অস্বস্তি থেকে স্বস্তির পথে প্রত্যাবর্তন

0
57
অস্বস্তি থেকে স্বস্তির পথে প্রত্যাবর্তন
মহামারীর এই দুঃসময়ে স্বাভাবিক জীবনে সৃষ্টি হওয়া বিশৃঙ্খলা আমাদের চরম অস্বস্তি এবং মানসিক চাপের মাঝে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে কিভাবে এই অস্বস্তিকর অবস্থা মোকাবেলা করে পুনরায় জীবনে স্বস্তিকর অবস্থা ফিরে পাওয়া যায় সেই প্রয়াস আমাদের করা প্রয়োজন।

কোভিড-১৯ এর ফলে আমাদের সমাজে এবং ব্যক্তিগত জীবনে নানা ধরণের বিড়ম্বনা সৃষ্টি হয়েছে। এক দিকে মহামারী প্রতিনিয়ত অগণিত মানুষকে আক্রান্ত এবং অসংখ্য মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। অন্য দিকে সুস্থ মানুষেরাও আতঙ্কিত হয়ে এবং সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে দুশ্চিন্তা গ্রস্ত হয়ে নানা ধরণের মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। অর্থাৎ আক্রান্ত বা আক্রান্ত ব্যতিরেকে সবাইই করোনা মহামারীর দ্বারা প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে প্রভাবিত হয়েছে। আমরা ঘরের বাইরে যেতে পারছিনা এবং আমাদের চলাচল, মেলামেশা সব কিছুই নিয়ন্ত্রিত করা হয়েছে। শিক্ষা কার্যক্রম ঘরে বসেই চালিয়ে নিতে হচ্ছে। শিশুরা বাইরে যেতে পারছেনা। তাছাড়া জীবিকা নির্বাহের জন্য প্রয়োজনীয় কাজ কর্মও মানুষকে ঘরে থেকেই চালিয়ে নিতে হচ্ছে। এসব পরিবর্তন আমাদের জীবনে নিয়ে এসেছে এক চরম বিপর্যয়। মানসিকভাবে আমরা এই পরিবর্তিত অবস্থার সাথে মানিয়ে নিতে পারছিনা। যার ফলে করোনা মোকাবেলার সাথে সাথে নিজদের মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ রাখাও আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। আসুন এমন কিছু কৌশল জানার প্রয়াস করি যেগুলো আমাদের এই অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

১) প্রথমত, নেতিবাচক অবস্থা ভুলে যাবার প্রয়াস করুন
বর্তমানে এই অস্বাভাবিক অবস্থা মোকাবেলা করার চ্যালেঞ্জ সত্যিই অনেক কঠিন। কিন্তু শুধু নেতিবাচক অবস্থার কথা ভেবে যদি আমরা নিজেদেরকে আরও অস্বস্তিকর অবস্থায় ফেলে দি তাহলে এর বিপরীতে নিজেদের আত্মবিশ্বাস ধরে রাখা আরও কঠিন হবে। এই পরিস্থিতিতে নেতিবাচক মানসিকতা এবং চিন্তা গুলো দূরে রাখতে মেডিটেশন, যোগাভ্যাস ইত্যাদি করা যেতে পারে। অর্থাৎ নিজের মনকে শান্ত করতে হবে যাতে এই নেতিবাচক প্রভাব থেকে আমরা আমাদের ভাবনাগুলোকে মুক্ত রাখতে পারি।

২) দ্বিতীয়ত, আত্মশক্তির জাগরণ
আমাদের চারপাশের অবস্থা যতটাই নেতিবাচক হোক না কেন, আমাদেরকে আমাদের মাঝে অন্তর্নিহিত শক্তিকে ভুলে গেলে চলবেনা। প্রতিকূল অবস্থায় মানসিক চাপ মোকাবেলা করে সব অস্বস্তি মুক্ত থেকে পরিস্থিতি বদলে সহায়তা করে আমাদের আত্মবিশ্বাস বা অন্তর্নিহিত শক্তি। আর এই শক্তি আমাদের সবার টিকে থাকার মূল উৎস।

৩) তৃতীয়ত, মন থেকে মেনে নেওয়া
প্রাকৃতিক দুর্যোগের উপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ থাকেনা। এমন দুর্যোগে ধৈর্য ধারণ করা এবং প্রতিকূল অবস্থাকে মেনে নেওয়া ছাড়া আমাদের কাছে করার কিছুই থাকেনা। তাই এমন পরিস্থিতিতে নিজেকে দোষারোপ না করে এবং মানসিক চাপ না বাড়িয়ে আমাদের উচিৎ পরিস্থিতিকে মন থেকে মেনে নেওয়া। পরিবর্তিত অবস্থায় সব অস্বস্তিকে দূরে ঠেলে আমরা যদি নিজেদের পরিবর্তিত করে মানিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা করি তাহলে আমাদের টিকে থাকা সহজ হবে এবং আমরা অপেক্ষাকৃত কম সমস্যায় ভুগবো।

সব সময় মনে রাখতে হবে যে মহামারীর এই দুঃসময়ে আমি বা আমরা একা নই। পৃথিবীব্যাপী সবাই এই মহামারীর শিকার এবং সবাইকেই এই পরিবর্তিত পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে। তাই মন খারাপ না করে পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা করতে হবে। যেহেতু এই অবস্থা পরিবর্তনের সামর্থ্য আমাদের নেই, তাই অযথা মানসিক চাপ না বাড়িয়ে স্বস্তি খোঁজার প্রয়াস করতে হবে। সুস্থ ও সুন্দরভাবে বাঁচার প্রয়াস করতে হবে।

সূত্র: https://www.psychologytoday.com/intl/blog/lead-kindness/202010/becoming-comfortable-the-uncomfortable

অনুবাদ করেছেন: প্রত্যাশা বিশ্বাস প্রজ্ঞা

স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here