নতুন করোনাভাইরাসে শিশুরাও আক্রান্ত হচ্ছে উচ্চহারে

0
52
নতুন উপসর্গ নিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা

যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের তথ্য বিশ্লেষণের পর বিজ্ঞানীরা বলছেন, রূপান্তরিত এই ভাইরাস শিশুদের অনেক সহজে আক্রান্ত করতে পারে। পূর্বে বয়স্কদের তুলনায় শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার হার ছিল খুবই কম। তবে নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাসটি নিয়ে বিজ্ঞানীরা বলছেন, এটি উচ্চহারে শিশুদের মধ্যে সংক্রমণ ঘটাচ্ছে।

সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে নতুন বৈশিষ্ট্যের এই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। তারপর তা গোটা যুক্তরাজ্যে ছড়িয়ে পড়ে। অক্টোবরে ব্রিটেনে যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের ৫০ শতাংশই এই নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাসের কবলে পড়েছেন।

লন্ডনের ইমপেরিয়াল কলেজের অধ্যাপক নিল ফার্গুসন সোমবার (২১ ডিসেম্বর) বলেন, দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে সংক্রমণের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাসটিতে অন্য বৈশিষ্ট্যের ভাইরাসের তুলনায় শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার হার উচ্চ। তিনি বলেন, ‘এর মধ্যদিয়ে কিছু ভিন্নতার ব্যাখ্যা পাওয়া যায়। যদিও আমরা এর কারণ এখনও শনাক্ত করতে পারিনি, তবে তথ্য-উপাত্ত সে আভাসই দিচ্ছে।’

অধ্যাপক ফার্গুসন আরও বলেন, ‘লকডাউন চলার সময় আমরা দেখেছি ইংল্যান্ডে শিশুদেরকে আক্রান্ত করার ক্ষেত্রে ভাইরাসটি বয়সভেদে ভিন্ন আচরণ করছে।’

ব্রিটিশ সরকারের নিউ এন্ড ইমার্জিং রেস্পিরেটরি ভাইরাস থ্রেটস অ্যাডভাইজারি গ্রুপের সদস্য অধ্যাপক ওয়েন্ডি বার্কলে বলেন, ‘আমরা এমনটা বলছি না যে নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা ভাইরাসটি সুনির্দিষ্ট করে শুধু শিশুদেরকেই আক্রান্ত করছে কিংবা শিশুদেরকে আক্রান্ত করার জন্য এর সুনির্দিষ্ট কোনও সক্ষমতা রয়েছে। বরং আমরা জানতাম, কোভিড বয়স্কদের তুলনায় শিশুদের কম আক্রান্ত করতে পারে।’

ওয়েন্ডি আরও বলেন, নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস মানব কোষের সঙ্গে আরও ভালোভাবে যুক্ত হওয়ার এবং একে আক্রান্ত করার ক্ষমতা রাখে। এর মানে হলো, আগে শিশুদেরকে আক্রান্ত করতে এ ভাইরাসের বেগ পেতে হলেও, এখন এটি প্রাপ্তবয়স্কদের পাশাপাশি শিশুদেরকেও সহজে আক্রান্ত করতে পারছে।

নার্ভট্যাগ-এর চেয়ার ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগ বিষয়ক অধ্যাপক পিটার হর্বি বলেন, নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক তথ্য পাওয়ার পর সরকার বড়দিন উপলক্ষে পাঁচদিনের নিষেধাজ্ঞা শিথিলের পরিকল্পনা বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে। নতুন ভাইরাসটি যে ঝুঁকিপূর্ণ, সে ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা আগের চেয়ে অনেক বেশি নিশ্চিত।

পিটার আরও বলেন, ‘সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে ১২ জনেরও বেশি বিজ্ঞানী আবারও একত্রিত হয়েছিলেন। এর মধ্যে কয়েকটি নতুন মুখকে দেখা গেছে যারা শুক্রবারের বৈঠকে ছিলেন না। আমরা সব ডাটা নিয়ে আবারও বিশ্রেষণ করেছি। আরও বেশি ডাটা ব্যবহার করার পাশাপাশি বিশ্লেষণের ক্ষেত্রে ভিন্ন পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমরা অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি যে, যুক্তরাজ্যে এখন ভাইরাসের যে রূপান্তরগুলো আছে তাদের তুলনায় নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাস বেশি সংক্রামক।’

নতুন বৈশিষ্ট্যের ভাইরাসের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন কার্যকর হবে কিনা সে ব্যাপারে কতটা আত্মবিশ্বাসী জানতে চাওয়া হলে অধ্যাপক ওয়েন্ডি বার্কলে বলেন, ‘এ মুহূর্তে আমরা পুরোপুরি আত্মবিশ্বাসী নই। খুব দ্রুত এ ব্যাপারে বিশ্লেষণধর্মী কাজ করাটা খুবই জরুরি।’

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here