কোভিড-১৯: কর্মস্থলে যাওয়ার তাড়া এবং দুশ্চিন্তা

0
92
কোভিড-১৯: কর্মস্থলে যাওয়ার তাড়া এবং দুশ্চিন্তা
কোভিড-১৯: কর্মস্থলে যাওয়ার তাড়া এবং দুশ্চিন্তা

করোনা মহামারীর এই সংকটকালীন মুহূর্তে যখন আমাদের ঘরে থাকাই এর থেকে সুরক্ষিত থাকার একমাত্র উপায় সে সময়ে চাকরীর জন্য যাদেরকে প্রতি দিন বাইরে বের হতে হচ্ছে তাদের মাঝে এই কাজ এক চরম মানসিক উদ্বিগ্নতা, ভয় এবং দুশ্চিন্তার সৃষ্টি করছে।

যারা এই দুঃসময়েও বাইরে কাজ করছেন তারা আমাদের কাছে হিরোদের সমতুল্য। কিন্তু তারা এ সময়ে রয়েছেন অসম্ভব মানসিক চাপের মুখে এবং এই মানসিক চাপ সামাল দিয়ে কার্যভার সামলানো সত্যিকার অর্থে খুবই কঠিন কাজ। প্রতি দিন বাইরে বের হতে হলে যেমন নিজের স্বাস্থ্য ঝুঁকি থাকে, তেমনি পরিবারের অন্য সদস্যদের জন্য ব্যক্তি নিজে স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করেন। এর ফলে তার নিজের জন্য যেমন দুশ্চিন্তা থাকে, তেমনি একইসাথে তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্যও তার দুশ্চিন্তা দ্বিগুণ বেড়ে যায়। এক দিকে জীবিকা ও চাকরী এবং অন্য দিকে নিজের ও পরিবারের সুরক্ষা। সব মিলিয়ে এক চরম পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে তাকে যেতে হচ্ছে। এই সময়ে সব দিক সামলে মানসিক ও শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখতে এবং মানসিক চাপ কিছুটা হলেও কমাতে কিছু কৌশল অবলম্বন করা যেতে পারে।

১) নিজেকে দোষারোপ করবেন নাঃ উদ্ভূত এই পরিস্থিতি আপনার সৃষ্ট নয়। তাই নিজের বা পরিবারের স্বাস্থ্য ঝুঁকির দায় নিজের উপর চাপাবেন না। আপনি সমাজের একজন সক্রিয় কর্মী এবং সবার সেবা দান করার জন্যই আপনাকে বাইরে যেতে হচ্ছে। এর থেকে মহৎ এই সময়ে কিছুই হতে পারেনা। আপনি শ্রদ্ধার পাত্র। তাই পরিস্থিতি বা নিজের উপর দোষারোপ না করে এর সাথে মানিয়ে নিয়ে সুরক্ষিত থাকার চেষ্টা করুন। এর মধ্য দিয়েই আপনি লড়াই করতে পারবেন এবং অবশ্যই জয়ী হবেন।

২) নিজের ভয় এবং দুশ্চিন্তার অনুভূতিকে মেনে নিনঃ কোন কোন সময় ভয় আমাদের সঠিক পথের নির্দেশনা দেয়। ভয় পরিস্থিতিকে সতর্কতার সাথে পর্যবেক্ষণ করতে প্রেরিত করে এবং ভয়ই আমাদের মহামারী থেকে সুরক্ষিত রাখে। নিজের মাঝে আক্রান্ত হওয়ার ভয় থাকা কোন নেতিবাচক কিছু নয়। তাই নিজের আবেগকে নিজের দুর্বলতা ভেবে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন না। বরং ভয় থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে সঠিকভাবে সুরক্ষিত থেকে নিজের কাজ সম্পন্ন করুন।

৩) আক্রান্ত হলে কি করবেন এবং না হলে কিভাবে থাকবেন সেগুলো ভেবে রাখতে পারেনঃ ভয় বা দুশ্চিন্তা করলে কখনোই কোন সমাধান আসবেনা। যেহেতু আপনাকে কাজের খাতিরে বাইরে যেতেই হচ্ছে তাই কিছু চিন্তাভাবনা অগ্রিম সেরে রাখুন। আক্রান্ত না হতে বা সুরক্ষিত থাকতে কি করা দরকার বা আক্রান্ত হয়ে গেলে কিভাবে তা মোকাবেলা করবেন সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কিছু পরিকল্পনা আগেভাগেই করে রাখুন। এতে আপনার দুশ্চিন্তা কমবে এবং আপনি মানসিকভাবে সব কিছুর জন্য তৈরি থাকবেন।

৪) নিজের উপর আস্থা রাখুনঃ নিজের সিদ্ধান্তের উপর আস্থা রাখুন। সব সময় মনে রাখবেন, আপনি যা করছেন, ভাবছেন এবং ভবিষ্যতে যা যা করবেন সেটা হবে আপনার দিক থেকে নেওয়া সব থেকে সেরা পদক্ষেপ। আপনি মহামানব নন। তাই ভুল ত্রুটি থাকবেই। তাই বলে আত্মবিশ্বাস হারাবেন না। ভেবে চিন্তে আপনি যা করবেন, সেটাই হবে আপনার সেরা সিদ্ধান্ত। নিজের ভুল থেকে শিক্ষা নিন এবং সুরক্ষিত থাকতে নিজের উপর আস্থা রাখুন। আত্মবিশ্বাসী হন।

যেহেতু বাইরে যাওয়া এবং সুরক্ষিত থাকা দুটোই অত্যাবশ্যক, তাই অযথা ভয় বা দুশ্চিন্তা করবেন না। স্থির চিত্ত থাকুন, আত্মবিশ্বাস বজায় রাখুন এবং মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্যের যত্ন নিন।

করোনায় স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here