সকল বয়সী নারীদের চুলের দিকেই আমার নজর চলে যায়

0
339
প্রতিদিনের চিঠি

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে ঘটে নানা ঘটনা,দুর্ঘটনা। যা প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। সেসবের সমাধান নিয়ে মনের খবর এর বিশেষ আয়োজন ‘প্রতিদিনের চিঠি’ বিভাগ। এই বিভাগে প্রতিদিনই আসছে নানা প্রশ্ন। আমাদের আজকের প্রশ্ন পাঠিয়েছেন – তৌহিদুর রহমান (ছদ্মনাম)-

আমার বয়স ২৫ বছর। ছোটবেলা থেকে আমার মেয়েদের চুল দেখতে ভালো লাগে। সুন্দর চুল দেখলেই আমি তাকিয়ে থাকি। সকল বয়সী নারীদের চুলের দিকেই আমার নজর চলে যায়। এটা নিয়ে প্রায়ই বিব্রত হতে হয়। অনেকেই ভাবে আমি খারাপ দৃষ্টিতে নারীদের দিকে তাকাচ্ছি। কিন্তু বিশ্বাস করুন- চুল দেখা ছাড়া আমার মনে আর কোন বাসনা থাকে না। এটা নিয়ে আমার গার্লফ্রেন্ডের সাথেও সমস্যা হয়েছিল। তবে ওকে আমি ব্যাপারটি বুঝিয়ে বলাতে সে বুঝেছে। কিন্তু ব্যাপারটি নিয়ে আমি নিজে অশান্তিতে ভুগছি। এই অভ্যাসটি বদলাতে চাই। কিন্তু কোনভাবেই পারি না। আমার মনে হচ্ছে এটা আমার মানসিক অসুস্থতায় পরিণত হয়েছে। আমি এথেকে কিভাবে মুক্তি পেতে পারি?

না এটাকে সরাসরি কোনো মানসিক রোগ বলা যাবে  না। তবে আপনি যদি মনে করেন বা বিষয়টি যদি আপনার চলা ফেরাতে বা কাজে সমস্যা করে তবে অবশ্যই বিষয়টি দ্রুত সমাধান করা ভালো। তার আগের কথা হলো, চুলের দিকে সাধারণ দৃষ্টিতে তাকানো ছাড়া যদি আর কোনো চিন্তা না থাকে বা না আসে, তবে এটা নিয়ে আপনি চিন্তা না করলেও পারেন। একেক মানুষের একেক ধরনের পছন্দ বা ভালো লাগার বিষয় থাকতেই পারে। বিষয়টি যতক্ষন অন্যের জন্য ক্ষতিকর নয়, তত:ক্ষন আপনার জন্য খুব বেশী ভাবার কিছু নেই। এই অভ্যাস পরিবর্তন করা হয়তো কঠিনই হবে। পরিবর্তনের জন্য সর্বপ্রথমেই যেটা দরকার হবে সেটা হলো, জেনেশুনে বুঝে চুলের দিকে না তাকানো। অর্থাৎ বিজ্ঞানের ভাষায় বলতে গেলে বলতে হবে, কনশাসলি আপনি এই কাজটা করবেন না বা তাকাবেন না। একসময় হয়তো ফল পেতে শুরু করবেন। ঘটনার পর নিজেকে নিজেকে কিছু শাস্তি দিতে পারেন। যেমন আপনার চোখ যাবার পর বা দেখার পর তিন সেকেন্ড চোখ বন্ধ করে রাখবেন। এখানে চোখ বন্ধ করে রাখাটা আপনার জন্য অস্বস্তির কারণে হতে পারে। এভাবে অস্বস্তি থেকে বাঁচার জন্য পরবর্তীতে আর চুলের দিকে তাকাবেনই না। এমন বিষয়গুলি আপনি সরাসরি না করে চিন্তার ভিতর দিয়েও করতে পারেন। দেখেন কতটুকু লাভ হয়। অথবা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন। ভালো থাকবেন।

ইতি,
প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব

চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক – মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
সেকশন মেম্বার – মাস মিডিয়া এন্ড মেন্টাল হেলথ সেকশন অব ‘ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন’।
কোঅর্ডিনেটর – সাইকিয়াট্রিক সেক্স ক্লিনিক (পিএসসি), মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
সাবেক মেন্টাল স্কিল কনসাল্টেন্ট – বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট টিম।
সম্পাদক – মনের খবর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here