করোনা যুদ্ধ জয়ে লড়তে হবে এক কঠিন মানসিক লড়াই

0
32
করোনা যুদ্ধ জয়ে লড়তে হবে এক কঠিন মানসিক লড়াই
করোনা মহামারীর এই দুঃসময়ে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি কিংবা তার পরিবার, অথবা একজন ব্যক্তি যিনি করোনা মুক্ত থাকার প্রয়াস করছে, সবার ক্ষেত্রেই করোনার সাথে লড়াই করার শ্রেষ্ঠ অস্ত্র তার মানসিক শক্তি। করোনার সাথে লড়াইয়ের বড় অংশটিই মনস্তাত্ত্বিক।

অনেকের শরীরেই কোভিড-১৯ এর উপসর্গ বেশ জটিল এবং দীর্ঘস্থায়ী শারীরিক ও মানসিক প্রভাব রেখে যেতে পারে। যে সব রোগীদের ফুসফুস এবং অন্যান্য অর্গান বিশেষ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাদের শ্বাস প্রশ্বাসের কষ্ট হয় এবং চিকিৎসকেরা বাড়তি অক্সিজেন সরবরাহ করে এই কষ্ট দূর করার প্রয়াস করেন। আবার যাদের এই সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করে তাহলে তাদের নিবিড় পরিচর্যা কক্ষ বা আইসিইউ কক্ষে প্রেরণ করা হয়। এই সমস্যা এবং এর পরিত্রাণের সমগ্র প্রক্রিয়া রোগীর নিজের নিজের এবং তার পরিবারের মাঝে তীব্র মানসিক চাপ, ভয়, উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা, অনিশ্চয়তা, সৃষ্টি হয়। যেহেতু করোনা একটি অতি সংক্রামক ব্যাধি এবং আক্রান্ত রোগীকে সবার থেকে দূরে আইসোলেটেড রাখা হয় তাই সব রোগীর মনেই স্বভাবতই ভয় এবং উৎকণ্ঠা কাজ করে এবং রোগীর পরিবারের লোকজনের মনও ভারাক্রান্ত থাকে। এই রোগ এবং উপশমের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি যেমন চিকিৎসা কালীন জটিলতা সৃষ্টি করে তেমনি চিকিৎসা শেষেও রেখে যায় তীব্র মানসিক পীড়া।

রোগী এবং তার পরিজনদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মনেও এসব তীব্র প্রভাব বিস্তার করছে এবং করোনা আতঙ্ক সবার জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। আর এই মানসিক উৎপীড়ন আরও বৃদ্ধি করেছে করোনার প্রতিষেধকহীনতা। যেহেতু সম্পূর্ণ চিকিৎসা ব্যবস্থা এবং সুস্থতা সব কিছুই অনিশ্চিত এবং এটি প্রতিরোধের ব্যবস্থাও অত্যন্ত অপ্রতুল তাই রোগে আক্রান্ত না হয়েও অনেকেই মানসিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছে এবং রোগের সাথে লড়াইয়ের থেকে মনের সাথে, তাদের ভয়ের সাথে লড়াই করাই মূল চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়াও প্রতিদিন অসংখ্য রোগীদের সুচিকিৎসা দেয়ার শপথ নিয়েও চোখের সামনে অসহায় ভাবে করোনা রোগীদের বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু চিকিৎসকদের মনকেও ভারাক্রান্ত করে তুলেছে। তারা যেমন নিজের ও পরিবারের সুরক্ষা নিয়ে সন্দিহান তেমনি এই মর্ম পীড়া তাদেরকে অত্যন্ত মানসিক ভাবে অসহায়ত্বের উপলব্ধি করাচ্ছে। যা অনেক ক্ষেত্রেই তাদের করোনার কাছে অসহায় আত্মসমর্পণে বাধ্য করছে।

তাই এটা সুস্পষ্ট যে, করোনার সাথে ঠিক এই সময়ে আমাদের সবার লড়াই যতোটা না শারীরিক তার থেকে অনেক বেশী মনস্তাত্ত্বিক। এই মানসিক লড়াই জিততে পারলেই আমরা করোনা কালীন এই দুর্বিষহ অবস্থা কাটিয়ে ওঠার মানসিক শক্তি পাবো। করোনাকে ভয় পেয়ে আমরা যদি আক্রান্ত হবার আগেই মনের জোর হারিয়ে ফেলি তাহলে করোনার সাথে কখনোই এই লড়াই জিততে পারবোনা। আমাদের মূল সমস্যা করোনা নয়, বরং আমাদের মনের ভয়। এই ভয়কেই আমাদের জয় করতে হবে। তাছাড়া করোনা আক্রান্ত একজন রোগীকে সামাজিক ভাবে দূরে ঠেলে না দিয়ে বরং তার মনোবল বাড়িয়ে তার পাশে দাঁড়াতে হবে। সুরক্ষা বিধি মেনে তাকে সব রকম সহায়তা প্রদান করে তাকে বোঝাতে হবে যে সে একা নয়, বরং সবাই তার পাশে আছে। তার মনে করোনার সাথে লড়াই করার সাহস যোগাতে হবে। তার পরিবারের সবাইকেও এ সময় মানসিক সাপোর্ট প্রদান করতে হবে। তাদের মাঝে ইতিবাচক মানসিকতা বজায় রাখার অনুপ্রেরণা যোগাতে হবে।

করোনা মুক্ত এক পৃথিবী আমাদের সবার স্বপ্ন। আর এই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে হলে আমাদের সবাইকে নিজেদের মাঝে সেই স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। করোনার সাথে লড়াইয়ের পূর্বে আগে নিজের মনের সাথে যে লড়াই সেটি জিততে হবে এবং করোনাকে হারিয়ে দেবার যথাযথ প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here