মানসিক স্বাস্থ্যের সবকিছু

Home ক্লেপটোম্যানিয়া: বিখ্যাতদের তুচ্ছ চুরির বাতিক

ক্লেপটোম্যানিয়া: বিখ্যাতদের তুচ্ছ চুরির বাতিক

ক্লেপটোম্যানিয়া হচ্ছে এক ধরনের মানসিক রোগ । এ রোগে আক্রান্তরা সবসময় কিছু না কিছু চুরির তাড়না বোধ করে। যতক্ষণ পর্যন্ত চুরি করতে না পারে, ততক্ষণ অস্বস্তি যায় না। খুব কাছের মানুষের জিনিস চুরি করতেও তারা দ্বিধা বোধ করেন না।

সাধারণ চুরির সঙ্গে এর পার্থক্য হলো, এক্ষেত্রে রোগী টাকার অভাবে চুরি করেন না, চুরি করা জিনিস কখনো বিক্রি তো করেন-ই না; নিজেও কখনো ব্যবহার করেন না। চুরি করার পর তিনি খুব মানসিক অস্বস্তি ও গ্লানিতে ভুগতে থাকেন। এমনকি চুরি করা জিনিসটি ঠিক জায়গায় পৌঁছে দেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করতে থাকেন।
মনোস্তত্ত্বের ভাষায় ক্লেপটোম্যানিয়া বা ক্লোপেম্যানিয়া বলতে কোনো বস্তু চুরি করার আকাঙ্ক্ষাকে দমন করতে না পারাকে বুঝায়।  ১৮১৬ সালে সর্বপ্রথম বিষয়টি উল্লেখ করে একে একধরনের মানসিক বিকারের তালিকাভুক্ত করা হয়। ক্লেপটোম্যানিয়া অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডারের ( ওসিডি) মতো হতে পারে । আবার  আসক্তি এবং অনিয়ন্ত্রিত মন-মেজাজের ব্যাধিগুলোর সঙ্গে এর মিল থাকতে পারে।

বিখ্যাত বিত্তবানদের তুচ্ছ জিনিস চুরির বাতিকও এই ক্লেপটোম্যানিয়ার ফসল। বিশ্বখ্যাত অভিনেতা, রাজনীতিক, খেলোয়াড়, গায়ক, ব্যাংকার সব পেশার মানুষই এ তালিকায় আছেন।

এই হাতটানের অভ্যাসের জন্যই সম্প্রতি সিটিগ্রুপের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা পরশ শাহকে বরখাস্ত করা হয়েছে। অফিসের ক্যান্টিন থেকে খাবার চুরির অভিযোগে চাকরি হারিয়েছেন সিটি গ্রুপের এই উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। লন্ডনের ক্যানারি ওয়ারফে সিটি গ্রুপের ইউয়োপীয় হেডকোয়ার্টারে কর্মরত ছিলেন তিনি। এই ভারতীয়র বাৎসরিক আয় আনুমানিক ৯ কোটি ২০ লাখ রুপি।

২০১৬ সালে সহকর্মীর সাইকেল থেকে মাত্র ৫ ইউরো দামের চেইন-গার্ড চুরির দায়ের লন্ডনের এক ট্রেডারকে বরখাস্ত করে জাপানের মিজুহো ব্যাংক। অভিযুক্ত মারিয়াস কারাকোটা বলেন, মনের ভুলে চেইন-গার্ডটি নিয়েছিলেন। ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলাও করেছিলেন। গত বছর সেই মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। তিনি হেরে গেছেন।

২০১৪ সালে যুক্তরাজ্যের আর্থিক আচরণ সম্পর্কিত কর্তৃপক্ষ বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান ব্ল্যাকরকের একজন সাবেক নির্বাহীকে সব ধরনের আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জ্যেষ্ঠপদে বসানো আজীবন নিষিদ্ধ করে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, কমিউটার ট্রেনে যাতায়াতের সময় তিনি ভাড়া দিতেন না। জোনাথন বারোস নামে ওই কর্মকর্তা ব্ল্যাকরক অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মামলাটি নিষ্পত্তি করতে তিনি ৪৩ হাজার ডলার জরিমানা দিয়েছিলেন।

কানাডার বিখ্যাত রাজনীতিক ও শিক্ষক ক্লদ শাহোঁ দোকান থেকে মাত্র ১২০ ডলার মূল্যের দুটি জ্যাকেট চুরি করে পালানোর সময় ধরা পড়েন। এ ঘটনার জন্য ১৯৮২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি তাকে পত্রিকার শিরোনামে এসেছিলেন তিনি। সরকারের থাকার সময় তার বার্ষিক আয় ছিল ৭৪ হাজার ডলার। যদিও পদত্যাগের পর তা নেমে আসে ৪২ হাজার ডলারে।

কানাডার আরেক বিখ্যাত রাজনীতিক সভেন্ড রবিনসন। মানবাধিকা আন্দোলনের জনপ্রিয় মুখ ছিলেন তিনি। পার্লামেন্টে প্রকাশ্যে সমকামী ঘোষণা করা এ নেতা ২০০৪ সালের ১৫ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলনে ৬৪ হাজার ডলারের একটি আংটি চুরির অভিয়োগ স্বীকার করেন।

জ্যামাইকার বিখ্যাত সংস্কৃতি তাত্ত্বিক স্টুয়ার্ট হল। তিনি ১৯৯০ সালে ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টারের একটি মুদি দোকান থেকে এক জার কফি ও এক প্যাক সসেজ চুরি করার সময় ধরা পড়েন।

এছাড়া ব্রিটনি স্পিয়ার্স, লিন্ডসে লোহান, মেগান ফক্স এমন আরো অনেক বিখ্যাত সেলিব্রিটির এ বাতিক ছিল।
মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলেন,  ক্লেপটোম্যানিয়া একটি বিরল কিন্তু গুরুতর মানসিক ব্যাধি, যে কারোরই এ রোগ হতে পারে। এ রোগে আক্রান্ত অনেকে আমাদের আশেপাশেই হয়তো রয়েছে। তবে এই মানসিক ব্যাধি কিন্তু উপযুক্ত চিকিৎসা ও পরিচর্যার ফলে সারিয়ে তোলা যায়। ইলেক্ট্রো কনভালসিভ থেরাপি (ইসিটি) সেই সঙ্গে কিছু ওষুধ পথ্যের মাধ্যমে ধীরে ধীরে এ রোগ সারিয়ে তোলা যায়। কিন্তু অনেক রোগীই সামাজিকতা এবং লোকচক্ষুর ভয়ে সহজে কোনো ডাক্তারের কাছে যেতে চান না বা কারো কাছে এ বিষয়ে কথা বলতে চান না।

সূত্র: ফিন্যানসিয়াল টাইমস, উইকিপিডিয়া, সিয়াটল টাইমস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আমাদের সাথেই থাকুন

87,455FansLike
55FollowersFollow
62FollowersFollow
250SubscribersSubscribe

Most Popular

কোভিড ১৯ প্রেক্ষিতে মানসিক স্বাস্থ্য সেবা অত্যন্ত জরুরি: রোকসানা আক্তার

কোভিড-১৯ এর প্রভাবে বিরাট পরিবর্তন এসেছে আমাদের জীবনযাত্রায়। পরিবর্তন এসেছে আমাদের দৈনন্দিন রুটিনে। এই পরিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়ে কেমন কাটছে সাধারন মানুষের জীবনযাপন, কি...

শাস্তি নিশ্চিত হলেই কি ধর্ষণ কমে যাবে: অনলাইন জরিপ

ধর্ষণ সহ নারী নির্যাতনের ঘটনা যেন প্রতিনিয়ন বেড়েই চলেছে আমাদের দেশে। কোনোভাবেই যেন তা রোধ করা যাচ্ছে না। সম্প্রতি জন দাবীর মুখে ধর্ষণের সর্বোচ্চ...

মানসিক রোগ চিকিৎসার ক্ষেত্রে স্টিগমা সবচেয়ে বড় বাধা

মানসিক রোগ চিকিৎসার ক্ষেত্রে স্টিগমা সবচেয়ে বড় বাধা। সর্বশেষ জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য জরিপে বিভিন্ন প্রশ্নের প্রেক্ষিতে এই স্টিগমার পরিমান ৩৮-৯৮% পর্যন্ত দেখা গেছে। ২০১৯...

ইম্পোস্টার সিনড্রোম: নিজেকে অযোগ্য মনে করার রোগ

ইম্পোস্টার সিনড্রোম হলো এমন এক ধরণের মানসিক অবস্থা যে একজন মানুষ নিজের যোগ্যতা বা অর্জনকে সন্দেহের চোখে দেখে ও নিজেকে অযোগ্য মনে করে। মনে...

প্রিন্ট পিডিএফ পেতে - ক্লিক করুন