কোভিড-১৯ এবং একঘেয়ে জীবনযাপনে বাড়তি মানসিক চাপ

0
271
কোভিড-১৯ এবং একঘেয়ে জীবনযাপনে বাড়তি মানসিক চাপ

করোনা মহামারীর এই দুঃসময়ে সবার মুখে সব থেকে বেশী যে কথাটি শোনা যায় সেটি হল একঘেয়ে জীবনে সবাই খুবই ক্লান্ত। এই একঘেয়েমি হয়তো কোভিড-১৯ থেকে সৃষ্টি হওয়া সব থেকে প্রভাবশালী সমস্যাগুলোর একটি যা মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যের চরম ক্ষতি সাধন করছে।

মহামারীর কারণে আমরা স্বাভাবিকভাবে বাইরে যেতে পারছিনা এবং সুরক্ষিত থাকতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণে আত্মীয় স্বজন, বন্ধু, প্রতিবেশীদের কেউ আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসতে পারছেন বা আমরাও যেতে পারছিনা। এমন অবস্থায় যা কিছু করতে হচ্ছে সব কিছুই নিজের ঘরে বসে এবং দীর্ঘদিন ধরে এমন অবস্থা চলতে থাকায় সবার জীবনেই নেমে এসেছে চরম একঘেয়েমি। এই একঘেয়েমি জীবনে অসসন্ন মনোভাব যেমন আমাদের খাওয়া দাওয়া, পরিপাক ইত্যাদি ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করছে তেমনি এর ফলে আমাদের উদ্দীপনা কমে যাওয়ার সাথে সাথে বিভিন্ন মানসিক সমস্যা যেমন, বিষণ্ণতা, হতাশা ইত্যাদির উচ্চ ঝুঁকি সৃষ্টি হচ্ছে। এই একঘেয়েমি মনোভাব মানসিক চাপ সৃষ্টির জন্য দায়ী এবং এটিকে নেতিবাচক মনস্তাত্ত্বিক অনুভূতি হিসেবেই আখ্যায়িত করা যায়। তাছাড়া এ ধরণের একঘেয়ে মনোভাব থেকে মুক্তি পেতে একজন মানুষ যে সব কাজে জড়িয়ে পড়ে সেটি তার জন্য আরও ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মাদকাসক্তি, অতিমাত্রায় খাওয়া বা ক্ষুধামন্দা, অতি মাত্রায় ঘুম বা নিদ্রা হীনতা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোর প্রতি অত্যধিক আসক্তি ইত্যাদি একজন সুস্থ মানুষকে ধীরে ধীরে চরম মানসিক ও শারীরিক ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়।

একঘেয়েমি অনেক ক্ষেত্রেই একটি স্বাভাবিক অনুভূতি। কিন্তু কোভিড-১৯ এবং লকডাউন এই স্বাভাবিক অবস্থা বা অনুভূতিটিকেই একটি অস্বাভাবিক মাত্রায় নিয়ে গেছে যা মানুষের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে উঠেছে। কম বয়সীদের মধ্যে এবং বিশেষ করে পুরুষ মানুষ, অবিবাহিত এবং নিম্ন আয়ের মানুষেরা এই একঘেয়েমি জীবন যাপনের বেশী সমস্যায় ভুগছে। বাইরে যেতে না পারায় এবং বন্ধু বান্ধবদের সাথে আড্ডা, দেখা সাক্ষাৎ দীর্ঘ দিন ধরে বন্ধ থাকায় তারা সব থেকে বেশী মানসিক অবসাদে ভুগছে যা অনেক ক্ষেত্রেই আত্মহত্যার মত সামাজিক সমস্যাগুলোকেও বাড়িয়ে দিচ্ছে।

স্বাভাবিকভাবেই যখন মানুষ নিজেকে বন্দী এবং অবসাদগ্রস্ত মনে করে তখন তার মাঝে মানসিক চাপ বৃদ্ধি পায়। এই মানসিক চাপ থেকেই একাকীত্ব, রাগ, মনঃকষ্ট, এবং দুশ্চিন্তার মত নেতিবাচক মানসিক অবস্থার সৃষ্টি হয়। আর এই সমস্যা আরও আরও বৃদ্ধি পায় যখন মানুষ এই অবসন্ন ভাব থেকে মুক্তি পেতে তেমন কিছুই করে উঠতে পারেনা। কোভিড-১৯ মহামারী আমাদের সবারই নিয়ন্ত্রণের বাইরে এবং এর কোন কার্যকরী প্রতিষেধক এখনো আবিষ্কৃত না হওয়ায় এর থেকে মুক্তি পেতেও আমরা কিছু করতে পারছিনা। এই অসহায়তা আমাদের অবসন্ন মনোভাবকে আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে এবং চরম পর্যায়ে মানসিক সমস্যা সৃষ্টি করছে।

এই একঘেয়েমি জীবন থেকে মুক্তি পেতে শুধু বাইরে যাওয়াই বা বন্ধুদের সাথে দেখা করাই একমাত্র উপায় নয়। যেহেতু আমরা এই কোভিড কালীন সময়ে সামাজিক মেলামেশা এবং বাইরে ঘোরাঘুরি করতে পারছিনা তাই সমাধানটাও আমাদের এমন খুঁজে বের করতে হবে যা ঘরে থেকেই আমাদের একঘেয়েমি দূর করতে সহায়তা করবে। এই লক্ষ্যে আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজের তালিকায় বিভিন্ন আনন্দদায়ক কাজ রাখতে পারি। মানসিক চাপ দূর করতে এমন কাজ করতে পারি যা মনকে আনন্দ দেবে, মানসিক প্রশান্তি প্রদান করবে। পরিবারের সবার সাথে নতুন নতুন কাজ করা, মজার মজার খেলা, রান্না বান্না ইত্যাদি কাজের মাধ্যমে অবসাদকে দূরে রাখা যায়। শরীরকে সুস্থ রাখতে বিভিন্ন শারীরিক কসরত এবং শরীরচর্চা করা প্রয়োজন। এতে সময় কেটে যাবে এবং ভালো একটি অভ্যাসও গড়ে উঠবে। তাছাড়া গান শুনে, মুভি দেখে, বই পড়ে ইত্যাদি কাজ করে সময় কাটানো যেতে পারে। এতে নিজের মাঝে আত্মবিশ্বাস তৈরি হবে এবং মন ভালো থাকবে।

নিজেকে বোঝাতে হবে যে এই সময়ের উপরে আমাদের কারও নিয়ন্ত্রণ নেই। নিজের মনকে বোঝানোই এই সময়ে সব থেকে বেশী গুরুত্বপূর্ণ। মন থেকে মেনে নিয়ে সব কিছু সামলে নিতে পারলে এই অবসাদ থেকে কিছুটা হলেও নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা যাবে এবং মানসিক সমস্যাগুলো আমাদেরকে অসুস্থ করে দিতে পারবেনা। একঘেয়ে জীবনে আবার আনন্দ ফিরিয়ে আনতে ঘরে থেকেই আমাদের প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। সময় ও পরিস্থিতির সাথে নিজেকে বদলে নিতে অসমর্থ হলে আমরা কালের গর্ভে হারিয়ে যাবো। নিজেদের অস্তিত্ব বজায় রাখতে তাই এই পরিস্থিতিতে আমাদের মানিয়ে নিতে হবে এবং মনে আনন্দ নিয়ে দুঃখকে সুখে বদলে দেবার প্রয়াস করে যেতে হবে।

সূত্র: https://www.psychologytoday.com/intl/blog/emotional-nourishment/202010/i-m-so-bored

অনুবাদ করেছেন: প্রত্যাশা বিশ্বাস প্রজ্ঞা

করোনায় স্বজনহারাদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য পেতে দেখুন: কথা বলো কথা বলি
করোনা বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য ও নির্দেশনা পেতে দেখুন: করোনা ইনফো
মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মনের খবর এর ভিডিও দেখুন: সুস্থ থাকুন মনে প্রাণে

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here