সকালে উঠেই মাটিতে পা রাখার পূর্বেই হাজার চিন্তা এসে এসে আপনার মাথায় ভর করে। সোশ্যাল মিডিয়া, ই-মেইল, ক্ষুদে বার্তা ইত্যাদি অনেক বিষয় না চাইতেও সামনে এসে যায়। এতে আপনার মনোযোগ ব্যাহত হয় এবং কাজের প্রতি অনীহা জন্মে”।– সারাহ ভেনারম্যান

8) “খুব উচ্চ মাত্রার শব্দ সৃষ্টিকারী অ্যালার্ম ক্লকের বদলে একটি আরামদায়ক অ্যালার্ম সেটিং ব্যবহার করুন। উচ্চ মাত্রার শব্দ সৃষ্টিকারী ঘড়িগুলো স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। খুব গভির ঘুম থেকে হঠাত স্বশব্দে  জেগে উঠলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি অতি মাত্রায় বৃদ্ধি পায়। এজন্য এমন একটি অ্যালার্ম ক্লক ব্যাবহার করুন যেটি সকালে আপনার কক্ষে সূর্যের আলোর মত বিকিরণ সৃষ্টি করে এবং খুবই শান্তিপূর্ণ এবং সাস্থ্যসম্মত ভাবে আপনার ঘুম ভাঙ্গায়”। – বিল ফিশ

৫) “ঘুম থেকে উঠে বিছানা ত্যাগ করার পুরবেসব থেকে আগে যেটি করতে হবে সেটি হল কৃতজ্ঞতা প্রকাশ। আপনি যে বিষয়টি নিয়ে বা যার প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ সেই বিষয় বা ব্যক্তিকে স্মরণ করুন এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন। কাজটি আপনার সমস্ত দিনকে সুন্দর ও শান্তিময় করে তুলবে”।– এমি ম্যাক মেনাস

৬) “প্রতিদিন সকালে স্বাভাবিকভাবে যেমন ঘুম ভাঙ্গে তেমনি এর বিপরীত ঘটনাও কিন্তু ঘটতে পারে। তাই নতুন পাওয়া প্রতিটি দিনের মূল্যায়ন করে সকালে চোখ মেলে সর্ব প্রথম নিজের ঈশ্বরের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন। তিনি আপনাকে আরও একটি নতুন দিন উপহার দিয়েছেন যেটাকে যথাযথ ভাবে কাজে লাগানোর সংকল্প করুন”। – তালিয়া মিরন শ্যাজ

৭) “সারা দিন কেমন কাটবে, কি কি ঘটবে এসব নিয়ে দুশ্চিন্তা করা বন্ধ করুন। ঠিক যেভাবে আপনি চান, দিনটিকে ঠিক সেভাবে কল্পনা করুন। নিজের মনের মত করে সব কিছু গুছিয়ে নিন। প্রতিদিন সকালে এবং প্রতি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এটি চর্চা করুন”। -র‍্যাচেল পার্লস্টেইন

৮) “সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনার সব থেকে পছন্দের কাজটি করুন।হ হতে পারে সেটি এক কাপ ধোঁয়া ওঠা গরম কফি কিংবা বা পছন্দের কোন গান। মন ভাল রাখার জন্য এটি খুবই প্রয়োজন। এর ফলে সার দিন আপনি প্রফুল্ল থাকবেন এবং কাজের অনুপ্রেরণা পাবেন”। -কার্লে হফম্যান কিং

প্রতিটি দিনের শুরুতে নিজেকে নতুন করে প্রস্তুত করুন, নতুন অনুপ্রেরণা প্রদান করুন। সকালটা যদি সুন্দর হয়, সারাদিন ও সুন্দরভাবেই কাটবে।

সূত্র: সাইকোলজি টু’ডে : https://www.psychologytoday.com/us/blog/minding-the-body/201901/8-ways-wake-happier?collection=1133379
অনুবাদ করেছেন: প্রত্যাশা বিশ্বাস প্রজ্ঞা

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here